ভুতুড়ে গর্ত পৃথিবীর শেষ প্রান্তে!

ভুতুড়ে গর্ত পৃথিবীর শেষ প্রান্তে!

বিরাট আকৃতির একটি ভূতুড়ে গিরিখাদের দেখা যাচ্ছে রাশিয়ার উত্তরাঞ্চলের দিকে। বিজ্ঞানীরা এখন সেখানে ভিড় জমাচ্ছেন ২৫০ ফিট চওড়া এই গিরিখাদের সকল তথ্য সংগ্রহের জন্য । ‘পৃথিবীর শেষ প্রান্ত’ বলা হয়ে থাকে রাশিয়ার ইয়ামাল নামক অঞ্চলটিকে। গ্যাস লাইন আর বৈশ্বিক উষ্ণতা- এই দুই কারনে এই গর্তের উদ্ভাবণ হতে পারে বলে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন।

ভুতুড়ে গর্ত পৃথিবীর শেষ প্রান্তে, ভূতুড়ে, ভূতুড়ে গিরিখাদ, রাশিয়া, বিজ্ঞানী, বিস্ফোরণ, উদ্ভাবন

এই ঘটনা ভু-গর্ভে থাকা লবণ, পানি এবং প্রাকৃতিক গ্যাস মিশ্রণের পর বিস্ফোরণের ফলে হয়ে থাকতে পারে বলে মনে করেন সাইবেরিয়ার সাব-আর্কটিক সায়েন্টিফিক রিসার্চ সেন্টারের Anna Kurchatova। তিনি ভিতি প্রকাশ করে বলেন, সাইবেরিয়াতে থাকা প্রচুর পরিমানে বরফ গলে যাচ্ছে বৈশ্বিক উষ্ণতার কারনে এবং এটি রিজার্ভ করা প্রাকৃতিক গ্যাসের উপর প্রচুর পরিমাণ প্রভাব ফেলছে। স্থানীয় প্রশাসন দুজন বিজ্ঞানীকে সঙ্গে নিয়ে এলাকা অবজার্ভ করে দেখছে বিষয়টি ভালোভাবে পরিস্কার হতে। দুজন বিজ্ঞানিদের মধ্যে একজন হলো Cryosphere Institute of the Russian Academy of Sciences থেকে আর অপরজন হচ্ছেন Centre for the Study of the Arctic থেকে।

ভুতুড়ে গর্ত পৃথিবীর শেষ প্রান্তে, ভূতুড়ে, ভূতুড়ে গিরিখাদ, রাশিয়া, বিজ্ঞানী, বিস্ফোরণ, উদ্ভাবন ভুতুড়ে গর্ত পৃথিবীর শেষ প্রান্তে, ভূতুড়ে, ভূতুড়ে গিরিখাদ, রাশিয়া, বিজ্ঞানী, বিস্ফোরণ, উদ্ভাবন

About Mahdi Hasan

Mahdi Hasan

একটি উত্তর দিন