বাংলাদেশে প্রথম বিডিনগ সম্মেলন

বাংলাদেশে প্রথম বিডিনগ সম্মেলন

রাজধানীর পান্থপথের বসুন্ধরা সিটি টাওয়ারের গোল্ড ওয়াটার কনভেনশন সেন্টারে শেষ হল দুই দিনের প্রথম বিডিনগ সম্মেলন। আজ ২৩ মে প্রধান অতিথি হিসাবে সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমস্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এপনিক ডিরেক্টর জেনারেল পল উইলসন এবং আইক্যান এশিয়া অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট ইউ-চুয়াং কোয়েক, এপিনক নির্বাহী কমিটির সদস্য গৌরব রাজ উপাধ্যয়া, বিডিনগ বোর্ড অফ ট্রাস্ট্রির চেয়ারম্যান সুমন আহমেদ সাব্বির ও বিডিনগ সভাপতি নুরুল ইসলাম রোমান।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘বিডিনগের এই সম্মেলনের মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রযুক্তি জ্ঞান সম্পন্ন মানুষ বিশেষ করে ইঞ্জিনিয়াররা অনেক উপকৃত হবেন বলে আমি আশা করছি।’ তিনি বলেন, প্রযুক্তি খাতের বিদেশী বিশেষজ্ঞদের উপস্থিতি আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশের কার্যক্রম এক ধাপ এগিয়ে যাবে।

জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেন, আমরা বাংলাদেশকে একটি আধুনিক বাংলাদেশ হিসাবে দেখতে চাই। এই লক্ষ্যে এগিয়ে যেতে হলে সকল পেশার মানুষ একে অপরের সাথে কাধে কাধ মিলিয়ে কাজ করে যেতে হবে। এই সম্মেলনের মূল উদ্দেশ্য যদিও ইঞ্জিনিয়ারদের মধ্যে প্রযুক্তিগত জ্ঞানের ব্যপ্তি বাড়ানো, তবুও আমি আশা করবো সামনের দিকে প্রযুক্তিতে আগ্রহী লোকজনকেও এ ধরনের সম্মেলনে সংযুক্ত করার প্রক্রিয়া শুরু করতে হবে।

এপনিকের ডিরেক্টর জেনারেল পল উইলসন বলেন, ‘বিডিনগের সাফল্যে এপনিক গর্বিত এবং বিডিনগ প্রতিষ্ঠায় এপনিকের বলিষ্ঠ ভূমিকার জন্য এপনিক আনন্দিত।’ বাংলাদেশের ইন্টারনেট ব্যবহার সম্প্রসারনে বিডিনগ একটি গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশের মতো দেশের অনেক ইন্টারনেট প্রফেশনালস দরকার। এপনিক এক্ষেত্রে ট্রেনিং সুবিধা দিতে পারে কিন্তু স্থাণীয় আইসিটি ইন্ড্রাস্ট্রিকে যুগোপযুগী নেটওয়ার্ক ইঞ্জিনিয়ার তৈরির দিকে বেশি মনোযোগ দিতে হবে।

আইক্যান এশিয়া অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট ইউ-চুয়াং কোয়েক বলেন, ইন্টারনেট বর্তমান পৃথিবীর যোগাযোগ ব্যবস্থায় ব্যাপক পরিবর্তন নিয়ে এসেছে, যোগাযোগ ব্যবস্থা অনেক সহজ করে দি্েছে। বিডিনগের এই উদ্যোগ বাংলাদেশের ইন্টারনেট ব্যবস্থায় ব্যাপক ইতিবাচক পরিবর্তন আনবে বলে আমি আশা করি। এক্ষেত্রে সরকার, সিভিল সোসাইটি এবং টেকনিক্যাল কমিউনিটি এক সাথে কাজ করতে হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরপরই বিদেশী অতিথিদের উপস্থিতিতে একটি সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে দুই দিনের সম্মেলনের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি বাংলাদেশের ইন্টারনেট অবকাঠামো নিয়ে আলোচনা করা হয়।

কনফারেন্স কি নোট সেশনে এপনিকের ড. ফিলিপ স্মিথ, ফাইবার অ্যাট হোমের সুমন আহমেদ সাব্বির এবং দৈনিক প্রথম আলোর মুনির হাসান বক্তব্য রাখেন।

