স্বপ্নের বাংলাদেশ ২০১২: পেপাল ইউজার এক লক্ষ

এই স্বপ্নের কথা পড়ে হয়ত আপনাদের অনেকের মনে হতে পারে যে স্বপ্নটা বোধহয় আমি একটু বেশি দেখে ফেলেছি। পেপালেরই এখন পর্যন্ত দেখা নাই আর এক লক্ষ ইউজার হবে কেমন করে। আমি খুবই আশাবাদি যে আগামী এক বছরের মধ্যে পেপাল বাংলাদেশে চলে আসবে এবং চলে আসলে এক মাস বা দুই মাসের মধ্যে এক লক্ষ ইউযার হয়ে যাবে।
কেন আমি সে কথা বলছি? বর্তমানে যদি আমরা বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজের ছাত্রদের দিকে তাকাই তাহলে দেখব যে অন্তত ঢাকাতেই প্রায় লাক্ষ খানেক ছাত্র রয়েছে সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় মিলেয়ে। কলেজের ছাত্ররাতো রয়েছেই। তাই এক লক্ষ ইউজার সারা বাংলাদেশে হওয়াটা আমার কাছে মোটেও অবাস্তব বা অসম্ভব মনে হচ্ছে না।
এজন্য অবশ্যই বাংলাদেশ ব্যাংক এবং বেসিসকে এগিয়ে আসতে হবে এবং পেপালকে আনার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করতে হবে। আর ই-কমার্স কিভাবে পেপাল ছাড়া বাস্তবায়িত হতে পারে সেটা আমার কাছে এখনও আসলে বোধগম্য নয়। আউটসোর্সিং-এ যদি ভাল করতে চাই তাহলে তো পেপাল লাগবেই, তাই না। তাই আমাদের উচিৎ এখন থেকে পে-পাল ব্যাপারে যতটা সম্ভব মিডিয়ায় আলোচনা করা যাতে করে সরকার এ ব্যাপারে উৎসাহিত হয়।
আমাদের একটা কথা মনে রাখতে হবে এই যে সরকারি যারা কর্তা ব্যক্তি তাদের আসলে শুধু এক পেপাল নিয়ে চিন্তাভাবনা করার মত অবকাশ নাই। এই কাজটা আমাদেরই করতে হবে। আমাদেরকেই গুরুত্ব তুলে ধরতে হবে। এবং এটা করতে হবে মিডিয়াতে ও ফেসবুকে এবং যেখানে যতটা সম্ভব। এখন থেকে যদি পেপালের জন্য একটি সংগবদ্ধ আন্দোলন গড়ে উটে তাহলে বোধহয় সরকারও এটি আনার জন্য দ্রুত চেষ্টা করবে। আর অন্যদিকে পেপাল কম্পানির লাভ হবে বাংলাদেশের মত একটি বড় বাজার পেয়ে।

About কমপিঊটার পাগল

একটি উত্তর দিন