ফ্লেম’ ভাইরাস বানিয়েছে ইসরাইল

ফ্লেম’ ভাইরাস বানিয়েছে ইসরাইল

ইহুদিবাদী ইসরাইল বিশ্বের সবচেয়ে জটিল কম্পিউটার ভাইরাস ‘ফ্লেম’ তৈরি করেছে বলে আভাস দিয়েছে। ইসরাইলের আর্মি রেডিওকে দেয়া সাক্ষাতকার উপপ্রধানমন্ত্রী মোশে ইয়ালোন বলেছেন, এ ধরনের ভাইরাস ব্যবহার করে নতুন নতুন সুযোগ পাওয়া যেতে পারে। কম্পিউটার ভাইরাসসহ এ জাতীয় অন্যান্য জিনিস তৈরির প্রতিও তিনি সমর্থন ঘোষণা করেছেন।
ইয়ালোন দাবি করেন, ইরানকে যারা সত্যিকার হুমকি বলে মনে করে তারাই দেশটির ক্ষতি করার জন্য ভাইরাসসহ অন্যান্য জিনিস তৈরির মতো নানা পদক্ষেপ নেবে।
রাশিয়ার সাইবার নিরাপত্তা ব্যবস্থা এবং অ্যান্টি ভাইরাস নির্মাণকারী সংস্থা ক্যাস্পারস্কি ল্যাব ফ্লেমকে সনাক্ত করার কয়েক ঘন্টার মধ্যে এ কথা বললেন ইসরাইলের উপপ্রধানমন্ত্রী। ফ্লেম নানা গোয়েন্দা ততপরতায় ব্যবহার করা হবে বলে ক্যাস্পারস্কির গবেষকরা জানিয়েছেন।
২০ মেগাবাইটের এ ভাইরাসের প্রকৃতি এখনো পুরোপুরি বের করতে পারেননি বলে জানিয়েছেন ক্যাস্পারস্কির গবেষকরা। বিশ্বের সবচেয়ে মারাত্মক কম্পিউটার ভাইরাসের কোডের চেয়েও ক্যাস্পারস্কির কোড অন্ততঃ ১০০ গুণ বড় বলে জানিয়েছেন তারা।
রুশ গবেষকরা বলেছেন- ইরান, সুদান, সিরিয়া, লেবানন, সৌদি আরব এবং মিশরে ততপরতা চালানোর জন্য এ ভাইরাস তৈরি করা হয়েছে।
‘ফ্লেম’ শুধু ডাটাই সংগ্রহ করতে পারবে না বরং দূর থেকে কম্পিউটারের সেটিংস বদলে দিতে, আলোচনা রেকর্ড করার জন্য মাইক্রোফোন চালু করে দেয়া, স্ক্রিন শর্ট নেয়া এবং চ্যাটের কন্টেন্ট কপি করতে পারবে।
‘স্টুক্সনেট’ ভাইরাস থেকেও ফ্লেম ২০ গুণ বেশি শক্তিশালী বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।
ইরানি কর্মকর্তারা ২০১০ সালের জুন মাসে প্রথমবারের মতো স্টুক্সনেট ভাইরাস সনাক্ত করেন। যেসব কম্পিউটার শিল্পক্ষেত্রে ব্যবহৃত ‘এসসিএডিএ’ পদ্ধতি ব্যবহার করে সেসব কম্পিউটার এ ভাইরাসের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। ২০১০ সালের জুলাই মাসে বিশ্বব্যাপী এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে এবং বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য নির্মিত ইরানের বুশেহর পরমাণু স্থাপনা এর প্রধান টার্গেট ছিল বলে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে উল্লেখ করা হয়। স্টুক্সনেট ভাইরাস ইরানের পরমাণু কর্মসূচির ওপর আঘাত হানতে সক্ষম হয়েছে বলে মার্কিন ও ইসরাইলি কর্মকর্তারা দাবি করলেও ইরানি কর্মকর্তারা তা নাকচ করে দেন। তারা বলেছেন, ইরানি বিশেষজ্ঞরা খুব দ্রুত এ ভাইরাস সনাক্ত করতে সক্ষম হওয়ায় ইরানের শিল্প খাতের কোনো ক্ষতি হয়নি।

About Koyes Miah

একটি উত্তর দিন