ফেসবুকের পর এবার ড্রোন কোম্পানি কিনলো গুগল

0,,17566945_303,00

উদ্দেশ্য একটাই৷ বিশ্বের প্রতিটি অঞ্চল ইন্টারনেটের আওতায় নিয়ে আসা৷ ড্রোনের মাধ্যমে সেটাই করতে চায় গুগল আর ফেসবুক৷ এ লক্ষ্যে ড্রোন ছাড়াও বেলুন নিয়ে কাজ করছে গুগল৷

গতমাসেই ২০ মিলিয়ন ডলার দিয়ে ব্রিটিশ কোম্পানি ‘অ্যাসেন্টা’ কিনে নেয় ফেসবুক৷ এই কোম্পানির তৈরি ড্রোন সৌরশক্তি দিয়ে আকাশে ভেসে থাকে৷

অ্যাসেন্টা কেনার আগে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকো ভিত্তিক ‘টাইটান অ্যারোস্পেস’ কেনার প্রতি আগ্রহ দেখিয়েছিল ফেসবুক৷ কিন্তু সেটা বাস্তব রূপ পায়নি৷ অবশেষে টাইটানকে কিনে নেয় গুগল৷ এ জন্য কত খরচ হয়েছে সেটা অবশ্য প্রকাশ করেনি তারা৷

অনেকটা গ্লাইডারের মতো দেখতে টাইটানের ড্রোনগুলো আকাশে ভেসে থাকতে সৌরশক্তির সাহায্য নেবে৷ এভাবে সেগুলো প্রায় পাঁচ বছর ভূমি থেকে প্রায় ১৯ কিলোমিটার উপরে ভেসে থাকবে৷ এই ড্রোনগুলোর সাহায্য নিয়ে গুগল বিশ্বের সেই সব প্রত্যন্ত অঞ্চলে ইন্টারনেট সংকেত পাঠাবে, যেগুলো এখনো ইন্টারনেটের আওতায় আসেনি৷

এ সব ড্রোন ব্যবহার করে প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণসহ আরও অন্যান্য কাজ করা যাবে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে গুগল৷

ড্রোনের বড় সুবিধা হলো, এর মাধ্যমে জিওস্টেশনারি স্যাটেলাইটের অনেক কাজ করা যায়৷ কিন্তু স্যাটেলাইটের চেয়ে ড্রোনের দাম কম৷

টাইটান অবশ্য এখনো বাণিজ্যিকভাবে ড্রোন নির্মাণের কাজ শেষ করেনি৷ তবে আগামী বছরের মধ্যেই সেটা সম্ভব হবে বলে জানা গেছে৷

প্রোজেক্ট লুন

শুধু ড্রোন নয়, বিশ্বের সর্বত্র ইন্টারনেট পৌঁছে দিতে বেলুন নিয়েও কাজ করছে গুগল৷ তাদের এই প্রকল্পের নাম ‘প্রোজেক্ট লুন’৷ এর আওতায় ভূমি থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার উঁচুতে বেলুন পাঠাতে চায় গুগল৷ এ সব বেলুনে থাকবে অ্যান্টেনা, যেগুলো ইন্টারনেট সংকেত সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দেয়া হবে৷

About boshe achi

একটি উত্তর দিন