স্কাই গ্রাহকদের উন্নত ইন্টারনেট অভিজ্ঞতা দিতে কিউবি নিয়ে এল ‘ফেয়ার ইউসেজ পলিসি’ (এফইউপি)

সম্প্রতি কিউবি স্কাই গ্রাহকদের জন্য ১লা আগষ্ট, ২০১১ হতে ‘ফেয়ার ইউসেজ পলিসি’ (এফইউপি) বা ‘সুষ্ঠু ব্যবহার নীতিমালা’ প্রবর্তন করেছে। ‘ফেয়ার ইউসেজ পলিসি’ বিশ্বজুড়ে আই.এস.পি. কম্পানিদের সাধারন নীতিমালা যা অপ্রত্যাশিত ব্যবহার রোধের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। মুলত কিছু সংখ্যক গ্রাহক অতিরিক্ত ব্যান্ডউইথ ব্যবহার করে যাতে অধিকাংশ গ্রাহকের ব্যবহারে বিঘ্ন ঘটাতে না পারে, সেকারনেই ‘ফেয়ার ইউসেজ পলিসি’।
নতুন এই ‘ফেয়ার ইউসেজ পলিসি’ (এফইউপি) এর অর্ন্তভুক্ত র্শতগুলো নিম্নরুপঃ

প্যাকেজ ইউসেজ লেভেল বা ব্যবহারের সীমা ফেয়ার ইউসেজ পলিসি নীতিমালার আওতায় পদক্ষেপ
পদক্ষেপের সময়সীমা

৫১২ কেবিপিএস স্কাই ৩০ জিবির বেশি ব্যবহার
স্পিড বা গতি কমে ১২৮ কেবিপিএসে নেমে আসবে পরবর্তী বিলিং পিরিয়ড পর্যমত্ম

১এমবিপিএস স্কাই ৩৫ জিবির বেশি ব্যবহার
স্পিড বা গতি কমে ১২৮ কেবিপিএসে নেমে আসবে পরবর্তী বিলিং পিরিয়ড পর্যমত্ম

২এমবিপিএস স্কাই ৪০ জিবির বেশি ব্যবহার
স্পিড বা গতি কমে ১২৮ কেবিপিএসে নেমে আসবে পরবর্তী বিলিং পিরিয়ড পর্যমত্ম

