আসামের স্কুল পড়ুয়া বালিকা আবিস্কার করল অটো চার্জার যা শক্তি যোগাবে রেডিয়েশন থেকে

গত ১৩-১৪ অক্টোবর চেন্নাইতে অনুষ্ঠিত হলো ৩৯তম জহরলাল নেহেরু সাইন্স এক্সজিবিশন। এটা যদিও নতুন কিছু নয় কিন্তু একটা নতুন আবিষ্কার এখানে স্থান পেয়েছে যা ডেভেলপ করেছেন ভারতের পূর্বাঞ্চলের প্রদেশ আসামের একজন স্কুল পড়ুয়া বালিকা। আসমিতা নামের এই মেয়েটি আসামের খনাপাড়া কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়, গোহাটী-র ছাত্রী এবং বয়স ১৬ বছর এবং তারা বাবা একজন জিওলজিক্যাল সার্ভে অফিসার।

স্কুল পড়ুয়া এই বালিক ডেভেলপ করেছে একটি [link|http://gadget-web.blogspot.com/2009/10/assam-girl-asmita-develops-auto-charger.html|অটো চার্জার যা শক্তি আসবে রেডিয়েশন] থেকে। মানুষের দেহে দূর্বল মাইক্রোওয়েভ রেডিয়েশন বিষয়ে পড়ার সময়ে তার মাথায় এই আইডিয়াটা আসে। একই সময় সে আরো চিন্তা করে যদি এই শক্তিটাকে কাজে অন্য শক্তিতে রুপান্তর করে বৈদ্যুতিক শক্তিতে রূপান্তরিত করে কাজে লাগানো যায় তা হলে কেমন হয়?

তিনি একটি সার্কিটে মধ্যে tetra zinc oxide whisker ব্যবহার করেছেন যাতে রেডিয়েশনটা তাপে রূপান্তরিত হয়। এরপর Eneco chip এর মাধ্যেম তাপশক্তিকে বিদ্যুৎ শক্তিতে রুপান্তরিত করবে।

তার এ আবিষ্কার NCERT show in New Delhi in 2010 এর জন্য নির্বাচিত হয়েছে। তিনি আশা করছেন যে এটি মস্কো বিজ্ঞানশো তেও নির্বাচিত হবে। সেখানে নির্বাচত হলে একটি বানিজ্যিক ভাবে ব্যবহার করার সুযোগ পাবে।

About animesh chandra