পর্ব -৩ : ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি যেভাবে খুঁজে বের করবেন

পর্ব -৩ : ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি যেভাবে খুঁজে বের করবেন

আজকের পর্বে শেয়ার করব ওয়েব হোস্টিং সিনিয়র সহ-সভাপতি, বেসিস,সিনিয়র সিস্টেমস অ্যানালিস্ট, বিসিসি,ব্যবস্থাপনা পরিচালক
টেকনোবিডি ওয়েব সল্যুশন লিমিটেড এর সাক্ষাৎকার।

বিশেষ সংযোজনঃপুর্ববর্তী পর্ব (ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি যেভাবে খুঁজে বের করবেন পর্ব – ০২) পরতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুনঃ

ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি যেভাবে খুঁজে বের করবেন (পর্ব – ০২)

সাক্ষাৎকার

এ. কে. এম ফাহিম মাশরুর
সিনিয়র সহ-সভাপতি, বেসিস

ওয়েব হোস্টিংয়ের ক্ষেত্রে কী ধরনের কোম্পানি পছন্দ করা উচিত?

যেকোনো ক্রেতা ওয়েব হোস্টিং করার আগে অবশ্যই ওই কোম্পানিকে যাচাই করার প্রয়োজন আছে। যেমন-কোম্পানি কতদিন ধরে সার্ভিস দিচ্ছে। সম্ভব হলে সেবা নিচ্ছে এমন দুয়েকজনের সাথে কথা বলে নেয়া যেতে পারে। সেই সাথে কোনো অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য কি না, দেখা যেতে পারে।

বাজারে প্রচলিত হোস্টিং কোম্পানিগুলোর মধ্যে দেখা যাচ্ছে অনেকেই নামমাত্র মূল্যে হোস্টিং অফার করে, আবার অনেকেই ২-৩ ধরনের হোস্টিং সেবা দিচ্ছে। এ ক্ষেত্রে আপনার বক্তব্য কী?

দেখুন, বিশ্বের সব ব্যবসায়ের এবং সব দেশেই যেকোনো সার্ভিসে প্রতিযোগিতা থাকবেই। কিন্তু সেখানে ক্রেতাদের আগে সাবধান হতে হবে। অনেক লোভনীয় অফার এবং কম দামে হোস্টিং দেখেই ওই কোম্পানির সাথে চুক্তি না করে আগে নিজেকে ভালোভাবে যাচাই-বাছাই করে তারপর হোস্টিং কিনতে হবে। তা না হলে পরবর্তী সময়ে ঠিকই বিপদে পড়তে হবে। এ বিষয়ে নিজে না বুঝলে চেনাজানা কারো সহযোগিতা নিতে পারেন। এ ছাড়া অনলাইনে অনেক টিউটরিয়াল আছে, যেখান থেকে নিজেই সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন কোন ধরনের হোস্টিং আপনার প্রয়োজন।

ভালো হোস্টিং কোম্পানি খুঁজে বের করার ক্ষেত্রে বেসিস কোনো সহযোগিতা করে কি না? 

বেসিস ওয়েবসাইটে আমাদের সদস্যদের মধ্যে যেসব কোম্পানি হোস্টিং সার্ভিস দেয়, তাদের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা আছে। যেকেউ প্রয়োজনীয় তথ্য নিয়ে ওই কোম্পানিগুলোর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। পরবর্তী সময়ে যদি কোনো সমস্যা হয়, তবে বেসিস সমাধানের চেষ্টা করবে।

……………………………………………………………………………………………………………………………………………………………………………………..

তারেক বরকতউল্লাহ
সিনিয়র সিস্টেমস অ্যানালিস্ট

বাংলাদেশ কমপিউটার কাউন্সিল

আপনারা কোন ধরনের হোস্টিং সার্ভিস দিচ্ছেন?

বিসিসি মূলত বাংলাদেশ সরকারের ওয়েবসাইটগুলো হোস্টিং করে। বর্তমানে ১৫০টির মতো ওয়েবসাইট হোস্টিং আছে, যার বেশিরভাগ লিনআক্স সার্ভারে চলে।

বাংলাদেশে প্রাইভেট ডাটা সেন্টার খুব বেশি গড়ে না ওঠার কারণ কী?

এখনো বাংলাদেশে ব্যান্ডউইডথের দাম উন্নত বিশ্ব থেকে অনেক বেশি, এটা একটা বিষয়। তা ছাড়া সাবমেরিন ফাইবার অপটিক্যাল ক্যাবলের বিকল্প লাইন না থাকায় আমাদের সবসময় ঝুঁকির মুখে থাকতে হয়। আরও রয়েছে ডাটা সেন্টারের জন্য গুণগতমানসম্পন্ন নির্ভরযোগ্য বিদ্যুৎ সরবরাহের সমস্যা। তাই এখনো দেশে সেভাবে হোস্টিংয়ের জন্য ডাটা সেন্টার বাণিজ্যিকভাবে গড়ে ওঠার পরিবেশ তৈরি হয়নি।

…………………………………………………………………………………………………………………………………………………………………………………………………………

শাহ ইমরাউল কায়েস
ব্যবস্থাপনা পরিচালক
টেকনোবিডি ওয়েব সল্যুশন লিমিটেড

ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি হিসেবে ক্রেতাদের সাথে কী ধরনের প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়? 

একটি প্রশ্ন প্রায়ই আসে। তা হলো হোস্টিংয়ের মূল্য তালিকা। বাজারে ছোটবড় ৪০টিরও বেশি কোম্পানি বাংলাদেশে হোস্টিং সেবা দিচ্ছে। কিন্তু একেক কোম্পানি একেক ধরনের প্যাকেজ ঘোষণা দেয়। এর ফলে ক্রেতা নিজেই দ্বিধাদ্বন্দ্বে পড়েন কোন কোম্পানিটি তার জন্য ভালো হবে। এ ক্ষেত্রে দাম নিয়ে বিভিন্নজনের বিভিন্ন অফার বিষয়ে ক্লায়েন্ট জানতে চায়। আমাদেরকেও বিব্রতকর অবস্থায় পড়তে হয় এবং বুঝিয়ে বলতে হয় কেনো হোস্টিংয়ের দাম ভিন্ন হয়।

যারা নতুন করে হোস্টিং কিনতে চান, তাদের জন্য আপনার পরামর্শ কী?

হোস্টিং বিষয়ে আগে থেকে ধারণা রাখতে হবে। নিজে হোমওয়ার্ক করতে হবে। প্রথমেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে, কী ধরনের সার্ভিসের জন্য হোস্টিং করতে হবে। সাধারণ মানের একটি ওয়েবসাইট হোস্টিং করলেও আপনাকে দুটো বিষয়ে লক্ষ রাখতে হবে : ০১. কোম্পানির আগের রেকর্ড এবং কোন কোন কোম্পানি বর্তমানে তাদের থেকে সার্ভিস নিচ্ছে এবং ০২. দামের দিকে না তাকিয়ে আগে দেখতে হবে আপনার নিজের চাহিদা কী। সে অনুযায়ী হোস্টিং বেছে নিতে হবে। মনে রাখতে হবে, যখন ডাটাবেজ ও ই-কমার্সসহ জটিল ধরনের হোস্টিং করবেন তখন টেকনিক্যাল অনেক প্রশ্ন আগে থেকে জেনে নিতে হবে। যেমন : সার্ভারের কনফিগারেশন, ডাটা ট্রান্সফার ব্যান্ডউইডথ, ডাটা ব্যাকআপ সুবিধা এবং সার্পোটসহ আরো কিছু তথ্য।

মুল লেখাঃআরিফুল হাসান অপু ( কমপিউটার জগত ম্যাগাজিন )

About blogger - ব্লগার

একটি উত্তর দিন