মাসের যেকোনো সময়েই ইন্টারনেট ব্যবহারের সীমা মাসিক ৫১২ কেবিপিএস স্কাই প্যাকেজে ৩০জিবি, ১এমবিপিএস স্কাই প্যাকেজে ৩৫জিবি এবং ২এমবিপিএস স্কাই প্যাকেজে ৪০জিবি অতিক্রম করলে কিউবি সংশিস্নষ্ট গ্রাহককে ‘ফেয়ার ইউসেজ পলিসি’ (এফইউপি) শীর্ষক নীতিমালার আওতায় নিয়ে আসা হবে। এক্ষেত্রে মাসের পরবর্তী দিনগুলোর জন্য সেই সকল গ্রাহকের ইন্টারনেট স্পিড বা গতি কমিয়ে ১২৮ কেবিপিএসে নামিয়ে আনা হবে। কিউবির ফেয়ার ইউসেজ পলিসি (এফইউপি) অনুযায়ী পরবর্তী বিলিং পিরিয়ডের শুরুতেই উল্লিখিত ধরনের গ্রাহকদের জন্য ইন্টারনেট স্পিড বা গতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে। বিস্তারিত তথ্যের জন্য লগ অন করুন- www.qubee.com.bd/get-qubee/packages|
কিউবি এর চীফ মার্কেটিং অফিসার, জনাব নেহাল আহমেদ বলেন,‘‘ আমরা জানুয়ারী, ২০১০ এ ‘ফেয়ার ইউসেজ পলিসি’ প্রযোজ্য হতে পারে আবার নাও হতে পারে এই র্স্বত্বে আমাদের কিউবি স্কাই প্যাকেজ গ্রাহকদের কাছে নিয়ে এসেছিলাম । কিউবি স্কাই প্যাকেজের গ্রাহকদের ‘ফেয়ার ইউসেজ পলিসি’ এর সীমার মধ্যে ডাউনলোড এর কোন বাধ্যবাধকতা নেই। এই ফেয়ার ইউসেজ পলিসিটি কিছুদিন আগে পর্যমত্ম প্রবর্তন করার প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়নি। তথাপি একটি ক্ষুদ্র অংশের অধিক বেন্ডউইথ ব্যাবহারের ফলে কিউবির বেশীর ভাগ গ্রহকই ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছিলেন এবং এর পদক্ষেপ হিসেবে ‘ফেয়ার ইউসেজ পলিসি’ গ্রহন করার প্রয়োজন হয়ে পরেছে যা গ্রাহকদের মাঝে সমতা রক্ষায় সাহায্য করবে এবং একটি গ্রহনযোগ্য সেবা প্রদানের অবস্থায় নিয়ে আসবে। ‘ফেয়ার ইউসেজ পলিসি’ টি শুধুমাত্র স্কাই প্যাকেজ গ্রাহকদের জন্য এবং এই নীতিমালায় উল্ল্যেখিত ব্যান্ডউইথ ব্যাবহারের সীমা অধিকাংশ গ্রাহক যে ব্যান্ডউইথ ব্যাবহার করে থাকেন তার থেকে অধিক নির্ধারণ করা হয়েছে। কিউবি ‘ফেয়ার ইউসেজ পলিসি’ এর শর্তাবলী জানার মাধ্যমে স্কাই পেকেজের গ্রাহকরা আগে থেকেই তাদেও ব্যবহার ম্যানেজ/ ব্যাবস্থাপনা করতে পারবেন এবং স্বাধীন ভাবে তাদের কানেকশন ব্যাবহার করতে পারে। এছাড়া কিউবির গ্রাহকরা ‘ফেয়ার ইউসেজ পলিসি’ বিহীন ৩ জিবি, ৬ জিবি, ১২জিবি ও নতুন ২৪ জিবি এর ক্যাপট প্যাকেজ ব্যাবহার করতে পারেন।
বাংলাদেশের বাজারে ইন্টারনেট শিল্পে কিউবিই হলো সর্বপ্রথম ফোর জি (৪জি) টেকনোলজি বা প্রযুক্তির প্রচলনের পথিকৃৎ। সেই সঙ্গে কিউবিই এদেশে প্রথমবারের মতো সত্যিকারের ফোর জি প্রি-পে সেবা প্রবর্তন করে এবং সবার আগে সব কাস্টমার বা গ্রাহকদের জন্য মাত্র এক হাজার টাকায় মডেম বিক্রির অফার দেয়। এছাড়া বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো কিউবিই গ্রাহকদের সামনে মাসে ৪০০ টাকার বিনিময়ে ৫১২ কেবিপিএস ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগ এনে দেয় যা অতি শীঘ্র পরিনত হয় ৪০০ টাকার বিনিময়ে ১ এমবিপিএস। কিউবিই প্রথম তাদের গ্রাহকদের জন্য চলতি মূল্যেই দ্বিগুন গতির ইনটারনেট সুবিধা নিয়ে আসে। বাণিজ্যিক কার্যক্রম উদ্বোধনের দেড় বছরের মধ্যেই দেশের মোট ব্যান্ডউইডথ্ ট্রাফিকের ২০ শতাংশ কিউবির গ্রাহকরা ব্যবহার করছেন যা তাদের বৃহত্তম আইএসপি তে পরিনত করেছে। কিউবির কর্মীবাহিনী অব্যাহত চেষ্টার মাধ্যমে বাংলাদেশের গ্রাহকদের কাছে সহনীয় দামে উচ্চ গতিসম্পন্ন ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দিতে বদ্ধপরিকর। যাতে এদেশের সব মানুষ চাইলেই ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগ পান।সব ধরনের গ্রাহকের প্রয়োজন ও পছন্দের কথা বিবেচনা করে তাঁদের জন্য কিউবি বিভিন্ন বৈচিত্র্যপূর্ণ ইন্টারনেট সেবার প্যাকেজসমূহের ডিজাইন করে থাকে।

About কমপিঊটার পাগল

একটি উত্তর দিন