সম্মেলনের অংশ হিসাবে গত ১৯-২২ মে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটিতে টেলিকম ও আইএসপি প্রকৌশলীদের জন্য অনুষ্ঠিত হয়েছে বিজিপি রাউটিং, নেটওয়ার্ক সিকিউরিটি এবং ভার্চুয়ালাইজেশন ও ক্লাউড কম্পিউটিং বিষয়ে কারিগরি কর্মশালা। টিউটোরিয়াল ট্র্যাকে রাউটিং রেজিস্ট্রি অটোমেশন, এডভান্স মাল্টিথোমিং এবং অ্যাপ্লিকেশন ও ট্রান্সপোর্ট বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বিডিনগ সভাপতি নুরুল ইসলাম রোমান জানান, সম্মেলনে মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে বিডিনগ সদস্যদের নিজেদের মধ্যে জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা বিনিময়, বিভিন্ন অপারেশনাল রিসার্চ সম্পাদন, স্থানীয় আইসিটি ট্যালেন্টদের আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রমোট করা এবং বাংলাদেশের জন্য বেটার ইন্টারনেটের ব্যবস্থা করতে সহায়তা করা।

বিডিনগ বোর্ড অফ ট্রাস্ট্রির চেয়ারম্যান সুমন আহমেদ সাব্বির বলেন, ভবিষ্যতে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যেমন- ইন্টারনেট ইঞ্জিনিয়ারিং টাস্ক ফোর্স (আইইটিএফ), এশিয়া-প্যাসেফিক রিজিওনাল ইন্টারনেট কনফারেন্স অন অপারেশনাল টেকনোলজিস (অ্যাপ্রিকট), এপনিক তথ্যপ্রযুক্তি পেশাজীবি ও প্রকৌশলীদের অংশগ্রহনে আর্থিকভাবে সহায়তা প্রদানের জন্য বিডিনগ থেকে একটি অর্থ তহবিল গঠন করা হবে।

এ সময় জানানো হয়, বিডিনগ ২০১৩ সালের ১ অক্টোবর থেকে একটি অলাভজনক সংগঠন হিসাবে বাংলাদেশে কার্যক্রম শুরু করেছে। এটি মূলত বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি প্রকৌশলীদের একটি কমিউনিটি হিসাবে কাজ করবে। নেটওয়ার্ক অপারেটরস গ্র“প (নগ) হচ্ছে ইন্টারনেট ইঞ্জিনিয়ারদের একটি গ্লোবাল কমিউনিটি যারা নিজেদের মধ্যে অপারেশনাল বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে জ্ঞান, অভিজ্ঞতা ও মতামত বিনিময় করে। ফলে, বিডিনগও অন্যান্য দেশ ও রিজিওনের নেটওয়ার্ক অপারেটরস গ্র“প, যেমন: সাউথ এশিয়া নেটওয়ার্ক অপারেটরস গ্র“প (সেনগ),  নর্থ অ্যামেরিকান নেটওয়ার্ক অপারেটরস গ্র“প (ন্যানগ), জাপান নেটওয়ার্ক অপারেটরস গ্র“প (জেনগ), অস্ট্রেলিয়া নেটওয়ার্ক অপারেটরস গ্র“প (অসনগ), এশিয়া প্যাসেফিক রিজিওনাল ইন্টারনেট কনফারেন্স অন অপারেশনাল টেকনোলজিস (অ্যাপ্রিকট) এর সাথে একসাথে কাজ করবে।

এ লক্ষ্যে প্রতিবছর দুটি করে আন্তর্জাতিক সম্মেলন করার চিন্তা করছে বিডিনগ সংশ্লিষ্টরা। এই সম্মেলনের পর এ বছরের নভেম্বরে বিডিনগের দ্বিতীয় সম্মেলন কক্সবাজারে করার পরিকল্পনার কথা জানান আয়োজকরা। বিডিনগ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন কারিগরি ইস্যুতে সাংবাদিকদের জন্য সহায়ক প্রতিষ্ঠান হিসাবে কাজ করতে চায় বিডিনগ। ফলে, নেটওয়ার্ক ও ইন্টারনেট বিষয়ক যেকোন কারিগরি তথ্যের জন্য বিডিনগের সাথে যোগাযোগ করা যাবে সহজে। বিডিনগ তথ্যপ্রযুক্তি প্রকৌশলীদের জন্য একটি মেইলিং লিস্ট পরিচালনা করে আসছে। যার মাধ্যমে প্রকৌশলীরা বিভিন্ন কারিগরি ইস্যুতে সহজে নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ করতে পারেন। এই মেইলিং লিস্টের বর্তমান সদস্য সংখ্যা প্রায় ১ হাজারের কাছাকাছি। বিডিনগ তথ্যপ্রযুক্তি সাংবাদিকদের জন্য আরো একটি মেইলিং লিস্ট পরিচালনা করে, যার মাধ্যমে সাংবাদিকরা প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন সংবাদ সহজে পেতে পারে।

About অঞ্জন দেব

একটি উত্তর দিন