পুঁজিবাজারের জন্য ওয়েবসাইট নেই ১৮ কোম্পানির নিয়ম থাকলেও

পুঁজিবাজারের জন্য ওয়েবসাইট নেই ১৮ কোম্পানির নিয়ম থাকলেও

নিয়ম থাকলেও ওয়েবসাইট নেই ১৮ কোম্পানিরপুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত প্রতিটি কোম্পানির ওয়েবসাইটে বিস্তারিত ত্রৈমাসিক প্রতিবেদন প্রকাশের নিয়ম থাকলেও এখনো ওয়েবসাইটই তৈরি করেনি ১৮টি কোম্পানি। খবর-বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

এসব কোম্পানির মধ্যে তিনটি বস্ত্রখাতের- আলহাজ টেক্সটাইল, তাল্লু স্পিনিং ও ডেল্টা স্পিনারস লিমিটেড। অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে আছে চামড়া শিল্পের লিগেসি ফুটওয়্যার ও ওষুধ শিল্পের লিবরা ইনফিউসন।

এছাড়া রয়েছে জেনারেল ইন্সুরেন্স কোম্পানি, ইস্টার্ন লুব্রিক্যান্ট, রেনউইক জেইনসওয়্যার অ্যান্ড কোম্পানি (বিডি), নর্দার্ন জুট ম্যানুফ্যাকচারিং লিমিটেড, ন্যাশনাল টি, শ্যামপুর সুগার মিলস লিমিটেড, জিল বাংলা সুগার মিলস লিমিটেড, বাঙ্গাস ও মেঘনা পেট ইন্ডাস্ট্রিজ, মেঘনা কনডেন্সড মিলক, মিরাকল ইন্ডাস্ট্রিজ, জিকিউ বল পেন ও উসমানিয়া গ্লাস।

২০১০ সালের ১৭ জানুয়ারি পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের এক নির্দেশনায় বলা হয়, “বর্তমানে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলো তাদের ত্রৈমাসিক আর্থিক প্রতিবেদন পত্রিকায় অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত আকারে প্রকাশ করছে, যেখানে আয়ের বিস্তারিত উৎসের মতো গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়ের বিস্তারিত বিবরণ থাকে না।”

অথচ ‘সুচিন্তিত বিনিয়োগ সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে’ এসব তথ্যগুলো বিনিয়োগকারীদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে ওই নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়।”

গত বছরের ১১ মার্চ এসইসির আরেক আদেশে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর নিজস্ব ওয়েবসাইটে তাদের বিস্তারিত ত্রৈমাসিক আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ নিশ্চিত ও তদারকি করতে দেশের দুই পুঁজিবাজারকে নির্দেশ দেয়া হয়।

এতে বলা হয়, “উভয় স্টক এক্সচেঞ্জকে একসঙ্গে (ওয়েব লিংক স্থাপনের মাধ্যমে) তাদের ওয়েবসাইটে বিস্তারিত ত্রৈমাসিক আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করতে হবে।”

ওয়েবসাইট না থাকা নিয়ে গত জানুয়ারিতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম- এ সংবাদ প্রকাশের পর ১০টি কোম্পানি নিজস্ব ওয়েবসাইট তৈরি করে।

তবে বাকি ১৮টি কোম্পানির ওয়েবসাইট থাকার কোনো তথ্য ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ বা এসইসিতে এখনো দেয়া হয়নি।


About বিদ্যুৎ বিশ্বাস

একটি উত্তর দিন