বেসিস সফটএক্সপো ২০১২: বেসিস অ্যাওয়ার্ড নাইট অনুষ্ঠিত এবং ২৬ ফেব্রুয়ারী শেষ হচ্ছে সফটএক্সপো মেলা

বেসিস সফটএক্সপো ২০১২: বেসিস অ্যাওয়ার্ড নাইট অনুষ্ঠিত এবং ২৬ ফেব্রুয়ারী শেষ হচ্ছে সফটএক্সপো মেলা


গত ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হওয়া তথ্যপ্রযুক্তির মিলনমেলা ‘বেসিস সফটএক্সপো ২০১২’ আজ শেষ হচ্ছে। আজ শেষ দিনে সমাপনী অনুষ্ঠানে সেরা স্টলকে পুরস্কার প্রদান করা হবে।

গতকাল অনুষ্ঠিত অ্যাওয়ার্ড নাইটে আজীবন সম্মাননা পুরস্কার, ডিজিটাল চ্যাম্পিয়ানশীপ অ্যাওয়ার্ড, স্পেশাল কন্ট্রিবিউশন অ্যাওয়ার্ড, আইটি ইনোভেশন সার্চ প্রোগ্রামের (আবিস্কারের খোঁজে) অ্যাওয়ার্ড, ফ্রিল্যান্সার অ্যাওয়ার্ড এবং কোড ওয়ারিয়রস চ্যালেঞ্জ শীর্ষক প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার পুরস্কার।

‘আবিস্কারের খোঁজে’ প্রতিযোগিতার প্রথম হয়েছে ‘ভয়েস গাইডেড ইউটিলিটি রোবট’, দ্বিতীয় হয়েছে ‘এপোড্রেবল মার্কার লেস মোশন ক্যাপচার সলিউশন’ এবং তৃতীয় হয়েছে ডক্টর সফটওয়্যার। বিজয়ী ফ্রিল্যান্সাররা হচ্ছে শিক্ষার্থী ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হয়েছেন খালেদ বিন এ কাদের, মোঃ সাজ্জাদ হোসাইন অলি, মারজান আহমেদ এবং আহমেদ সাজিদ। ব্যক্তিগত ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হয়েছেন মুহাম্মদ শোয়েব, মোঃ মোহা্ইমেনুজ্জামান, সাঈদ ইসলাম, খালেদ মোঃ শাহরিয়ায়, আনোয়ারুল ইসলাম, মোঃ এনামুল হক ও আশিকুর রহমান এবং কোম্পানী ক্যাটাগরিতে দ্যা আরএস সফটওয়্যার, এনকোডল্যাবস ইনস, তানভির আইটি সলিউশন্স এবং জোবাদনেট। ‘কোড ওয়ারিয়রস চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় পিএইচপি, ডট নেট, জাভা এবং অ্যান্ড্রয়েড এই ৪টি ট্র্যাকের প্রতিটিতে প্রফেশনাল এবং শিক্ষার্থী ক্যাটাগরিতে একজন করে পুরস্কৃত করা হয়।

তরুণ প্রজন্মকে দেশের আইসিটি ইন্ডাষ্ট্রিতে চাকরির সুযোগ করে দেয়ার লক্ষ্যে গতকাল মেলায় অনুষ্ঠিত হয়েছে ‘আইটি জব ফেয়ার’। এক হাজারের উপরে আগ্রহী চাকুরী প্রার্থীদের মধ্য থেকে বাছাই করে ২৯৬ জনের সরাসরি সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠিত হয়। চাকুরীদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে জিনুইটি সিস্টেম লিমিটেড, ডিএনএস সফটওয়্যার লিমিটেড, রাইজ আপ ল্যাবস লিমিটেড, রাইট ব্রেইন সলিউশন লিমিটেড, জিপিআইটি লিমিটেড, ডেভনেট লিমিটেড, ইপসিলন কন্সাল্টিং এন্ড ডেভেলপমেন্ট সার্ভিসেস, ব্রেইন স্টেশন ২৩, সিগনাস ইনোভেশন লিমিটেড, এমএফ এশিয়া লিমিটেড, আইবল নেটওয়ার্কস, প্রাইম টেক এবং সার্ভিস ইঞ্জিন লিমিটেড।

গতকাল মেলায় অনুষ্ঠিত হয়েছে ‘ব্যাংকিং এন্ড ফিন্যান্সিয়াল সেক্টর’ শীর্ষক বিজনেস মিট এন্ড ম্যাচ সেশন। ব্যাংকার্স সিটিও ফোরাম ও বেসিসের যৌথ আয়োজনে এ সেশনে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক নির্বাহী পরিচালক মোঃ নাজমুল হক। এ সেশনে বাংলাদেশের ব্যাংকিং খাতে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। বিভিন্ন ব্যাংকের চীফ টেকনিক্যাল অফিসার এবং তথ্যপ্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ আলোচনায় অংশগ্রহন করেন। সেশনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বেসিস সভাপতি মাহবুব জামান, ন্যাশনাল ক্রেডিট এন্ড কমার্স ব্যাংকের সিটিও এবং ব্যাংকার্স সিটিও ফোরামের সভাপতি তপন কান্তি সরকার, ব্র্যাক ব্যাংকের সিটিও এবং ব্যাংকার্স সিটিও ফোরামের সহ-সভাপতি নাভেদ ইকবাল এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিজিএম এবং ব্যাংকার্স সিটিও ফোরামের সাধারন সম্পাদক দেব দুলাল রায়।

এর আগে গত ২৪ ফেব্রুয়ারী বিকেলে অনুষ্ঠিত হয়েছে দেশের নাগরিকদের সেবা মান নিশ্চিত করতে মোবাইলফোন অ্যাপ্লিকেশন ও স্মার্ট প্রযুক্তির উন্নয়ন বিষয়ক সেমিনার। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ব্র্যাক’র সামাজিক সেবা উদ্ভাবন ও যোগাযোগ পরিচালক আসিফ সালেহ। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর এএমএম শফিউল্লাহ।

ছুটির দিন হওয়ায় গতকালও মেলায় দর্শক সমাগমও ছিলো বেশ ভালো। গতকাল সকাল থেকে আগ্রহী দর্শকদের ভীড় দেখা গেছে মেলায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ’র ছাত্র ফারুক হোসেন বলেন, এ মেলাকে কেন্দ্র করে আইটি ইনোভেশন সার্চ প্রোগ্রাম, প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা এবং সেরা ফ্রিল্যান্সারকে বের করার চেষ্টা করা হয়েছে। এ বিষয়গুলো নতুন প্রজন্মকে মেলার বিষয়ে আরো বেশি আগ্রহী করে তুলবে।

উল্লেখ্য, ‘এমপাওয়ারিং নেক্সট জেনারেশন’ শ্লোগানে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত পাঁচদিনের এ প্রদর্শনীতে দেশী বিদেশি প্রায় ১৪০টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে। প্রদর্শনীতে দেশীয় প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বিদেশি বিনিয়োগকারীরা দেশের তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে দ্বিপাক্ষীক বাণিজ্যিক স্বার্থ ও সুবিধা যাচাই করার উন্মুক্ত সুযোগ পাচ্ছেন। এর ফলে দেশের সফটওয়্যার খাতে বিদেশি বিনিয়োগের সম্ভাবনাও তৈরি হবে। প্রদর্শনী বিজনেস সফটওয়্যার, আউটসোর্সিং, মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন, ক্লাউড এন্ড কমিউনিকেশন, আইটি এনাবেল্ড সার্ভিস, আইটি এডুকেশন ও ই-কমার্স জোন নামে ৭টি ভিন্ন ভিন্ন জোনে বিভক্ত করা হয়েছে। এছাড়াও ওয়ান-টু-ওয়ান বিজনেস মিটিংয়ের জন্য থাকছে বিজনেস লাউঞ্জ।

এবারের মেলায় স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এবং কর্পোরেট ভিজিটরদের জন্য থাকছে বিনামূল্যে মেলায় প্রবেশের সুবিধা। সফটএক্সপোর প্লাটিনাম  স্পন্সর জিপি আইটি, গোল্ড স্পন্সর ডেল, কো-স্পন্সর হিসেবে রয়েছে ব্রাক ব্যাংক ও আইসিটি বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিল, ইন্টারনেট পার্টনার কিউবি, ক্লাউড ও কমিউনিকেশন জোন স্পন্সর হুয়াওয়ে এবং আউটসোর্সিং জোন স্পন্সর সিমসলিউশন, ম্যাচমেকিং এর সহায়তায় রয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড সেন্টার এবং সিবিআই নেদারল্যান্ডস।

