নরটন অ্যান্টিভাইারাস বা ইন্টারনেট সিকিউরিটির সুবিধাসমূহ :

নরটন অ্যান্টিভাইারাস বা ইন্টারনেট সিকিউরিটির সুবিধাসমূহ :

কমপিউটারের জন্য গুরুত্বপূর্ণ যে জিনিসটি, সেটি হচ্ছে অ্যান্টি-ভাইরাস। অথচ পিসি ব্যবহারকারীরা এটি সবচেয়ে বেশি এড়িয়ে যান। বিশেষ করে যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকেন তাদের জন্য অ্যান্টি-ভাইরাস ও ইন্টারনেট সিকিউরিটি অতীব গুরুত্বপূর্ণ। কেননা, অনেক সময় বিভিন্ন ওয়েবসাইট ভিসিট করার সময় অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু প্রোগ্রাম, কুকি আপনার কম্পিউটারে ইন্সটল অথবা জমা হয়, তা আপনি জানতেও পারবেন না অথচ আপনার তথ্য ঠিকই পৌঁছে যাবে হ্যাকারদের কাছে। অনেকে ধারণা করেন ভাইরাস আক্রান্ত হলে তো বোঝাই যাবে। কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে যাবে।

Norton-Antivirus2

এখানে আমি নরটন ইন্টারনেট সিকিউরিটির কিছু সুবিধাসমূহ জানাবো :

আইডেন্টিটি সেফ

এর মাধ্যমে আপনি আপনার ইমেইল, সোশাল নেটওয়ার্ক, , ব্লগ ইত্যাদি বিভিন্ন সাইটের বিভিন্ন পাসওয়ার্ড সেভ করে রাখতে পারবেন এবং মাত্র একটি মাস্টার পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে। ফলে আপনি একটি পাসওয়ার্ড ব্যবহার করেই সব অ্যাকাউন্টে লগইন করতে পারবেন।

সিস্টেম স্লো-ডাউন ও স্টার্টআপ ম্যানেজার

অনেক ব্যবহারকারী কেবল সিস্টেম স্লো হয়ে যাওয়া সমস্যার মুখোমুখি হতে চান না বলে অ্যান্টি-ভাইরাস সফটওয়্যার ইন্সটল না করে নিজেকে ঝুঁকির দিকে ঠেলে দিয়ে থাকেন। কিন্তু নরটন অ্যান্টি-ভাইরাস ও ইন্টারনেট সিকিউরিটি এ দিক মুক্ত। খুব কম রিসোর্স ব্যবহার করে বিধায় সিস্টেম স্লো-ডাউন খুব একটা হয়ই না।

ক্লাউড ম্যানেজমেন্ট

আপনি দূরে অবস্থান করেও বাসার বা অফিসের কম্পিউটারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নরটন নিয়ে এসেছে ক্লাউড ম্যানেজমেন্ট সেবা। এর মাধ্যমে আপনি পৃথিবীর যে কোনো প্রান্তে বসে আপনার কম্পিউটারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারবেন। আপনি এই সুবিধাটির উপকারিতা পাবেন যদি আপনার একাধিক ডিভাইস থাকে অথবা আপনাকে যদি দূর থেকেই বাসা, অফিস বা বন্ধুদের কম্পিউটারের অ্যান্টি-ভাইরাস আপডেট, সেটিংস পরিবর্তন, চাইল্ড প্রটেকশন ইত্যাদি কাজ সম্পাদন করতে চান। একটি নরটন অ্যাকাউন্ট দিয়ে এবার আপনি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন আপনার সব কম্পিউটার।

ব্যান্ডউইথ অ্যাওয়্যারনেস

বাংলাদেশে লো-ব্যান্ডউইথ একটি বড় সমস্যা। সাধারণত ল্যাপটপ ডিভাইসে যখন তখন বড় আকারের আপডেট (সফটওয়্যার ভার্সন) বন্ধ করতেই এই সুবিধাটি যোগ করা হয়েছে। এই ফিচারের মাধ্যমে আপনি যখন ওয়াই-ফাই বা ব্লুটুথ দিয়ে কানেক্টেড থাকেন, তখন বড় আকারের আপডেট ডাউনলোড হওয়া বন্ধ রাখতে পারবেন। পরবর্তীতে যখনই ক্যাবল কানেক্টেড হবে তখন নরটন নিজে নিজেই বড় আকারের আপডেট ডাউনলোড করে নিবে।

নরটন ইনসাইট

এই সুবিধাটি আপনার ফাইলসমূহকে স্ক্যান করে আপনার কম্পিউটারে থাকা ফাইল বা অ্যাপ্লিকেশনগুলোর সম্পর্কে একটি বিস্তারিত প্রতিবেদন দেবে। এই প্রতিবেদনে উল্লেখ থাকবে আপনার ইন্সটল করা প্রতিটি সফটওয়্যার কতটুকু নির্ভরযোগ্য, কী পরিমান ব্যবহারকারী এটি ব্যবহার করছে এবং এটি সিস্টেমে কী পরিমান রিসোর্স টানছে। বলা যায়, আমার সবচেয়ে পছন্দের ফিচার এটি। প্রতিবার সিস্টেম স্ক্যান সম্পন্ন হওয়ার পর নরটন ইন্টারনেট সিকিউরিটি আপনাকে নরটন ইনসাইট সুবিধার মাধ্যমে এ জাতীয় বিস্তারিত তথ্য দেখাবে। এর আরেকটি বড় সুবিধা হচ্ছে, কোন অ্যাপ্লিকেশন কতটুকু রিসোর্স টেনে পিসি স্লো করে দিচ্ছে তাও দেখা যায় এখান থেকেই। তাই কম্পিউটার স্লো হয়ে গেলে তার জন্য কোন সফটওয়্যার দায়ী তা খুঁজে বের করতেও নরটন ইনসাইট বেশ কাজের একটি সুবিধা।

অ্যান্ড্রয়েড সিকিউরিটি

সবশেষে নরটন এসেছে অ্যান্ড্রয়েড-চালিত মোবাইল ফোন ও ট্যাবলেট ডিভাইসের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে। অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা ম্যালিশিয়াস প্রোগ্রাম বা অ্যাপ্লিকেশন থেকে নিজেদের ডিভাইসকে দূরে রাখতে ব্যবহার করতে পারেন নরটন ।

About এহতেশাম উদ্দিন

একটি উত্তর দিন