পূণ্যভূমি সিলেট থেকে শুরু হলো সুন্দরবনের ১১ দিনের ভোটিং ও প্রচারণা কার্যক্রম ‘ডেস্টিনেশন সুন্দরবন’

বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন ও সাইবার ক্যাফে ওনার্স এসোসিয়েশনের অব বাংলাদেশ-এর যৌথ উদ্যোগে বিশ্বের প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচন প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের অনন্য প্রাকৃতিক সৌন্দর্যসম্ভার সুন্দরবনকে বিজয়ী করার লক্ষ্যে ১১ দিনের চূড়ান্ত প্রচারণা ও ভোটিং কার্যক্রম সিলেট নগরীর শহীদ মিনার চত্ত্বরে বেলা ১১-০০ টায় উদ্বোধন করা হয়। এ কার্যক্রমে দেশব্যাপী সুন্দরবনকে বিজয়ী করার বিভিন্ন কর্মসূচীর ঘোষণা প্রদান করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সরকারের যুগ্ম-সচিব ও

বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশেনের পরিচালক (অর্থ ও প্রশাসন) জনাব জামাল আবদুন নাসের, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলার জেলা প্রশাসক খান মোহাম্মদ বিলাল, সিলেট বিভাগীয় বন কর্মকর্তা, সুন্দরবনের অফিসিয়াল সাপোর্ট কমিটির সমন্বয়ক ও সহকারী সমন্বয়ক যথাক্রমে জনাব পারভেজ আহমেদ চৌধুরী ও জনাব মোহাম্মদ এহ্সানুল কবীর, সাইবার ক্যাফে ওনার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-এর সভাপতি জনাব নাজমুল করিম ভূইয়া। সভায় সভাপতিত্ব করেন সাইবার ক্যাফে ওনার্স এসোসিয়েশনের সিলেট বিভাগীয় সভাপতি জনাব ইকরামুল জলিল সুমন ও কোয়াব-এর কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

বর্ণিত ভোটিং কার্যক্রমে বিপুল সংখ্যক আগ্রহী সিলেটবাসী অংশগ্রহণ করে এবং

১১ দিনব্যাপী এ কার্যক্রম সিলেটে চলমান থাকাকালীন প্রশাসনের সর্ব পর্যায় থেকে ভোটিং কার্যক্রমে অংশগ্রহণসহ সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের বিষয়ে জেলা প্রশাসক সিলেট

অঙ্গীকার ব্যাক্ত করেন। অন্যান্য বক্তাগণ দেশ মাতৃকার প্রয়োজনে সমগ্র দেশবাসীকে এগিয়ে আসার জন্য এবং সবাই মিলে ভোট প্রদানের মাধ্যমে সুন্দরবনকে বিজয়ী করার উদাত্ত আহ্বান জানান। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে পূণ্যভূমি সিলেট থেকে শুরু হওয়া এ প্রচারণা ও ভোটিং কার্যক্রম সমগ্য বাংলাদেশে সাড়া জাগাবে বলে আশা প্রকাশ করেন এবং সর্বস্তরের মানুষের সক্রিয় অংশগ্রহণে সুন্দরবন বিশ্বের প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য হিসেবে নির্বাচিত হবে বলে দৃঢ় আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

সুন্দরবনকে বিজীয় করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন ও সাইবার ক্যাফে ওনার্স

এসোসিয়েশনের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এ প্রচার ও ভোটিং কার্যক্রম সিলেট নগরীতে

ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে এবং আশা করা যায় সমগ্র বাংলাদেশে পরিচালিতব্য এ কার্যক্রম

আগামী ১১ দিনে সুন্দরবনের সপক্ষে ভোট প্রদানে সমগ্র দেশবাসীকে আলোড়িত করতে সক্ষম হবে বলে উপস্থিত সবাই মত প্রকাশ করেন। বিপুল সংখ্যক মিডিয়ার উপস্থিতি আয়োজকদের এ প্রচারণা কার্যক্রমকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলে আশা করা যায়।

(প্রেস বিজ্ঞপ্তি)

 

 

 

About mehdi

একটি উত্তর দিন