উল্লেখ্য, ‘এমপাওয়ারিং নেক্সট জেনারেশন’ শ্লোগানে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত পাঁচদিনের এ প্রদর্শনীর এবারের আয়োজন আকার, আয়তন ও বৈচিত্র সবদিক থেকেই আগের যে কোনো আয়োজনের চেয়ে ব্যাপক হয়েছে। এবারের সফটএক্সপোতে দেশী বিদেশি প্রায় ১৪০টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে। প্রদর্শনীতে দেশীয় প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বিদেশি বিনিয়োগকারীরা দেশের তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে দ্বিপাক্ষীক বাণিজ্যিক স্বার্থ ও সুবিধা যাচাই করার উন্মুক্ত সুযোগ পাবেন। এর ফলে দেশের সফটওয়্যার খাতে বিদেশি বিনিয়োগের সম্ভাবনাও তৈরি হবে। প্রদর্শনী বিজনেস সফটওয়্যার, আউটসোর্সিং, মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন, ক্লাউড এন্ড কমিউনিকেশন, আইটি এনাবেল্ড সার্ভিস, আইটি এডুকেশন ও ই-কমার্স জোন নামে ৭টি ভিন্ন ভিন্ন জোনে বিভক্ত করা হয়েছে। এছাড়াও ওয়ান-টু-ওয়ান বিজনেস মিটিংয়ের জন্য থাকছে বিজনেস লাউঞ্জ।

আগামীকাল ২৬ ফেব্রুয়ারী মেলার শেষ দিনে সকালে টেক সেশনে অনুষ্ঠিত হবে পিএইচপি এক্সপার্টস ডেভকন ২০১২, ওপেন সেশনে ইনফরমেটিক্স টেকনোলজিস’র আয়োজনে ‘ই-স্কুল এ ফ্রি স্কুল ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম এন্ড ই-লার্নিং প্ল্যাটফর্ম ফর ইউ’, বি-ক্যাশের আয়োজনে ‘ফিউচার অফ মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস: অপরচুনেটিস এন্ড চ্যালেঞ্জস’, ডাটাবিজ সফটওয়্যার লিমিটেডের আয়োজনে ‘ডিসিশন মেকিং থ্রো বিজনেস ইন্টেলিজেন্স’, ব্র্যাক ব্যাংকের আয়োজনে ‘ব্র্যাক ব্যাংক অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে এন্ড অনলাইন বিজনেস’ শীর্ষক ওপেন সেশন।

এছাড়া আগামীকালের সেমিনারগুলোর মধ্যে রয়েছে বেসিসের আয়োজনে ‘অপরচুনেটি ইন ই-গভর্নেন্স ম্যানেজড সার্ভিস’, বেসিস ও এটুআইয়ের যৌথ আয়োজনে ‘ন্যাশনাল পোর্টাল প্রেমওয়ার্ক-ফিউচার প্রসপ্ক্টেস’, জিপিআইটির আয়োজনে ‘ওভারকামিং চ্যালেঞ্জেস থ্রো স্ট্যান্ডারাইজেশন আইএসও ২০০০০ এন্ড আইএসও ২৭০০১’।

তরুণ প্রজন্মের জন্য সফটএক্সপো ২০১২:

তরুণ প্রজন্মের সফটএক্সপো ২০১২ তে প্রদর্শনীর পাশাপাশি এবার থাকছে বিশেষ আয়োজন। তরুণ প্রজন্মের উদ্ভাবনী শক্তির উন্মেষ ঘটাতে তাদের আরো উৎসাহিত করতে রয়েছে ”আবিস্কারের খোঁজে”। প্রায় ২০০ নতুন উদ্ভাবক নিয়ে শুরু হওয়া এই প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বটি হবে সফটএক্সপোতে। বিজয়ীদের জন্য রয়েছে আকর্ষনীয় পুরস্কার। এর মধ্যে প্রথম পুরস্কার ১ (এক) লক্ষ টাকা।

প্রোগামারদের জন্য রয়েছে প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা ‘কোড ওয়ারিয়রস চ্যালেঞ্জ’। পিএইচপি, ডট নেট, জাভা এবং এন্ড্রয়েড। এই ৪টি ট্র্যাকে প্রোগ্রামিং এর যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছে দেশ সেরা সহস্রাধিক প্রোগ্রামার।

তরুণ প্রজন্মকে দেশের আইসিটি ইন্ডাষ্ট্রিতে চাকরির সুযোগ করে দেয়ার লক্ষ্যে রয়েছে আইটি জব ফেয়ার। বিভিন্ন আইসিটি কোম্পানিগুলো সফটএক্সপো চলাকালীন সময়ে খুঁজে নেবে তাদের পছন্দসই প্রার্থী। মেলার প্রথম ২ দিন মেলা প্রাঙ্গণে আগ্রহীদের কাছে থেকে সিভি সংগ্রহ করা হবে। ইন্টারভিউ নেয়া হবে মেলার ৪র্থ দিন। ফ্রিল্যান্সিং-এর প্রতি তরুণ প্রজন্মকে আরো উৎসাহিত করতে বিগত বছর থেকে বেসিস প্রচলন করেছে ‘বেসিস ফ্রিল্যান্সার অব দ্যা ইয়ার’ শীর্ষক অ্যাওয়ার্ড প্রদান কার্যক্রম। সহসা্রধিক প্রতিযোগীর মধ্য থেকে ব্যক্তিগত, দলীয় এবং প্রতিষ্ঠান ভিত্তিক ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের মধ্যে প্রদান করা হবে এ পুরস্কার।

যা থাকছে এবারের মেলায়:

স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়নের জন্য রয়েছে আন্তর্জাতিক ম্যাচমেকিং। দেশীয় প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি এ ম্যাচমেকিং-এ আইটিসি ও সিবিআই নেদারল্যান্ডসের মাধ্যমে অংশ নেবে ডেনমার্ক, নেদারল্যান্ডস ও যুক্তরাজ্যের ১০টির ও বেশি আইটি কোম্পানির ২২ জনের মত প্রতিনিধি।

সেমিনার

সফটএক্সপো চলাকালীন আয়োজন করা হবে ১২টিরও বেশি সেমিনার ও রাউন্ডটেবিল আলোচনার মধ্যে রয়েছে ই-পেমেন্ট, বিল্ডিং ইফেক্টিভ ইন্ডাস্ট্রি লিংকেজ, রোল অব স্যাটেলাইট ইমেজ, আউটসোর্সিং ইন দ্যা ক্লাউড এন্ড ইকো সিস্টেম, নারীর ক্ষমতায়ন ও তথ্য প্রযুক্তিতে নারী, প্রাইভেট ইক্যুইটি ফান্ডিং ইত্যাদি বিষয়ে মিডিয়া বাজার ও উইন্ডি টাউনে আয়োজন করা হয়েছে সেমিনার।

টেকনিক্যাল সেশন

এবারের সফটএক্সপোর অন্যতম আকর্ষণ টেকনিক্যাল সেশন। ভিন্ন ভিন্ন বিষয়ের ওপর থাকছে ১২টি টেকনিক্যাল সেশন। সেশনগুলো পরিচালনা করবেন খ্যাতিমান দেশি বিদেশি তথ্য প্রযুক্তিবিদরা। রয়েছে বায়ো-ইনফরমেটিক্স, ক্লাউড ও ফেসবুকের অ্যাপ্লিকেশন, ইন্টারনেট মার্কেটিং, ওয়েব ডেভলপমেন্ট সহ প্রয়োজনীয় বিষয়ের উপর টেকনিক্যাল সেশন।

ওপেন সেশন

মেলায় আইডিয়া এবং ইনোভেশন প্ল্যাটফর্মে রয়েছে ওপেন সেশন। যেখানে ৪০টির মতো পণ্য উদ্ভাবনীমূলক ধারণা উপস্থাপনা করা হবে। এছাড়াও মেলা প্রাঙ্গণে থাকবে বিজনেস মিট এন্ড ম্যাচ বুথ।

অ্যাওয়ার্ড নাইট

দেশের আইসিটি খাতে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের অবদানকে স্বীকৃতি দেবার জন্য সফটএক্সপোতে আয়োজন করা হয়েছে অ্যাওয়ার্ড নাইট। দেয়া হবে ডিজিটাল চ্যাম্পিয়ান ও আজীবন সম্মাননা পুরস্কার। পুরস্কৃত করা হবে কোড ওয়ারিয়রস চ্যালেঞ্জ এবং আবিস্কারের খোঁজে এর বিজয়ীদের এবং দেশ সেরা ১০ জন ফ্রিল্যান্সারদের।

