মন্ত্রিসভায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি নীতিমালা অনুমোদন

মন্ত্রিসভায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি নীতিমালা অনুমোদন

Cabinate_meetingতথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) খাতের উন্নয়নে নতুন রূপরেখা দিয়ে ‘জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি নীতিমালা, ২০১৫’ অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সভাকক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা প্রেস ব্রিফিংয়ে এ অনুমোদনের কথা জানান। তিনি বলেন, ২০০৯ সালের ‘জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি নীতিমালা’ হালনাগাদ করে নতুন নীতিমালা প্রণয়ন করা হয়েছে।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, নতুন নীতিমালায় তথ্য ও যোগাযোগ খাতের পরিচালনার দিক-নির্দেশনা রয়েছে। নীতিমালাটি পেশাদারিত্বের সঙ্গে প্রণয়ন করা হয়েছে। এতে সুনির্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা করে কোন মন্ত্রণালয় কি কাজ, কোন সময়ে করবে তা বলা হয়েছে।
মোশাররাফ হোসাইন বলেন, ‘কাজগুলোতে স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘ মেয়াদী- এই তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে। যে কাজগুলো ২০১৬ সালের মধ্যে শেষ করা হবে সেগুলো স্বল্প মেয়াদী, মধ্য মেয়াদী কাজগুলো ২০১৮ সালের মধ্যে শেষ করা হবে। ২০২১ সালের মধ্যে সম্পন্ন করা হবে দীর্ঘ মেয়াদী কাজগুলো সম্পন্ন করা হবে। নীতিমালায় ১০টি উদ্দেশ্য, ৫৬টি কৌশলগত বিষয়বস্তু ও ৩০৬টি করণীয় বিষয় উল্লেখ করা হয়েছে। প্রত্যেকটি কোন মেয়াদে কার মাধ্যমে বাস্তাবায়িত হবে তা উল্লেখ করা হয়েছে।
সরকারে যারা কাজ করেন তাদের জন্য এটি একটি অনুসরণীয় নির্দেশিকা জানিয়ে সচিব বলেন, পাশাপাশি নীতিমালায় আইসিটি বিকাশে বেসরকারি খাত, এনজিও ও সিভিল সোসাইটির ভূমিকা হাইলাইট (তুলে ধরা) করা হয়েছে। আর এসব কার্যক্রমের মূল লক্ষ্য হচ্ছে নাগরিকদের সেবার মান উন্নয়ন।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, নীতিমালায় একটি রূপকল্প রয়েছে। এতে রয়েছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সম্প্রসারণ, বহুমুখী ব্যবহারের মাধ্যমে এটি স্বচ্ছ, দায়বদ্ধ ও জবাবদিহিতামূলক সরকার প্রতিষ্ঠা করা, দক্ষ মানব সম্পন্ন উন্নয়ন নিশ্চিত করা, সামাজিক ন্যায়পরায়ণতা বৃদ্ধি করা, সরকারি-বেসরকারি খাতে অংশীদারিত্বে সুলভে জনসেবা নিশ্চিত করা। ২০২১ সালের মধ্যে দেশেকে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশের সারিতে উন্নীতকরণের জাতীয় লক্ষ্য অর্জনে সহায়ক ভূমিকা পালন করা।’
সরকারের ‘ভিশন ২০২১’ ও ‘ভিশন ২০৪১’ রূপায়নে নানা কলাকৌশল আছে। এরমধ্যে অন্যতম প্রধান কৌশল হলো আইসিটির ব্যবহার। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যাপকতর ও গভীরতর ব্যবহার আমাদের উন্নতির প্রধান অবলম্বন বলেও জানান তিনি।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন