ফ্রিল্যান্সারদের অর্থ দেশে আনতে ব্যাংক এশিয়ার নতুন সেবা

ফ্রিল্যান্সারদের অর্থ দেশে আনতে ব্যাংক এশিয়ার নতুন সেবা

atiurআউটসোর্সিং থেকে ফ্রিল্যান্সারদের অর্জিত অর্থ দেশে আনতে নতুন অনলাইন সেবা চালু করেছে ব্যাংক এশিয়া। ব্যাংকটি এ সেবায় সার্বিক সহায়তা দেবে আন্তর্জাতিক অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে সার্ভিস ‘পেয়নিয়ার ইনকর্পোরেটেড ইউএসএ’।
বৃহস্পতিবার (০৮ জানুয়ারি) রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান এ সেবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ড. আতিউর রহমান বলেন, এই অনলাইন সেবা (পেমেন্ট গেটওয়ে সার্ভিস) চালুর ফলে তরুণরা সব থেকে বেশি সুবিধা পাবেন। বিদেশে আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমে অর্জিত আয় ফ্রিল্যান্সররা সহজে উত্তোলন করতে পারবেন।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ফ্রিল্যান্সারদের আয়ের অর্থের ৫০ শতাংশ ফরেন কারেন্সি অ্যাকাউন্টে রাখার সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। তারা চাইলেই এ অর্থ ব্যবসায়িক প্রয়োজনে বিদেশে নিয়ে যেতে পারবেন। বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ফ্রিল্যান্সারদের জন্য বিভিন্ন ধরনের নীতি সহায়তা (পলিসি সাপোর্ট) দেওয়া হচ্ছে। এমনকি মোবাইল অ্যাপস তৈরিতেও বাংলাদেশ ব্যাংক নীতি সহায়তা দিচ্ছে।
বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর বলেন, মানুষ একা এগিয়ে যেতে পারে না। অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে মানুষ এগিয়ে যেতে হবে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। নানা প্রতিক‍ূলতার মাধ্যমে বাংলাদেশে এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশের এ এগিয়ে যাওয়ার গল্প উদ্যোক্তাদের সাফল্যের গল্প।
ব্যাংকের গ্রাহক ভোগান্তি প্রসঙ্গে ড. আতিউর বলেন, কোনো ব্যাংকে গ্রাহক ভোগান্তিতে পড়লে বাংলাদেশ ব্যাংক জানানোর অনুরোধ করা হলো। অভিযোগের পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। গতবছর গ্রাহকদের ৭ হাজার অভিযোগের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
বেসিস সভাপতি শামীম আহসান বলেন, তথ্য প্রযুক্তি খাত থেকে বাংলাদেশের ২০১৮ সালের মধ্যে এক বিলিয়ন ডলার রফতানি আয় হবে। আর আগমী ৫ বছরে প্রতিবছর এক কোটি নতুন ইন্টারনেট গ্রাহক বাড়বে। এ লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে বেসিস।
অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক আহসানুল্লাহ, ব্যাংক এশিয়ার চেয়ারম্যান আ. রউফ চৌধুরী, পেয়নিয়ার ইনকর্পোরেটেড ইউএসএ-এর সিইও স্কট এইচ গ্যালিট, ব্যাংক এশিয়ার ভাইস চেয়ারম্যান এ এম নুরুল ইসলাম, নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান রুমি এ হোসেন, ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মেহমুদ হোসেন, বেসিসি সভাপতি শামীম আহসান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
ব্যাংক এশিয়ার পক্ষ থেকে জানানো হয়, বাংলাদেশে ফ্রিল্যান্সাররা প্রতিবছর প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা বিভিন্ন মাধ্যমে দেশে পাঠায়। ঝুঁকিপূর্ণ ও ব্যয় বহুলভাবে এসব অর্থ দেশে আসে। গত অর্থবছরে বিদেশ থেকে ফ্রিল্যান্সাররা ১৩৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের উপরে দেশে এনেছেন।
ব্যাংক এশিয়ার নতুন সেবার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সাররা অল্প সময়ে ও ন্যূনতম ব্যয়ে দেশে অর্থ আনতে পরবেন। এর মাধ্যমে দেশে ফ্রিল্যান্সিং সেবা জনপ্রিয় হবে ও বৈদেশিক মুদ্রার প্রবাহ বাড়বে। ব্যাংক এশিয়ার নতুন অনলাইন সেবার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সারদের পাশাপাশি বিভিন্ন পেশাজীবীরাও দেশে রেমিটেন্স পাঠাতে পারবেন বলেও অনুষ্ঠানে জানানো হয়।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন