দহগ্রামে গ্রামীণফোনের থ্রিজি সেবার উদ্বোধন

দহগ্রামে গ্রামীণফোনের থ্রিজি সেবার উদ্বোধন

pmপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লালমনিরহাটের দহগ্রামে গ্রামীণফোনের থ্রিজি সেবার উদ্বোধন করেছেন। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই সেবার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।
প্রধানমন্ত্রী বুধবার দুপুরে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কথা বলে এ সেবার উদ্বোধন করেন। এবারই প্রথম প্রধানমন্ত্রী কোনো বেসরকারি অপারেটরের থ্রিজি উদ্বোধন করলেন।
এর আগে ২০১২ সালে দেশে প্রথমবারের মতো টেলিটকের থ্রিজির পরীক্ষামূলক সেবার উদ্বোধন করেন শেখ হাসিনা। তৎকালীন রাষ্ট্রপতি মো: জিল্লুর রহমানের সঙ্গে কথা বলে ওই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছিলেন তিনি।
গ্রামীণফোনের থ্রিজি সেবা উদ্বোধনকালে দহগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তারানা হালিম ছাড়াও প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির চেয়ারম্যান মোতাহার হোসেন, সংসদ সদস্য সফুরা বেগম রুমী, গ্রামীণফোনের চিফ কর্পোরেট এ্যাফেয়ার্স অফিসার মাহমুদ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।
গ্রামীণফোন সবার আগে থ্রিজি নিয়ে গেলেও কয়েক বছর আগে দাহগ্রাম এবং অাঙ্গোরপোতায় টেলিটকই প্রথম মোবাইল নেটওয়ার্ক তৈরি করে। পরে অবশ্য সবগুলো অপারেটর একে একে তাদের সেবা নিয়ে যায় ভারতীয় ভূখন্ডের মধ্যে অবস্থিত এলাকাটিতে।
সদ্য বিলুপ্ত এ ছিটমহল লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার একটি ইউনিয়ন ও দেশের অন্যতম বৃহৎ ছিটমহল, যা ভারতের মূল ভূখন্ডের মধ্যে অবস্থিত। এর তিন দিকে ভারতের কুচবিহার জেলা, একদিকে তিস্তা নদী, নদীর ওপারেও ভারতীয় ভূখণ্ড।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন