ডাটা কিভাবে ষ্টোর হয় (ক্লাষ্টার নিয়ে আলোচনা) পর্ব – ১

ড্রাইভকে ফরম্যাট করে আমরা সেই নির্দিষ্ট ড্রাইভ/ভলিউম/পার্টিশন কে ডাটা রিড/রাইট করার ব্যবস্থা করি। কিভাবে ডাটাগুলো ষ্টোর হয়!
ডাটা গুলো ষ্টোর হয় Cluster wise. Cluster কি?
ডিস্কে ডাটা ষ্ট্রাকচার ম্যানেজ করার ঝামেলা কমানোর জন্য, ফাইল সিস্টেম সরাসরি সেক্টর কে ব্যবহার করেনা, এক বা একাধিক সেক্টর এর সমন্বয়ে একেকটি ইউনিট তৈরি করে ডাটা ষ্টোর করার জন্য, আর এই ইউনিট ই হল ক্লাষ্টার। NTFS এর ক্লাষ্টার সাইজ নির্ধারণের অপশনগুলো দেখুন নিচে…

মনে করেন, আপনার একটি ২ কিলোবাইটের ফাইল আছে, তাহলে সেই ডাটা ষ্টোরের জন্য দরকার ৪টি সেক্টরের। নির্দিষ্ট পার্টিশনে যদি প্রত্যেকটি ইউনিট (ক্লাষ্টার) ৪কিলোবাইটের(৪০৯৬ বাইট) হয়, তাহলে আপনার ২ কিলোবাইট ফাইলটি একটি ইউনিটে ষ্টোর হবে। পরবর্তী ফাইলটি এর পরের ক্লাষ্টার এ ষ্টোর হবে। এবার ধরুন, আপনার একটি ৫ কিলোবাইটের ফাইল ষ্টোর করবেন, তাহলে ফাইলটির ৪ কিলোবাইট ১টি ক্লাষ্টারএ, এবং ১ কিলোবাইট পরবর্তী ক্লাষ্টার এ অথবা পরবর্তী খালি জায়গায় ষ্টোর হবে, বাকী ৩ কিলোবাইট স্পেস আপনার অব্যবহৃত অবস্থায় থাকবে।
আবার ধরুন, আপনার প্রতিটি ইউনিট ১ কিলোবাইট করে, তাহলে আপনার ৫ কিলোবাইটের ফাইলটি ৫টি ইউনিটে/ক্লাষ্টার এ ষ্টোর হবে এবং কোন স্পেস নষ্ট করবেনা।
ক্লাষ্টার সাইজ যত বড় হবে তত ড্রাইভটিতে রিড/রাইট কম্পারেটিভলি বেশি স্পিডে হবে যাতে পারফরম্যন্স ভাল হবে যদিও স্পেস অব্যবহৃত থাকবে আবার ছোট সাইজের ক্লাষ্টার সাইজ পারফরম্যান্স কমিয়ে দেবে, যদিও এইক্ষেত্রে আপনার স্পেস অব্যবহৃত হওয়া থেকে বেচে যাবে।
আবার অব্যবহৃত এই স্পেসটাকে বলা হয় স্লেক স্পেস (Slack Space).

About শাহী

একটি উত্তর দিন