বেড়ে চলছে জাল মেমরি কার্ডের প্রতারণা

বেড়ে চলছে জাল মেমরি কার্ডের প্রতারণা

ঈদকে সামনে রেখে দেশের আইটি বাজারে ছড়িয়ে পড়ছে জাল মেমরি কার্ড। একটি বিখ্যাত ব্র্যান্ডের নাম ব্যবহার করে বিক্রি হওয়া এসব মেমরি কার্ড কিনে  প্রতারণার শিকার হচ্ছেন ক্রেতারা। নিম্মমানের এসব জাল মেমরি কার্ড নিয়ে ক্রেতাদের অভিযোগের শেষ নেই।

রাজধানীর মাল্টিপ্লান মার্কেট থেকে এমনই একটি ‘স্যামসাং মাইক্রো এসডিএইচসি কার্ড’ কিনে প্রতারণার শিকার হওয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান অনুষদের ছাত্র মুতাসিম বিল্লাহ জানান, কার্ডের গায়ে ১৬জিবি লেখা থাকলেও বাসায় এসে তা লাগিয়ে দেখা গেছে এটির ধারণ ক্ষমতা ১০জিবি।

একইভাবে ধানমন্ডিতে বসবাসরত গৃহিনী লুৎফুন্নাহার জানান, একই রকম জাল মেমরি কার্ড নিয়ে প্রতারণার শিকার হয়েছেন তিনি। তার মেমরি কার্ড ক্লাস-১০ এর বলা হলেও এর গতি ক্লাস-৪ এর চেয়েও কম। এসব মেমরি কার্ডে কোনো ওয়ারেন্টি না থাকায় এটি বদল করে নিতে না পেরে নতুন করে আবারও মেমরি কার্ড কিনতে হয়েছে তাকে।

এ বিষয়ে স্যামসাং এর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে স্যামসাং ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বলেন, বাংলাদেশে স্যামসাং পরিবেশিত কোনো মেমরি কার্ড নেই। কারা এবং কিভাবে এটি বিক্রি হচ্ছে তা জানি না। কিছু অসাধু ব্যবসায়ী স্যামসাং এর নামে এই অপকর্ম করছে। বিষয়টি নিয়ে পদক্ষেপ নেয়া হবে।

স্যামসাং এর জাল মেমরি কার্ডের দৌরাত্মে নাজেহাল দেশের সাধারন ক্রেতারা। এ বিষয়ে কম্পিউটার সোর্স এর পরিচালক আসিফ মাহমুদ বলেন, আমাদের ডিলাররাও অভিযোগ করেছেন। আমাদের আউটলেটগুলোতে এসে অনেক ক্রেতাই অভিযোগ করেছেন। তাদের প্রতি অনুরোধ করবো কেনার আগে ভালো পণ্যটি যাচাই করে দেখতে। এ ক্ষেত্রে অপ্রচলিত বা নমসর্বস্ব কোনো পণ্য ব্যবহার না করতে। কেননা দেখা গেছে জাল মেমরি কার্ড মূল্যবান স্মার্টফোনের মাদার বোর্ডের ক্ষতি করে।

About কমজগৎ ডেস্ক

একটি উত্তর দিন