মেলায় এবারের স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এবং কর্পোরেট ভিজিটরদের জন্য থাকছে বিনামূল্যে মেলায় প্রবেশের সুবিধা।

এবারের সফটএক্সপোর প্ল্যাটিনাম স্পন্সর জিপি আইটি, গোল্ড স্পন্সর ডেল, কো-স্পন্সর হিসেবে রয়েছে ব্রাক ব্যাংক ও আইসিটি বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিল, ইন্টারনেট পার্টনার কিউবি, ক্লাউড ও কমিউনিকেশন জোন স্পন্সর হুয়াওয়ে এবং আউটসোর্সিং জোন স্পন্সর সিমসলিউশন, ম্যাচমেকিং এর সহায়তায় রয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড সেন্টার এবং সিবিআই নেদারল্যান্ডস।

আগামীকাল মেলার তৃতীয় দিনে সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে একাধিক ওপেন সেশন। এর মধ্যে রয়েছে আইটি ইনোভেশন সার্চ প্রোগ্রাম প্রজেক্টগুলো প্রদর্শন করা হবে। বিকেল ৪টায় অনুষ্ঠিত হবে ‘ভাষার মাসে বাংলা ব্লগের একটি মিলনমেলা’, এবং বেসিস আয়োজিত ‘আউটসোর্সিং ও এমপাওয়ারিং ক্লাউড ইকো সিস্টেম’ শীর্ষক সেমিনার। অনুষ্ঠিত হবে ‘বিল্ড সোশ্যাল অ্যাপস ফর ফেসবুক’ শীর্ষক টেক সেশন। এছাড়াও থাকছে একাধিক সেমিনার ও রাউন্ড টেবিল বৈঠক।

এক কথায় তরুণ প্রজন্ম থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক প্রযুক্তিবিদ, আগামী দিনের উদ্ভাবক,

চাকরিপ্রার্থী চাকরিদাতা কিংবা উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা সকলের এক মিলন মেলায় পরিণত হতে যাচ্ছে বেসিস সফটএক্সপো ২০১২।আরও জানতে এবং অনলাইন রেজিষ্ট্রেশনের জন্য ভিজিট করুন- www.softexpo.com.bd

 

এক নজরে বেসিস সফটএক্সপো ২০১২

থিম : Empowering Next Generation

স্থান : বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র, ঢাকা।

তারিখ ও সময় : ২২ ফেব্রুয়ারী – ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১১

প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত

আয়োজক : বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)

সহ-আয়োজক : তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এবং সাপোর্ট টু ডিজিটাল বাংলাদেশ (এটুআই) প্রোগ্রাম, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়

প্ল্যাটিনাম সপন্সর : গ্রামীণফোন আইটি

গোল্ড স্পন্সর : ডেল বাংলাদেশ

ইন্টারনেট পার্টনার : কিউবি

ক্লাউড ও কমিউনিকেশন জোন স্পন্সর : হুয়াওয়ে

আউটসোর্সিং জোন স্পন্সর: সিমসলিউশন

সেমিনার/ রাউন্ডটেবিল: ১২ টি

টেকনিক্যাল সেশন: ২০ টি

বিজনেস মিট এন্ড ম্যাচ: ৩ টি

প্রবেশ মূল্য : সাধারণ টিকেট ৫০ টাকা। স্কুল/ কলেজ/ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের পরিচয়পত্র প্রদর্শন সাপেক্ষে বিনামূল্যে প্রবেশের ব্যবস্থা। ভিজিটিং কার্ড প্রদর্শন সাপেক্ষে অন্যান্য পেশাজীবিদের বিনামূল্যে প্রবেশের ব্যবস্থা।

প্রদর্শনকারী প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা : ১৪০টি দেশীয় এবং ১০টি ইউরোপ

ই-মেইল : media@basis.org.bd, event@basis.org.bd

ওয়েবসাইট : www.basis.org.bd, www.softexpo.com.bd

(সংবাদবিজ্ঞপ্তি)

About mehdi

একটি উত্তর দিন