মাইক্রোসফটের সোশ্যালঃ ইতিকথা এবং এর নীরব যাত্রা

মাইক্রোসফটের সোশ্যালঃ ইতিকথা এবং এর নীরব যাত্রা

মাইক্রোসফট এর নতুন নেটওয়ার্কিং সাইট সোশ্যাল(so.cl) শেষ পর্যন্ত তার বেটা ভার্সন বের করেছে। এটি মুলত ছাত্রছাত্রিদের পড়াশোনার ক্ষেত্রে একটি নতুন দিক উন্মোচন করবে বলে বলা হচ্ছে কেননা ব্রাউজিং, সার্চ, এবং আরো অনেক সুবধা রয়েছে এই সাইটটিতে। তবে ফেসবুক, গুগল প্লাস, টুইটার এর সাথে পাল্লা দিয়ে এটি কি পারবে নিজের জায়গা করে নিতে?

সোশ্যাল  নিয়ে সবকিছু আমি আমার লেখায় তুলে ধরার চেষ্টা করেছি , এ জন্য লেখাটি একটি ব্লগপোস্টের হিসাব অনুযায়ী বেশি বড় হয়ে যাওয়ায় লেখাটিকে কয়েকটি ভাগে ভাগ করে আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম , আপনাদের সুবিধার জন্য । so.cl নিয়ে আপনি যেটা জানতে চান সেটাই পড়ুন –

মাইক্রোসফটের সোশ্যালঃ ইতিকথা এবং এর নীরব যাত্রা

মাইক্রোসফটের সোশ্যাল কিভাবে এলো

মাইক্রোসফটের সোশ্যাল এর সাথে পরিচিত হয়ে নিন

মাইক্রোসফটের সোশ্যাল – গুগল প্লাস থেকে কতটা ভিন্ন

মাইক্রোসফটের সোশ্যাল কি সফল হবে?

সোশ্যাল বের হবার আগেই এর তথ্য ফাঁস হয়ে যাওয়াঃ 

গত জুলাইয়ে মাইক্রোসফটের বেয়ার-বনস ভার্সনের সাশ্যাল নেটওয়ার্ক ‘টিউলেলিপ’ নিয়ে ভুলবশত খবর প্রকাশ হয়ে পড়ে। সোশ্যালের নামকরনের পূর্বে এর নাম ঠিক করা হয় টিউলেলিপ । তখন খবরে প্রকাশ হয়ে পড়ে, এর সেবা টুইটার ও ফেসবুকের মাধ্যমে লগইন হয়। তবে এক সপ্তাহের মধ্যে মাইক্রোসফট দ্রুত সাইটটি সরিয়ে ফেলে এবং বিষয়টি সম্পর্কে করা পোষ্টগুলোও উঠিয়ে নেয়।
এরপর প্রায় তিন মাস বাদে এখন ভার্জের গাইয়রা পেয়েছে মাইক্রোসফটের এই প্রজেক্ট পর্যবেক্ষণের সুযোগ। তাদের ভাষ্যমতে টিউলেলিপ নামটি সোকল এর সমর্থন হারিয়েছে। তারা আরো জানিয়েছে যেটি সম্ভবত এর অস্থায়ী নাম হবে। তা সত্বেও এর উন্নতিকার্যক্রম চলছে সঠিকভাবে। ফেসবুকের সঙ্গে এ সাইটের ইন্টারফেসের রয়েছে খুবই সামঞ্জস্যতা। পাশাপাশি রয়েছে গুগল প্লাস ইলিমেন্টের সংমিশ্রণ। তারা জানান, ব্যবহারকারীরা অবশ্যই বন্ধুদের সঙ্গে সহজেই যোগাযোগ এবং স্ট্যাটাস আপডেট করতে পারবেন। আরো আছে সোশ্যাল সার্চ ফিচার যাহাতে ব্যবহারকারী অনুসন্ধান তথ্য সম্পর্কে বন্ধুদের অবগত করতে পারবে। ঠিক গুগল প্লাসের ওয়ান বাটনের মতো করে। এছাড়া এর পার্টি ফিচার যেটি গুগল প্লাসের হ্যাঙ্গআউটকে অনুসরণ করা হয়েছে। যেটিতে ব্যবহারকারী অবাক হবে তা ইউটিউব কিল্প। মুলত একই ধরনের ইউটিউব ক্লিপ ব্যবহারকারীরা তাদের অনলাইন বন্ধুদের সঙ্গে উপভোগ করতে পারবেন।
সোশ্যালের নীরব যাত্রাঃ
অনেকটা নীরবেই মাইক্রোসফট সোশ্যালের মুক্তি দেয় এ বছরের মে মাসে । শুধু শিক্ষার্থীদের জন্য বেটা ভারসনে রাখা হয়েছিল এই সাইটটি । এসও ডট সিএল বা সোশ্যাল নামের সাইটটিতে ফেইসবুক বা গুগল প্লাসসহ অন্য সামাজিক সাইটের মতো যোগাযোগ সুবিধার পাশাপাশি বিভিন্ন শিক্ষামূলক তথ্য যুক্ত করা হয়েছে। সাইটটিতে আরো রয়েছে শিক্ষার্থীদের পাঠ্যসূচিভিত্তিক বিভিন্ন বিষয়সহ ভিডিও চ্যাট সুবিধা।
মাইক্রোসফটের ফিউচার সোশ্যাল এঙ্পেরিয়েন্স (ফিউজ) ল্যাবে সাইটটি তৈরি করেছে। মাইক্রোসফট জানিয়েছে, অনলাইন তথ্য বিনিময়ের সুবিধাকে প্রাধান্য দিয়ে পরীক্ষামূলকভাবে চালু হওয়া সাইটটি শিক্ষার্থীদের জীবন গঠনের লক্ষ্য পূরণে সহায়ক হবে। শিক্ষার্থীরা তাঁদের ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট থেকেও সাইটটিতে প্রবেশ করতে পারবে।
প্রাথমিকভাবে ইউনিভার্সিটি অব ওয়াশিংটন, সাইরাকাস ইউনিভার্সিটি, নিউইয়র্ক ইউনিভার্সিটি এবং কিছু স্কুলের শিক্ষার্থীরা সামাজিক যোগাযোগ সাইটটি ব্যবহারের সুযোগ পেয়েছিল। অবশেষে এই বছরের মে মাসে সবার জন্য উন্মুক্ত করা দেয়া হয় সাইটটি।

About blogger - ব্লগার