দ্রুতগতির ইন্টারনেট জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে

দ্রুতগতির ইন্টারনেট জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে

দেশের প্রত্যেকটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে ইন্টারনেট সংযোগ থাকলেও তা ধীরগতি সম্পূর্ণ। ফলে অনলাইন ভিত্তিক সরকারি অসংখ্য কার্যক্রম বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে। সমস্যা সমাধান করতে ডিজিটালাইজেশন পদক্ষেপের অংশ হিসেবে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়গুলোয় দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা নিশ্চিত করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) এর সমন্বয়ে ন্যাশনওয়াইড টেলিকমিউনিকেশন ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্ক (এনটিটিএন) লাইসেন্স পাওয়া দুই প্রতিষ্ঠান কাজ করতে শুরু করেছে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই পর্যায়ক্রমে সব জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অপটিক্যাল ফাইবার ক্যাবলের সংযোগ দেয়া হচ্ছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, এনটিটিএন অপারেটর ফাইবার অ্যাট হোম ও সামিট কমিউনিকেশন্স নেটওয়ার্ক সার্ভিস প্রোভাইডার (এনএসপি) হিসেবে এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে। এজন্য প্রতিষ্ঠান দুটি পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশের (পিজিসিবি) কাছ থেকে নেয়া ৩ হাজার ৬০০ কিলোমিটার অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্ক ব্যবহার করবে। চলতি বছরের মার্চে পিজিসিবির সঙ্গে সই করা এক চুক্তির মাধ্যমে এ নেটওয়ার্ক ব্যবহারের অনুমতি পেয়েছে প্রতিষ্ঠান দুটি। এর মধ্যে ফাইবার অ্যাট হোম ১ হাজার ৯০০ কিলোমিটার এবং সামিট কমিউনিকেশন্স ১ হাজার ৭০০ কিলোমিটার অপটিক্যাল ফাইবার ব্যবহার করছে।

url5

এদিকে এনএসপি প্রতিষ্ঠান দুটি প্রাথমিকভাবে প্রায় ৩০টি জেলায় অপটিক্যাল ফাইবারের সংযোগ দেয়ার কাজ করছে। বর্তমানে এসব জেলায় অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্ক নেই। দেশের পার্বত্য ও উপকূলীয় ২২টি জেলায় অপটিক্যাল ফাইবারের সংযোগ নেই। তবে এনটিটিএন হিসেবে প্রতিষ্ঠান দুটির নেটওয়ার্কের আওতায় রয়েছে ৪২ জেলা।

প্রসঙ্গত, দেশব্যাপী ফাইবার অপটিক নেটওয়ার্ক নির্মাণের লক্ষ্যে ন্যাশনওয়াইড টেলিকমিউনিকেশন ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্ক (এনটিটিএন) স্থাপনের কাজ শুরু হয়েছে ২০০৯ সালে। এ প্রকল্পের আওতায় ফাইবার অ্যাট হোম এবং সামিট কমিউনিকেশন্স লিমিটেডকে লাইসেন্স দেয়া হয়। দশ বছর মেয়াদি লাইসেন্সের আওতায় এ নেটওয়ার্ক স্থাপনের কাজ করছে প্রতিষ্ঠান দুটি। এরই মধ্যে দুটি প্রতিষ্ঠানই দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে তাদের নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ করেছে।

About বদরুদ্দোজা মাহমুদ তুহিন

একটি উত্তর দিন