শ্রেষ্ঠ তথ্য বাতায়ন সম্মাননা প্রদান

শ্রেষ্ঠ তথ্য বাতায়ন সম্মাননা প্রদান

 

রবিবার দুপুরে রাজধানীর বিয়াম মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো ‘শ্রেষ্ঠ তথ্য বাতায়নসম্মাননা প্রদান’ অনুষ্ঠান। জাতীয় তথ্য বাতায়ন নির্মাণ, সমৃদ্ধকরণ ও নিয়মিতহালনাগাদে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ দেশের ইউনিয়ন, উপজেলা, জেলা ওবিভাগীয় পর্যায়ের মোট ৩৪টি বাতায়নকে সম্মাননা প্রদান করা হয়।

এটুআই প্রোগ্রামের উদ্যোগে দেশের সকল ইউনিয়ন, উপজেলা, জেলা, বিভাগ, অধিদপ্তর, মন্ত্রণালায় জন্য ২৫ হাজার ওয়েবসাইট নিয়ে তৈরি করা হয় ‘জাতীয় তথ্য বাতায়ন’ পোর্টাল। জাতীয় তথ্য বাতায়ন নির্মাণ, সমৃদ্ধকরন ও নিয়মিত হালনাগাদে বিশেষ অবদানের জন্য স্বীকৃতি প্রদানে অটুআই বিভিন্ন পর্যায়ে বাতায়ন মৃল্যায়ন করে। এই মৃল্যায়নের মাধ্যমে বিভাগীয় পর্যায়ে ৩টি, জেলা পর্যায়ে ১৫টি, উপজেলা পর্যায়ে ৯টি, ইউনিয়ন পর্যায়ে ৭টি বাতায়নকে সেরা নির্বাচিত করা হয়।

অনুষ্ঠানে সাইবার অপরাধীদের নিয়ন্ত্রণ করতে শিগগিরই আইন করা হচ্ছে বলেজানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। এ সময় তিনি মন্ত্রী দেশের যে কোনোঅঞ্চলে সাইবার অপরাধ হতে দেখলে বা জানতে পারলে ০১৭৬৬-৬৭৮৮৮৮ এই নম্বরেযোগাযোগ করার পরামর্শ দেন। সেই সাথে এই ধরনের অপরাধ দমনে সর্বসাধারণকেসচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

বক্তব্য দিতে গিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘তথ্য প্রযুক্তি একটি কাঁচের ঘরের মতো।এর মূল বিষয় হলো স্বচ্ছতা নিশ্চিত করা। কিন্তু বিশ্বব্যাপি সাইবারঅপরাধীরা এই কাঁচের ঘরকে ভেঙ্গে ফেলতে উঠে পড়ে লেগেছে। বাংলাদেশেও এ ধরনেরকার্যক্রম পরিলক্ষিত হচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘অন্যান্য দেশে সাইবার অপরাধ দমনে আইন থাকলেও বাংলাদেশেএখনও কোন আইন হয়নি। দেশের নারীদের ভার্চুয়াল হয়রানি থেকে বাচাঁনোসহঅন্যান্য খাতকে সাইবার আক্রমণ থেকে রক্ষা করতে সরকার দ্রুতই সাইবার আইনপ্রণয়ন করবে।

সাইবার অপরাধীদের পোকামাকড়ের সাথে তুলনা করেন তিনি। এ প্রসঙ্গে তিনিবলেন, ‘জানালা খোলা থাকলে সেখানে সূযের্র আলোর পাশাপাশি কিছু পোকামাকড়ওঢুকে পড়ে। আর এসব পোকামাকড়কে ঝেটিয়ে বিদায় করেতে প্রয়োজন হয় নিয়ন্ত্রণমূলকব্যবস্থা।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রণালয়ের তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেন, ‘আইসিটি বিভাগ ও প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই)সাইবার অপরাধ দমনে দেশের বিভিন্ন স্তরের আইটি কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণদিচ্ছে।

সাইবার নিয়ন্ত্রণে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীও সর্বদা সজাগ আছে বলে জানান ইনু।সাইবার সংক্রান্ত যে কোনো সমস্যার দ্রুত বিচার করতে উক্ত নম্বরটি সবসময়খোলা থাকবে বলেও জানান তিনি।

এই সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে তথ্যমন্ত্রী হাসানুলহক ইনু এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের মাননীয়প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক ছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে প্রধানমন্ত্রীরমুখ্য সচিব আবদুস সোবহান সিকদার, সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিপরিষদবিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) মো. নজরুল ইসলাম। এছাড়াঅনুষ্ঠানে একসেস টু ইনফরমেশন প্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক কবির বিনআনোয়ার, ইউএনডিপি বাংলাদেশের এ্যাসিস্ট্যান্ট কান্ট্রি ডিরেক্টর কেএএমমোর্শেদ, বিভিন্ন সরকারি সংস্থার উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, মাঠপ্রশাসনের কর্মকর্তা, পুরস্কারপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, উন্নয়নসহযোগী এবং গণমাধ্যমকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।

ইউএনডিপি ও ইউএসএইড-এর কারিগরি সহায়তায় পরিচালিত প্রধানমন্ত্রীরকার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম এর উদ্যোগে রাজধানীর বিয়ামমিলনায়তনে এ সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

About অঞ্জন দেব

একটি উত্তর দিন