তরুণরাই এগিয়ে নিচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশের পতাকা: অর্থমন্ত্রী

তরুণরাই এগিয়ে নিচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশের পতাকা: অর্থমন্ত্রী

আজ আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করা হল বিশ্বের প্রথম বাংলা অপটিক্যাল ক্যারেক্টার রিকগনাইজার(ওসিআর) পুঁথি এর। পৃথিবীর সকল বাংলা ভাষাভাষী এবং বাংলাভাষায় আগ্রহী মানুষের ব্যবহারের জন্য নির্মিত হয়েছে এই সফটওয়্যার। বাংলা ওসিআর-এর মাধ্যমে সরকারি-বেসকারি প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে নতুন পুরনো বই, নথি ডিজিটালাইজড করা যাবে। এতে এই সব বই একেবারে হারিয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা পাবে। কোন প্রয়োজনীয় তথ্য ঘন্টার পর ঘন্টা ব্যয় করে বের করতে হবে না, ওয়েবে সার্চ দিলেই সব সহজে খুঁজে পাওয়া যাবে। এই ছাড়া অনলাইন লাইব্রেরি প্রতিষ্ঠায় বাংলা ওসিআর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। বাংলা ওসিআর ‘পুঁথি’ মাত্র ৪ সেকেন্ডে বইয়ের একটি পাতাকে ডিজিটাইজ করে এবং এডিটেবল করতে সক্ষম। মূল টেক্সটের শতকরা ৯৫ ভাগেরও বেশি শব্দ নির্ভূলভাবে প্রদর্শন করতে সক্ষম।‘পুঁথি এখন পর্যন্ত ১০০ টির বেশি বাংলা ফন্ট রিড করতে পারে।

বাংলা ওসিআর ‘পুঁথি’ এর উদ্বোধনের সময় উপস্থিত ছিলেন, প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, বিশেষ অতিথি হিসাবে ছিলেন জুনাইদ আহমেদ পলক, মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ; ডাক. টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়। বিশেষ অতিথি হিসাবে আরো ছিলেন, মোস্তফা জব্বার সাবেক সভাপতি, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি ও রাসেল, টি. আহমেদ সিনিয়র ভাইস প্রসিডেন্ট(বেসিস)।

 
এই সময় প্রধান অতিথি মাননীয় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, তরুণরাই এগিয়ে নিচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশের পতাকা। বাংলা ওসিআর তৈরির মাধ্যমে ত্বরান্বিত হলো এই এগিয়ে যাওয়া। সেজন্য তিনি টিম ইঞ্জিনকে সাধুবাদ জানায়। আরো বিশেষ অতিথি জুনাইদ আহমেদ পালক বলেন, বাংলা ওসিআর ‘পুঁথি’ একটি বিশ্বমানের উদ্ভবন। এই উদ্ভোবনের ফলে ই-গভর্নেন্স এর প্রকৃত বাস্তবায়ন সম্ভব। আরো বক্তব্য রাখেন, রাসেল টি আহমেদ, মোস্তফা জব্বার, সামিরা জুবেরী হিমিকা।

 

 

 

About অঞ্জন দেব

একটি উত্তর দিন