হারানো লঞ্চ খোঁজতে উচ্চ প্রযুক্তির ব্যবহার শুরু

হারানো লঞ্চ খোঁজতে উচ্চ প্রযুক্তির ব্যবহার শুরু

বাংলাদেশেপ্রথমবারের মতো লঞ্চ ডুবির ঘটনায় উচ্চ প্রযুক্তির ব্যবহার শুরু হয়েছে।মাওয়ার অদূরে ডুবে যাওয়া পিনাক-৬ লঞ্চ খুঁজতে ‘সাব বটম প্রোফাইলার’ নামেরযন্ত্র দিয়ে অনুসন্ধান চালাচ্ছেন নৌবাহিনীর সদস্যরা। নদীর তলদেশে পলির নিচেকিছু চাপা পড়লে তা খুঁজে বের করে। ডুবে যাওয়া কোনো লঞ্চ খুঁজতে দেশেপ্রথমবারের মতো নামানো হলো ‘সাব বটম প্রোফাইলার’। এটি নদীর তলদেশের মাটিরস্তর পরীক্ষা-নিরীক্ষার কাজে ব্যবহার করা হয়।

হলুদ রঙের ‘সাব বটম প্রোফাইলার’ দেখতে অনেকটা মিনিএয়ারক্রাফট বা ড্রোনের মতো। এ যন্ত্র দিয়ে মাটির তলদেশে ঢুকে পড়া কোন বস্তুদ্রুত খুঁজে বের করা সম্ভব। ক্রেনের সাহায্যে এটি পানিতে ফেলা হলে সংযুক্তকম্পিউটারে সঙ্গে সঙ্গে সংকেত আসতে শুরু করে।অনুসন্ধানকারীকাণ্ডারি-২’র ওপরের তলায় দু’টি কম্পিউটারে গ্রাফ চিত্রের মাধ্যমে ‘সাব বটমপ্রোফাইলার’ থেকে তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করেন নৌবাহিনীর

কাণ্ডারি-২’র ক্যাপ্টেন নজরুল ইসলাম জানান, ‘সাব বটমপ্রোফাইলার’ কাঁদা মাটির মধ্যে ৭০ ফিট আর বালি মাটি হলে ১৮ ফিট নিচপর্যন্ত কোনো বস্তু খুঁজতে সক্ষম। ডুবে যাওয়া লঞ্চটি কাঠের তৈরি হওয়ায় কাঠপাতলা হয়ে ভাসতে ভাসতে অনেক দূর চলে গেছে বলে ধারণা তার।

About অঞ্জন দেব

একটি উত্তর দিন