মোবাইল গ্রাহক ১৩ কোটি ছাড়াল

মোবাইল গ্রাহক ১৩ কোটি ছাড়াল

ষোল কোটি জনসংখ্যার বাংলাদেশে মানুষের হাতে থাকা মোবাইল সিমের সংখ্যা ১৩ কোটি ছাড়িয়েছে; ইন্টারনেট সেবা নিচ্ছেন সোয়া ৫ কোটি গ্রাহক।
অনিবন্ধিত কয়েক কোটি সিম নিবন্ধনের আওতায় আনতে সরকারের উদ্যোগের মধ্যেই টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি বৃহস্পতিবার মোবাইল গ্রহক সংখ্যার হালনাগাদ এই তথ্য প্রকাশ করেছে।
বিটিআরসি বলছে, অগাস্ট মাসের শেষে বাংলাদেশে মোবাইল ফোনের গ্রাহক ছিল (বিক্রি হওয়া সিম সংখ্যার ভিত্তিতে) ১৩ কোটি ৮ লাখ ৪৩ হাজার।
গত বছর অগাস্টে দেশে মোবাইল ফোনের গ্রাহক ছিল ১১ কোটি ৭৫ লাখ ৭৭ হাজার। এই হিসেবে এক বছরে গ্রাহক বেড়েছে ১১ শতাংশের বেশি।
দেশের সবচেয়ে বড় অপারেটর গ্রামীণ ফোনের গ্রাহক সংখ্যা জুলাই থেকে ১১ লাখ বেড়ে অগাস্ট শেষে ৫ কোটি ৫০ লাখ হয়েছে।
এই সময়ে বাংলালিংকের গ্রাহক সংখ্যা ৪ লাখ বেড়ে ৩ কোটি ২৮ লাখ, রবি’র ৪ লাখ বেড়ে ২ কোটি ৮৩ লাখ, এয়ারটেলের ৪ লাখ বেড়ে ৯৪ লাখ হয়েছে।
তবে দেশের একমাত্র সিডিএমএ অপারেটর সিটিসেলের গ্রাহক ২৭ হাজার কমে ১১ লাখ ৩৪ হাজার এবং রাষ্ট্রায়াত্ত কোম্পানি টেলিটকের গ্রাহক প্রায় দেড় লাখ কমে ৪০ লাখ ৭৯ হাজারে দাঁড়িয়েছে।
বিটিআরসির পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত জুলাই শেষে দেশে মোবাইল ফোনের গ্রাহক ছিল ১২ কোটি ৮৭ লাখ।
অগাস্টে ইন্টারনেট গ্রাহকের সংখ্যা বেড়ে ৫ কোটি ২২ লাখ ১৯ হাজার হয়েছে।
এর মধ্যে মোবাইলে ইন্টারনেট গ্রাহকের সংখ্যা জুলাইযের তুলনায় প্রায় ১৫ লাখ বেড়ে ৫ কোটি ৭ লাখ ৪৩ হাজার হয়েছে। আইএসপি ও পিএসটিএন ইন্টারনেট গ্রাহক প্রায় ১৫ হাজার বেড়ে ১৩ লাখ ৮ হাজারে দাঁড়িয়েছে।
অন্যদিকে ওয়াইম্যাক্স ইন্টারনেটের গ্রাহক ৬ হাজার কমে হয়েছে এক লাখ ৬৮ হাজার।
বিটিআরসির হিসাবে, গত জুলাই মাসে দেশে ইন্টারনেট গ্রাহক ছিল পাঁচ কেটি সাত লাখ সাত হাজার।
গত বছর অগাস্টে দেশে ইন্টারনেটের গ্রাহক সংখ্যা ছিল ৪ কোটি ৮ লাখ ৩২ হাজার। এই হিসেবে এক বছরে ইন্টারনেট গ্রাহক বেড়েছে ২৭ শতাংশের বেশি।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন