Android মোবাইল থেকেই হ্যাক করুন সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট গুলো ……

টাইটেল টি দেখে অনেকেই অবাক হচ্ছেন। কারন ফেসবুক অনেক সিকিউরড একটি প্লাটফর্ম যা হ্যাক করা কোন সহজ কাজ না। আবার অনেকেই ভাবতেছেন এটা আসলে ভুয়া অথবা আমার ইনফরমেশন হাতিয়ে নেয়ার কোন ফায়দা। আসলে কোনটাই না। আমাদের সাইট ও পেইজ এ অনেক রিকুয়েস্ট এসেছে কিভাবে ফেসবুক হ্যাক করা যায়। জিনিস টা নিয়ে আমিও ভাবলাম। আজ যে টিপস টা দিতে যাচ্ছি তা এর আগেও আমি দেখিয়েছি তবে সেটা পিসি এর জন্যে ছিল। আর আজকের টিপস টা শুধুমাত্র এন্ড্রয়েড ডিভাইস এর জন্যে। আমি আমার মোবাইল এ আগে পরিক্ষা করে দেখেছি সুতরাং এটা কোন রকমের ভুয়া অথবা স্কেম না। অনেকেই ভাবতে পারেন এই উপায়ে আমি আপনার ইনফরমেশন হাতিয়ে নিবো… আসলে না আমি কিছুই নিবো না। এটি আপনাকে হ্যাক করার কোন উপায় না শুধুমাত্র আপনি অন্য কারো ফেসবুক,টুইটার,ইউটিউব,এমাজন ইত্যাদি একাউন্ট হ্যাক করতে পারবেন অথবা তাদের একাউন্ট এক্সেস করতে পারেবেন। তাহলে চলুন দেখি…

This is just EDUCATION purpose only. I’m not responsible for any kinds of illegal activities.

এই পদ্ধতিতে আপনি হ্যাক করতে পারবেন—

  • FaceBook
  • Twitter
  • Youtube
  • Amazon
  • VKontakte
  • Tumblr
  • MySpace
  • Tuenti
  • MeinVZ/StudiVZ
  • blogger
  • Nasza-Klasa
  • আরও কয়েকটি সার্ভিস

আপনার কি কি লাগবে??

একটি এন্ড্রয়েড মোবাইল, মোবাইল টি অবশ্যই রুট করা হতে হবে। ইন্টারনেট কানেকশন,হ্যাকিং অ্যাপ

প্রথমে যা করতে হবে…

এই পদ্ধতিটি আসলে কুকি অথবা সেশন হাইজেকিং নামে পরিচিত। এটি পিসি তে অনেক আগেই আমি দেখিয়েছিলাম মজিলা এর একটি এডঅনস দিয়ে। তবে এন্ড্রয়েড এ এটি করা হবে একটি ছোট অ্যাপ এর মাধ্যমে। পোস্ট এর নিচে আমি অ্যাপ এর ডাউনলোড লিংক দিয়ে দিচ্ছি।

এটি জেভাবে কাজ করবে—

ধরুন একই নেটওয়ার্কের আওতায় যদি আপনি ছাড়া অন্য কেউ ফেসবুক,টুইটার,ইউটিউব ইত্যাদি সাইট এ ঢুকে তাহলে এই অ্যাপ টি ওই নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ওই ইউজার এর সেশন টি কপি করে নিয়ে আসবে এবং আপনি আপনার মোবাইল এর ব্রাউজার থেকে তা এক্সেস করতে পারবেন। মানে ওই ইউজার এর একাউন্ট এ আপনি বিনা অনুমতিতে ঢুকতে পারবেন।  ঢাকায় অনেক ইউনিভার্সিটি তে ওপেন ওয়াইফাই আছে। ওপেন ছাড়াও ধরুন এটি ওয়াইফাই পয়েন্ট এর মাধ্যমে ওই ভার্সিটি অথবা এরিয়াটি কাভার করা হচ্ছে। তো আপনি সহজেই ওই এরিয়া অথবা ওয়াইফাই পয়েন্ট এ কানেক্ট করা যেকোনো ইউজার এর একাউন্ট এক্সেস করতে পারবেন। এছাড়াও ঢাকা সহ দেশের ভিবিন্য জায়গায় প্রাইভেট ওয়াইফাই পয়েন্ট সার্ভিস দেয়া হচ্ছে এই পদ্ধতিতে আপনি সেই পয়েন্ট এর ইউজার হ্যাক করতে পারবেন।

এটি যে আসলেই কাজ করে আসুন আমি প্রমান করে দেই…

আমি কাল রাত এ আমার মোবাইল এ অ্যাপ টি ইন্সটল করি। আমার মোবাইল টি রুট করা। ধরুন আপনিও অ্যাপ টি ইন্সটল করলেন।

ইন্সটল করার পর অ্যাপ টি ওপেন করুন। ( বলে রাখি এই অ্যাপ টি আপনার ডিভাইস এর কোন ইনফরমেশন চুরি করবেনা,পিসি তে অ্যাপ টি ডাউনলোড করলে আপনার এনটিভাইরাস সফটওয়্যার এটিকে ভাইরাস হিসেবে ধরবে তবে এটি ভাইরাস না, এটিকে ভাইরাস হিসেবে ধরার কারন এটি কুকি অথবা সেশন চুরি করে তাই এটি একটি ট্রোজান টাইপ স্ক্রিপ্ট। মোবাইল এও এটিকে ভাইরাস ধরতে পারে যদি কোন এন্টিভাইরাস থাকে। তাই এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার টি ৫ মিনিট এর জন্যে অফ করে নিলেই হবে )

অ্যাপ টি ওপেন করলে এটি আপনার সুপার ইউজার পারমিশন চাইবে। পারমিশন দিয়ে দিন।

hack facebook from android

উপরের ছবির মতো পাবেন ওপেন করার পর। এখন আর কিছুই করতে হবেনা। শুধু মাত্র START বাটন টি প্রেস করুন। তারপর এই অ্যাপ টি আপনি যে ওয়াইফাই অথবা নেটওয়ার্কের আওতায় কানেক্ট আছেন সেই নেটওয়ার্কের আওতায় যদি অন্য কেউ ফেসবুক,টুইটার,ইউটিউব,ব্লগার,এমাজন ইত্যাদি সাইট এ লগিন করা থাকে তাহলে তার লিস্ট এখানে শো করবে। যেমন আমি পরিক্ষা করার জন্যে আমার পিসি থেকে আমার ফেসবুক এ লগিন রেখেছি।

hack facebook

এখানে  আমার ফেসবুক এর আইডি টি শো করছে তার মানে এই ফেসবুক একাউন্ট টি আমার মোবাইল থেকে এখন আমি এক্সেস করতে পারবো। মানে একাউন্ট টি এখন আমার হাতে। তাহলে চলুন এটি এক্সেস করি। এক্সেস করার জন্যে এটিতে টাচ করুন। নিচের মতো পাবেন।

ফেসবুক হ্যাক

 

যেকোনো একটি ব্রাউজার সিলেক্ট করুন। অপেরা তে আমার ফেসবুক লগিন করা আছে আগেই তাই আমি অন্য একটি ব্রাউজার সিলেক্ট করে নিলাম এবং তাতে প্রবেশ করলাম। প্রবেশ করার পর নিচের ছবির মতো পেলাম।

hack facebook

 

তার মানে আমি আমার পিসি তে লগিন করা ফেসবুক একাউন্ট এর এক্সেস মোবাইল থেকে পেয়ে গেছি এবং মোবাইল এ আমার লগিন করতে হয় নি। এটি আমি পরিক্ষা করার জন্যে দেখিয়েছি। কিন্তু একই উপায়ে আপনি যেকোনো ওয়াইফাই পয়েন্ট অথবা একই নেটওয়ার্কের আওতায় লগিন করা যেকোনো ইউজার এর আইডি এক্সেস করতে পারবেন। আর এক্সেস পাওয়ার পর আপনি ওই ইউজার এর আইডি তে যা ইচ্ছা করতে পারবেন আপনার মতো। তার মানে আপনি তার ফেসবুক টি হ্যাক করতে পেরেছেন।

বর্তমান সময়ে আমরা ওয়াইফাই পয়েন্ট এ কানেক্ট করি ও থাকি যদি কোন ওয়াইফাই পাই… তাহলে তো আমার আইডি ও হ্যাক হয়ে যাবে। সুতরাং বাচার উপায় কি??

বাচার উপায়ঃ

এই অ্যাপ টি নরমাল প্রটোকল থেকে সেশন চুরি করতে পারে। তবে সিকিউরড প্রটোকল মানে HTTPS থেকে চুরি করতে পারবে না। সুতরাং এই অ্যাপ থেকে আপনার ফেসবুক একাউন্ট টি বাচাতে হলে যা করতে হবে…

আপনার পিসি থেকে ফেসবুক লগিন করুন। Security সেটিং থেকে Browse Facebook on a secure connection (https) when possible অপশন টি অন করে নিন নিচের ছবির মতো…

https facebook

এটি অন করার পর থেকে আপনার ফেসবুক HTTPS প্রটোকল থেকে ব্রাউজ হবে যা সিকিউরড সার্ভার এবং এই অ্যাপ টি তা এক্সেস করতে পারবে না।

এবার আসি অন্য একাউন্ট এর কথায়। ইউটিউব একাউন্ট নরমাল প্রটোকল এ চলে তাই আপনি একটু সতর্ক থাকতে হবে এবং দরকার না হলে তাতে লগিন করবেন না। আর লগিন করলেও তা ব্যাবহার শেষ হলেই লগআউট করে দিবেন। যদিও আমার পিসি তে সবসময় আমার সব আইডি লগিন থাকে কারন আমার ওয়াইফাই পয়েন্ট অন্য কেউ ইউজ করে না এবং আমার ওয়াইফাই সিকিউরিটি ব্রেক করা অনেক কঠিন।

এই পোস্ট টি আমি মূলত লিখেছি আপনার হ্যাকিং শিখাইতে না, এই পদ্ধতিতে হ্যাকিং থেকে বাচাতে। কারন আমার মতো যারা এই পদ্ধতি টা জানে তারা খুব সহজেই আপনার একাউন্ট এ বিচরন করতে পারছে। চুরি করতে পারছে আপনার অনেক প্রয়োজনীয় ডাটা। তাই আশা করি এই পোস্ট টি পরার পর সতর্ক হয়ে যাবেন। আবুল,বাবুল,মফিজ কে বোকা বলেন কিন্তু আপনি যে কতটা বোকা হবেন সেটা ভাবতেও পারবেন না… তাই সময় থাকতে আপনার সিকিউরিটি স্ত্রং করে নিন।

এছাড়াও ফেসবুক,ইমেইল হ্যাকিং নামক অনেক সফটওয়্যার পাওয়া যায় নেট এ। ভুলেও ট্রাই করবেন না। ওইসব অ্যাপ ও সফটওয়্যার এ ট্রোজান স্ক্রিপ্ট দেয়া আছে যা আপনার পিসি ও আপনাকেই হ্যাক করে নিবে। তাই অতি চালাকি করতে গিয়ে ধরা খাইয়েন না।

আর অ্যাপ টির ডাউনলোড লিংক দেয়া হয় নি। অ্যাপ টি ডাউনলোড করে নিন তাহলে নিচের লিংক থেকে…

https://www.dropbox.com/s/bnjvmn53ssz6gnk/FaceNiff-2.4.apk?m

About বিদ্যুৎ বিশ্বাস

একটি উত্তর দিন