বাংলাদেশের হাইটেক পার্কে বিনিয়োগ বাড়াতে কাজ করবে চায়না

বাংলাদেশের হাইটেক পার্কে বিনিয়োগ বাড়াতে কাজ করবে চায়না

hitechবাংলাদেশের আইটি খাতে বিনিয়োগের চমৎকার পরিবেশ বিরাজ করছে এবং বাংলাদেশ সরকারের বিদ্যমান বিনিয়োগবান্ধব সুবিধাসমূহ উল্লেখযোগ্য বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশে সফররত চায়না বেটার বিজনেস ব্যুরো(চায়না বিবিবি)’র প্রতিনিধি দল।
মঙ্গলবার সকালে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সাথে তার দপ্তরে চায়না বিবিবি’র প্রতিনিধি দল এক সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হয়ে এই মন্তব্য করেন। সাক্ষাৎকালে প্রতিমন্ত্রী পলক চায়না প্রতিনিধি দলকে বাংলাদেশে চায়না বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্টকরণে হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সাথে একযোগে কাজ করতে, হাইটেক পার্ক প্রাঙ্গণে চীনা ভাষা ও কারিগরি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট স্থাপন করতে, হাই-টেক পার্ক ব্যতীত অন্যান্য সফটওয়্যার পার্ক ও টেকনোলজি পার্কে চীনা বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধিকরণে কাজ করতে এবং বাংলাদেশের আইটি খাতে চীনের উন্নয়ন অংশীদারিত্ব বৃদ্ধি করতে অনুরোধ করলে চায়না বিবিবি প্রতিনিধি দল তাতে সম্মতি প্রদান করেন।
এ সময় প্রতিনিধি দলের প্রধান, চায়না বিবিবি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জুডি শি বলেন, বর্তমান সরকার ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশের কার্যক্রমে চীন সরকার এবং চীনের ব্যবসায়ীবর্গ অত্যন্ত গভীরভাবে সম্পর্কিত। ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে চীন সরকার মনোনীত চীন সরকারের ব্যবসায়িক প্লাটফর্ম চায়না বিবিবি সে কাজ আরো এগিয়ে নিবে।
উক্ত স্বাক্ষাতকালে আরো উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের এমডি বেগম হোসনে আরা, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব হারুনুর রশিদ, জয় ইলেকট্রনিক্স এর চেয়ারম্যান জেমস চ্যাং টেকসন গ্রুপের চেয়ারম্যান স্যাম চাউ এবং বাংলাদেশে চায়না বিবিবি’র প্রতিনিধি রাকিব আহমেদসহ চীনের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ী প্রতিনিধিবর্গ।
উল্লেখ্য যে, আগামী ৫ সেপ্টেম্বর চায়না বিবিবি ও বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সাথে এ উপরোল্লিখিত বিষয়ে এক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হতে যাচ্ছে।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন