বিবাহিত, অবিবাহিত এবং হবু বরদের জন্য ১০১টা তরিকা :D:D:D

বিবাহিত, অবিবাহিত এবং হবু বরদের জন্য ১০১টা তরিকা :D:D:D


প্রাসংগিক বক্তব্যঃ
একজন ব্লগার ১নং সমস্যা উল্লেখপূর্বক একটা পোস্ট দিয়াছেন, সেই পোস্টের উত্তর দিতে গিয়ে এই পোস্ট টি দিতে অনুপ্রানিত হলাম। আপনাদের মতামত জানালে খুশি হবো। প্রশ্নও করতে পারেন, এই অধম উত্তর না দিতে পারলেও কোনো না কোনো পোড় খাওয়া, জ্ঞানী ব্লগার সাহায্য করতে পারবেন ইনশাল্লাহ।


[su]সমস্যা নং – ১: বউ/হবু বউ স্মার্ট হতে নিষেধ করেছে, কি করি বলুন তো?[/su]

উত্তরঃ ক্ষ্যাত স্টাইলে পোষাক পড়ুন, ক্ষ্যাত ভাব কথা বলুন। ২/১ বার এইভাবে শ্বশুরবাড়ী ভিজিট করুন, শ্বশুর বাড়ী যেয়ে বউয়ের ভাবীদের/পাশের বাড়ীর ভাবীদের সাথে গল্প করুন।

অথবা, বউয়ের বান্ধবীদের সাথে ক্যাবলা-মার্কা কথা বলুন। মাত্র ২ মিনিট। বেশী না, রেড আ্যলার্ট! !:#P

আপনি ২/১ দিনের মধ্যেই নতুন জামা-কাপড় পাবেন, পারফিউম,সানগ্লাস, ঘড়িসহকারে (অবশ্য আপনার পকেটের টাকা খরচ হবে অজান্তে)। আবার আগের অবস্থান ফিরে পাবেন খুবই দ্রুত।

অবিবাহিত আপুরা চোখ বন্ধ করে পড়ুন, নয়তো আবার গবেষনা করে নতুন কিছু আবিস্কার করতে হবে, এতে জাতীয় মেধার অপচয় ঘটবে! :-B

(ইহা একটি পরীক্ষিত ফর্মুলা ;))
—————-

সমস্যা নং – ২: বউ আমার আড্ডাবাজীতে বাগড়া দিয়াছে, সমাধান কী?

উত্তরঃ [su]এইসব ছোট বিষয়ে টাইট দিতে যাবেন না, হীতে বিপরীত হবে। এখন হয়তো টাইটে কাজ হবে, কিন্তু বাসায় আসলে পরে খানা পাবেন না, এফ.এম. রেডিও বাজবে সারাদিন। ব্যক্তিত্ব বজায় রেখে যা করার একটু টেকনিকে করুন। ;)[/su]

আর একটা কথা, খুব শীঘ্রই কাজে লাগবে। “আপনার আড্ডার উপর নিষেধাজ্ঞা জারী হবে”। কোনো কথা বলবেন না। ঘরের কোনে সারাদিন বসে থাকবেন, ঘন্টায় ঘন্টায় চা খেতে চাইবেন। একটু পরপর ডাকবেন। এইটা চাইবেন, ঐটা চাইবেন। টিভি চ্যানেলে খবর দেখবেন সারাদিন, আপনার হবু বউ ক্রিকেট পছন্দ করলে ফুটবল দেখবেন বা উল্টাটা। প্রতিবাদ আসবে। আপনি বলবেন, সব কথা শুনছিতো, এখন একটু খবর/খেলা দেখতে দাও। আর চায়ের দোকানে চাইলেই চা দেয় 8-|

ব্যস! ৭ দিনেই কোর্স কমপ্লিট :>

—————-

সমস্যা নং – ৩: (হবু) বউ একটু পরপর ফোন করে খোজ খবর নেয়, ফোনের মাত্রা কমানোর উপায়?

উত্তরঃ সহজ, অতি সহজ! ফোন করলেই বলবেন, আমি এই মাত্র ফোন করতে নিছিলাম। আহ দেখো, মনের কতো মিল!;) তুমি ফোন করতে চাইলেই আমার মনটা কেমন জানি আনচান আনচান করে ;)। তুমি আমারে আগে ফোন করতে দিলা না, খেলুম না X#(। মাঝে মাঝে টাইমিং এর আগে ফোন দেন। এইভাবে ১৫ দিনের মধ্য শান্তিময় সমাধান পেয়ে যাবেন, ভালবাসা-ভাবসাব বেড়ে যাবে আর ফোনের মাত্রা কমে যাবে :D।

—————-

সমস্যা নং – ৪: অবিবাহিত বন্ধুদেরকে আপনার (হবু/) বউ পছন্দ করেন না?

উত্তরঃ একটু খোজ করে দেখেন আপনার (হবু) বউয়ের কোন বান্ধবীর প্রতি আপনার (হবু) বউ একটু দুর্বল এবং উনার জন্য বিয়ের পাত্র খুজতেছেন। পেয়ে গেছেন? ব্যস সমস্যার সমাধান হয়ে গেছে! (ইয়া আলী !:#P )। বিয়ের ব্যবস্থা করতে হবে না বা করতে চাইলেও অসুবিধা নাই, করলে বরং সোয়াবের কাজ। আপনি আপনার (হবু) বউয়ের সাথে শলাপরামর্শ করুন , কিভাবে এই জুটিকে এক করা যায়। সংসদ অধিবেশনে বেশীবার আপনার বন্ধুবরের কথা উচ্চারন করবেন না, শুধু বান্ধবীর কথা আলোচনা করুন। আমাদের নেত্রীদের মতো আমাদের (হবু) ভাবীও দেখবেন বিপরীত অবস্থান গ্রহন করে আপনার বন্ধুর কথা বলছেন (অজান্তেই ;))। ব্যস, একদিন নিজের উদ্যোগেই উনি দাওয়াত করে বসবেন। হয়ে গেলো একবারে মাইগ্রেশন ভিসা 😛

—————-

সমস্যা নং – ৫: ঝগড়া করেছেন? ফোন ধরছে না?

উত্তরঃ ফোন বন্ধ করে রাখলে, এবং মিসকল এ্যালার্ট অন করা থাকলে ইচ্ছে মতো ফোন ডায়াল করুন। একটু রিল্যাক্স করুন, ঘুম দেন, আড্ডা দেন। বাইরে একটু ঘুরেও আসতে পারেন। আর আপনার বাসায় কাউকে ফোন করে আপনার অবস্থান জানতে চাইলে ছোট বোন/ভাই, ভাবীকে বলে রাখুন আপনি এখন বাইরে বেরুচ্ছেন, কাজ (!) আছে। একটা টেক্সট পাঠিয়ে দিতে পারেন – “যাও পাখি বলো তারে, সে যেনো ভুলে না মোরে ;)”। তারপর এখন আপনি ফোন টা বন্ধ করে দেন। স্যাটেলাইট দিয়ে আপনাকে খুজে বের করবে :P। অবশ্যই ভূমিধস ঠেকাতে একটা প্রিয় উপহার সাথে সাথে রাখতে ভুলবেন না যে B-)। এটা আপনাকে ধস ঠেকাতে সাহায্য করবে 😉

আজ এই পর্যন্তই! ধন্যবাদ 🙂

About মোহাইমেন