মাইক্রোসফটের সোশ্যাল কি সফল হবে?

মাইক্রোসফটের সোশ্যাল কি সফল হবে?

মাইক্রোসফট এর নতুন নেটওয়ার্কিং সাইট সোশ্যাল(so.cl) শেষ পর্যন্ত তার বেটা ভার্সন বের করেছে। এটি মুলত ছাত্রছাত্রিদের পড়াশোনার ক্ষেত্রে একটি নতুন দিক উন্মোচন করবে বলে বলা হচ্ছে কেননা ব্রাউজিং, সার্চ, এবং আরো অনেক সুবধা রয়েছে এই সাইটটিতে। তবে ফেসবুক, গুগল প্লাস, টুইটার এর সাথে পাল্লা দিয়ে এটি কি পারবে নিজের জায়গা করে নিতে?

সোশ্যাল  নিয়ে সবকিছু আমি আমার লেখায় তুলে ধরার চেষ্টা করেছি , এ জন্য লেখাটি একটি ব্লগপোস্টের হিসাব অনুযায়ী বেশি বড় হয়ে যাওয়ায় লেখাটিকে কয়েকটি ভাগে ভাগ করে আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম , আপনাদের সুবিধার জন্য । so.cl নিয়ে আপনি যেটা জানতে চান সেটাই পড়ুন –

মাইক্রোসফটের সোশ্যালঃ ইতিকথা এবং এর নীরব যাত্রা

মাইক্রোসফটের সোশ্যাল কিভাবে এলো

মাইক্রোসফটের সোশ্যাল এর সাথে পরিচিত হয়ে নিন

মাইক্রোসফটের সোশ্যাল – গুগল প্লাস থেকে কতটা ভিন্ন

মাইক্রোসফটের সোশ্যাল কি সফল হবে?

সোশ্যাল কি সফল হবে?

এটি সত্যিই ভাবার বিষয়। কেননা মাইক্রোসফট বলছে এটি এখনো তাদের গবেষণাধীন রয়েছে। এটি এখন সকলের ব্যবহারের জন্য প্রস্তুত নয়। সুতরাং ব্যবহারকারীরা এটি ব্যবহারে এখন  অনেক প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হতে পারে। তাই যারা ফেসবুক, পিন্টারেস্ট, বিং এর ব্যবহারকারী আছেন তারা এই সাইটটি ব্যবহারের আগ্রহ না দেখানোই স্বাভাবিক যদি না সে ইন্টারনেটে চরম আসক্ত কেউ না হন। এছাড়াও আমরা যদি অন্যান্য সোশ্যাল  সাইট গুলোর সাথে তুলনা করি তবে দেখা যায় যে,   গুগল প্লাসের যাত্রার  প্রথমদিকে তারা খুব তাড়াতাড়ি তাদের ব্যবহারকারীর ভিত্তি তৈরি করে নিতে পারলেও এখন পর্যন্ত তা ধরে রাখতে ব্যর্থ হয়ছে। অপরদিকে ফেসবুক সোশ্যাল  মিডিয়ার এই বাজারের সিংহাসন দখল করে রাখলেও এখনও কঠিন যুদ্ধের মধ্য দিয়েই তা ধরে রেখেছে। সুতরাং মাইক্রোসফট এর জন্য তা আরও কঠিন  হয়ে পরবে কেননা সময় এবং নতুনত্ব দুইদিক দিয়েই তারা পিছিয়ে আছে।

যেসব ব্যাপারে সচেতন হওয়া প্রয়োজনঃ

ব্যবহারকারীদের  সিকিউরিটি এবং গোপনীয়তা রক্ষার ব্যপারে মাইক্রোসফট এর আরও সচেতন হওয়া প্রয়োজন। অন্যথায়  এটি শুধু প্রতিদন্দীদেরকে সুযোগ করে দেয়া হবে।

আরও একটি ব্যাপারে মাইক্রোসফটকে ভাবতে হবে তা হল মোবাইল ফিচার। এই মোবাইলের  যুগে শুধু মাত্র কম্পিউটার ভিত্তিক  কোন সাইট নিয়ে নেতৃত্ব দেয়ার কথা ভাবাই যায় না। যেহেতু, মাইক্রোসফট উইন্ডোজ ফোনের সাথে একটি ভাল অবস্থানে আছে তাই এটি তাদের জন্য কোন বড় সমস্যা হওয়ার কথা নয়।

মাইক্রোসফট সোশ্যালকে “খোলা অনুসন্ধানের উপর একটি পরীক্ষা” বলে অভিহিত করেছে। কেননা এখানে আপনি যাই সার্চ করেন না কেন তা অন্যান্য ব্যবহারকারীরা দেখতে পাবে যার ফলে একে সহজেই গুগল প্লাস এর  প্রতিদ্বন্দ্বী বলা যায়। সোশ্যালের আরেকটি ফিচার  আছে “ভিডিও পার্টি” নামে যা তারা নতুন বললেও মূলত এটি ইউটিউব এর প্লেলিস্ট এর মতই। সুতরাং এই প্রতিযোগিতায় একই রকম সেবা নিয়ে এসে মাইক্রোসফট কতটুকু সফল হবে তা সত্যি ভাবনার বিষয়।

About blogger - ব্লগার

একটি উত্তর দিন