বেসিসের নতুন কার্যনির্বাহী কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ

বেসিসের নতুন কার্যনির্বাহী কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এর ২০১৪-২০১৬ মেয়াদের নব নির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদ সংগঠনটির দায়িত্ব গ্রহণ করেছে। সোমবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে নবনির্বাচিত এ কমিটির কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করেন সদ্যবিদায়ী ২০১২-২০১৪ মেয়াদের কার্যনির্বাহী পরিষদ।

বেসিসের সদ্য বিদায়ী ও নতুন কমিটির সভাপতি জনাব শামীম আহসানের সভাপতিত্বে দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী, এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি,  এবং ডাক, টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব আবু বকর সিদ্দিক এবং তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম খান।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ২০১২-২০১৪ মেয়াদের প্রথম সভাপতি ও পরিচালক একেএম ফাহিম মাশরুর, সাবেক সভাপতি ও নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যান এসএম কামাল, বেসিস এর নির্বাহী পরিচালক সামি আহমেদ প্রমুখ। অনুষ্ঠানে বেসিস-এর লোগো অঙ্কিত পতাকা আনুষ্ঠানিকভাবে নবনির্বাচিত সভাপতি শামীম আহসানের হাতে তুলে দেন বেসিস এর প্রাক্তন সভাপতিবৃন্দ। এসময় প্রাক্তন সভাপতিবৃন্দের মধ্যে এ তৌহিদ, এস এম কামাল, সারওয়ার আলম, হাবিবুল্লাহ এন করিম, রফিকুল ইসলাম রাউলি উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে নবনির্বাচিত বেসিস কার্যনির্বাহী পরিষদকে অভিনন্দন জানান। নতুন নেতৃবৃন্দ আপামর জনসাধারণের চাহিদার বিষয়টি বিবেচনায় রেখে দেশের তথ্য প্রযুক্তি শিল্পের উন্নয়নে সাধ্যমত কাজ করবেন বলে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জনাব জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি বলেন, ২০০৮ সালে আওয়ামীলীগ সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্প বাস্তবায়নে কাজ শুরু করে। ইতোমধ্যেই ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি সাধিত হয়েছে এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ২০২১ সাল নাগাদ বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে গড়ে তোলার ঘোষণা দিয়েছেন। আমরা বিশ্বাস করি তথ্য প্রযুক্তি খাতের উন্নয়ন অব্যাহত থাকলে ২০২১ সাল নাগাদ বাংলাদেশকে একটি ডিজিটাল মধ্যম আয়ের বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তোলা সম্ভব হবে।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব জনাব মো. নজরুল ইসলাম খান বলেন, সরকার বেসিস এর সাথে একযোগে তথ্য প্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। ফ্রিল্যান্সার থেকে এন্টারপ্রেনার, ফাস্ট প্রাক ফিউচার লিডার ইত্যাদি কর্মসূচি ছাড়াও সরকারের তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে এবং পর্যায়ক্রমে উপজেলা পর্যন্ত আইটি ভিলেজ বা হাইটেক পার্ক  প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা রয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে শামীম আহসান উপস্থিত বেসিস সদস্যবৃন্দ, সরকারী, বেসরকারী সংস্থা, চেম্বার ও এসোসিয়েশন, দূতাবাস ও আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিবৃন্দকে ধন্যবাদ জানান। তিনি উল্লেখ করেন, বেসিস ‘ওয়ান বাংলাদেশ’ ভিশনকে সামনে রেখে সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচির সাথে একাত্ম হয়ে আগামী ৫ বছরের মধ্যে ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রপ্তানী আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন, ১০ লক্ষ আইটি প্রফেশনাল তৈরি এবং প্রতিবছর এক কোটি করে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়ানোর লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। কালিয়াকৈর হাই-টেক পার্ক, জনতা টাওয়ার সফ্টওয়্যার টেকনোলজি পার্ক অতিসত্ত্বর চালু করার পাশাপাশি সরকারের ক্রয় নীতি, ইইএফ তহবিলের নীতিমালা সহজীকরণের ব্যাপারে সরকারের সহযোগিতা কামনা করেন।

উল্লেখ্য, ২০১৪-১৬  মেয়াদে নির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্যরা হলেন, সভাপতি পদে শামীম আহসান, সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে টিম ক্রিয়েটিভের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব রাসেল টি আহমেদ, সহ-সভাপতি পদে সিসটেক ডিজিটালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব এম রাশিদুল হাসান, মহাসচিব পদে বেস্ট বিজনেস বন্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক উত্তম কুমার পাল, যুগ্ম-মহাসচিব পদে অ্যাডভান্সড ইআরপি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মো: মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল, কোষাধ্যক্ষ পদে টেকনোবিডি ওয়েব সল্যুউশনস এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব শাহ ইমরাউল কায়ীশ এবং পরিচালক পদে মাল্টিমিডিয়া কনটেন্ট অ্যান্ড কমিউনিকেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব সানি মো: আশরাফ খান, আপডেট সল্যুউশনস টেকনোলজিস লিমিটেডের পরিচালক সামিরা জুবেরী হিমিকা ও ই-সফটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব আরিফুল হাসান অপু নির্বাচিত হন।

দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠান নির্বাচন বোর্ড ও নির্বাচন আপীল বোর্ডের সদস্যবৃন্দ এবং বিদায়ী কার্যনির্বাহী পরিষদকে ক্রেস্ট উপহার দেওয়া হয়। সবশেষে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

About অঞ্জন দেব

একটি উত্তর দিন