ব্র্যানোর আউটসোর্সিং বিষয়ক কাজ বিল্যান্সারে

ব্র্যানোর আউটসোর্সিং বিষয়ক কাজ বিল্যান্সারে

Belance‌এখন থেকে ব্রানো ডট কমের (www.branooo.com) আউটসোর্সিং বিষয়ক কাজ পাওয়া যাবে বিল্যান্স‍ারে (www.belancer.com)। দেশের ই-কমার্স এবং আউটসোর্সিং মার্কেটপ্লেসের প্রতিষ্ঠান দুটির মধ্যে এ বিষয়ে চুক্তি সাক্ষরিত হয়েছে।
সম্প্রতি যাত্রা করা বিল্যান্সার ডট কম ইতিমধ্যে আউটসোর্সারদের কাছে পরিচিত এক নাম।
কারিগরিসহ নানাদিক চূড়ান্ত পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর বিল্যান্স বাণিজ্যিকভাবে শুরু করা হয়েছে। ফলে এতোদিন যারা অন্যের মার্কেটপ্লেসে নিজেদের কাজ তুলেছেন তারা গর্বভরেই স্বদেশি এই মার্কেটপ্লেসে নতুন দিগন্তের দেখা পেতে পারেন। গুণে-মানে ধীরে ধীরে এ মার্কেটপ্লেস ওডেক্স-ইল্যান্স, ফ্রিল্যান্সার, ভিওয়ার্কার, ইনভাটো স্টুডিও, পিপলপারআওয়ার, মিডিয়াবিস্ট্রো, গুরু, পর্য, টপকোডারের মতো আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডগুলোর যোগ্য হয়ে উঠবে বলেই আশাবাদী সংশ্লিষ্টরা।
সূত্র মতে, বিল্যান্সারে থাকছে ঝামেলাহীন পেমেন্ট ব্যবস্থাসহ চলমান কোম্পানিগুলোর প্রায় সব সুবিধাই।
আর ব্র্যানো ডট কম এর গ্রাহক চাহিদার কথা মাথায় রেখে গুণগত মানসম্পন্ন বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের পণ্য বাজারজাত করে আসছে। সরাসরি দুবাই থেকে তারা নামীদামি জনপ্রিয় সব ব্র্যান্ডের পণ্য নিয়ে আসে। সেইসাথে নিয়মিত বিরতিতে যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন সব প্রোডাক্ট ক্যাটাগরি। যে কারণে ই-কমার্সে ব্রানো অনেকটা এগিয়ে গেছে।
তাই দেশিয় মার্কেটপ্লেসটি খুব সহজেই যাতে এগিয়ে যায় সেই লক্ষ্যে ব্র্যানোর সাথে যুক্ত হয়েছে।
ব্র্যানোর প্রধান রাজীব রায় জানান, “এটি বিশাল এক উদ্যোগ। এ ধরণের মার্কেটপ্লেস এই মুহূর্তে সময়ের চাহিদা। এর অগ্রগিতর সাথে দেশের আইটি খাতের অগ্রগতি হবে এবং ঘুচবে বেকারত্ত। এছাড়া বিদেশি প্লাটফর্মগুলোর উপর আর নির্ভর করতে হবে না।
তিনি বলেন দেশেই যত কাজ আছে, তা দিয়েই এগিয়ে যাওয়া সম্ভব বিল্যান্সের। সেইসাথে ক্রমান্বয়ে বিদেশি প্রতিষ্ঠানগুলোও এগিয়ে আসবে। তবে এজন্য এখন প্রয়োজন দেশিয় প্রতিষ্ঠানগুলোকে এগিয়ে আসা।
ব্র্যানোর মতো দেশের অন্যান্য প্রতিষ্ঠানগুলোও এগিয়ে আসলে বিল্যান্স সফলতার মুখ দেখবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন রাজীব রায়।
বিল্যান্সারের প্রধান শফিউল আলম জানান, “দীর্ঘ সময় ধরে নানা প্রতিকূলতার মধ্যে একটু একটু করে কাজ করা হয়েছে। কিন্তু ফ্রিল্যান্সার মার্কেটপ্লেসের মতো এতো বড় একটি প্লাটফর্মের যে ব্যাপক কর্মযজ্ঞ তা শেষ করে এগিয়ে যেতে হলে আমাদের অবশ্যই দেশিয় কোম্পানির সহযোগিতা আবশ্যক।
অন্যান্য প্রতিষ্ঠানও তাদের কাজগুলো বিল্যান্সের মাধ্যমে করাবে আর এর ফলে দেশের বেকারত্বও ঘুচবে এমন প্রত্যাশা বিল্যান্স প্রধানের।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন