সিটিও ফোরাম বাংলাদেশ এর সহযোগিতায় ‘ইনফোকম সিআইও কানেক্ট” শীর্ষক ৩ দিনের ওয়ার্কশপ’

সিটিও ফোরাম বাংলাদেশ এর সহযোগিতায় ‘ইনফোকম সিআইও কানেক্ট” শীর্ষক ৩ দিনের ওয়ার্কশপ’

আনন্দবাজার পত্রিকা গ্রুপ (এবিপি), ভারতের উদ্দ্যোগে ও সিটিও ফোরাম বাংলাদেশের সহযোগীতায় হোটেল রুপসী বাংলায় অনুষ্ঠিত হলো ৩ দিনের “ইনফোকম সিআইও কানেক্ট”। ২৩ থেকে ২৫ শে আগস্ট ২০১৪ ইং অনুষ্ঠিত উক্ত অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিটিও ফোরামের প্রেসিডেন্ট তপন কান্তি সরকার ও কে.কে. মহাপাত্র, এভিপি-আইটি, এবিপি গ্রুপ, ভারত।

জনাব তপন কান্তি সরকার তার স্বাগত বক্তব্যে ভারতের ইনফোকমকে বাংলাদেশে এই ধরনের একটি ইভেন্ট আয়োজন করার জন্য ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, এইবারের সিআইও কানেক্টের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল  ÓInteract, Engage, Enlighten (ইন্টারেক্ট, এনগেইজ ও এনলাইটেন্ট”)। এই ধরনের উদ্দ্যোগের ফলে দুই দেশের তথ্যপ্রযুক্তিতে কর্মরত সিটিওদের মধ্যে অভিজ্ঞতা বিনিময় হবে এবং এরফলে দুই দেশ একসাথে তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাবে। তিনি আরও বলেন, ইনফোকম ইন্ডিয়ার সাথে সিটিও ফোরাম এই প্রথম বাংলাদেশে ৩ দিনের এই আয়োজন করেছে এবং এই ধরনের উদ্দ্যোগ ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।

 

জনাব কে.কে. মহাপাত্র তার স্বাগত বক্তব্যে সিটিও ফোরামকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এবিপি গ্রুপ গত ১২ বছর যাবত ভারতের বৃহত্তম বিজনেস, টেকনোলজি ও লিডারশীপ ইভেন্ট ”ইনফোকম” আয়োজন করছে। এরই ধারাবাহিকতায় আমরা সিটিও ফোরমের সহযোগীতায় ভারতের ৪০ জন সিটিও/সিআইও কে ঢাকার সিটিও/সিআইওদের সাথে সেতুবন্ধ তৈরী করার জন্য এসেছি। আশাকরি আমরা প্রতিবছর এই ধরনের আয়োজন করব এবং সকলের সহযোগীতা পাব।

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব জনাব নজরুল ইসলাম খান অনুষ্ঠানের প্রথম দিন উপস্থিত থেকে আয়োজকদের উৎসাহিত করেন এবং তিনি আশা প্রকাশ করেন, এই ধরনের আয়োজনের ফলে দুই দেশেই তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার বাড়বে এবং এরফলে অর্থনৈতিক ভাবে দুইদেশই লাভবান হবে।

অনুষ্টানে ভারতের ৪০ জন সিটিও/সিআইও এবং বাংলাদেশের ৫০ জন সিটিও/সিআইও অংশগ্রহন করেন। গত ৩ দিনে ১৫টি টেকনিক্যাল সেমিনার অনুষ্টিত হয়। উক্ত সেমিনারগুলোতে দুই দেশের তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা তাদের অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন।

About অঞ্জন দেব

একটি উত্তর দিন