তথ্যপ্রযুক্তির ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অনুষ্ঠিত

তথ্যপ্রযুক্তির ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অনুষ্ঠিত

wictcজাকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হলো তথ্যপ্রযুক্তির আন্তর্জাতিক সম্মেলন ‘ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন ইনফরমেশন টেকনোলজি (ডব্লিউসিআইটি)।
গত ৩ থেকে ৫ অক্টোবর ব্রাজিলের রাজধানী ব্রাজিলিয়ার সিআইসিবি আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত এ সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্রাজিলের বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তি মন্ত্রী গিলবার্তো কাসাব।
অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ছিলেন ফেডারেল ডিস্ট্রিক্ট অব ব্রাসিলিয়ার গভর্নর রদরিগো রোলেম বার্গ।
বিশ্ব আইটি সংস্থা ‘ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিস অ্যালায়েন্স (উইটসা)’ ১৯৭৮ সাল থেকে প্রতি দুই বছর অন্তর বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তথ্যপ্রযুক্তির এই সম্মেলন করে থাকে। তারই অংশ হিসেবে এ বছর ব্রাজিলের তথ্য প্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট অ্যাসোশিয়েশন আয়োজনটি করলো।
বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি, আইসিটি ডিভিশন এবং আইসিটি বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিলের সহায়তায় ২৩ সদস্যের একটি দল ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিস অ্যালায়েন্স (উইটসা) এর সদস্য হিসেবে সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন।
সম্মেলনে বাংলাদেশ প্যাভেলিয়নে আইসিটি মন্ত্রণালয় এবং বিসিএস এর ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। এতে ডিজিটাল বাংলাদেশের অগ্রগতি বেশ আগ্রহের সঙ্গে উপভোগ করেন দর্শকরা।
সুত্র মতে, সম্মেলনে বিসিএস এর প্রাক্তন সভাপতি এবং বর্তমান কমিটির উপদেষ্টা সবুর খান পুনরায় উইটসা এর পরিচালক নির্বাচিত হয়েছেন এবং দ্বিতীয়বারের মতো তিনি গ্লোবাল ট্রেড কমিটির চেয়ারম্যান হওয়ার কৃতিত্ব অর্জন করলেন। উইটসার ইতিহাসে খুব কম সংখ্যক পরিচালক দ্বিতীয়বারের মতো গ্লোবাল ট্রেডের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে থাকেন।
এসব অর্জন বিশ্বাঙ্গনে বাংলাদেশকে অনন্য মর্যাদায় নিয়ে গেছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।
এবারের সম্মেলনে বিসিএস এবং ইনফরমেশন সার্ভিস ইন্ডাস্ট্রি অ্যাসোশিয়েশন অব চায়নিজ তাইপে (সিআইএসএ) এর মধ্যে একটি দ্বিপাক্ষীক চুক্তিও স্বাক্ষরিত হয়েছে।
বিসিএস’র সভাপতি আলী আশফাক এবং সিসা চেয়ারম্যান ওয়াইভন্নি চিউ নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। চুক্তির উদ্দেশ্য দুই দেশের ব্যবসা উন্নয়ন ও প্রচার এবং আইসিটি শিল্পে বিনিয়োগের সুযোগ তৈরি করা।
চুক্তি সাক্ষরের অনুষ্ঠানে তাইওয়ানের অর্থনীতি বিষয়ক ভাইস মিনিস্টার ইয়াং উয়েই ফু সহ তাইওয়ান প্রতিনিধি দল এবং বাংলাদেশের প্রতিনিধি দলে আইসিটি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. হারুনুর রশিদ,বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিলের কো- অর্ডিনেটর ফিরোজ আহমেদ,উপ-সচিব মাহবুবা পান্না, বিসিএস এর মহাসচিব ইঞ্জিনিয়ার সুব্রত সরকার, পরিচালক মো. শাহিদ-উল-মুনির উপস্থিত ছিলেন।
এছাড়াও এতে মর্যাদাপূর্ণ মেরিট অ্যাওয়ার্ড জিতেছে বিসিএস মনোনীত সদস্য প্রতিষ্ঠান এটিআই লিমিটেড।
এই সফরে বাংলাদেশের প্রতিনিধিরা ব্রাজিলে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মেদ মিজারুল কায়েস সঙ্গেও সাক্ষাত করেন। এ সময় আইসিটি খাতের প্রশংসা করে সার্বিক সহযোগিতা দেয়ার আশ্বাস দেন তিনি।
“ফুলফিলিং দ্য প্রমিজ অব দ্য ডিজিটাল এজ: চ্যালেঞ্জ অ্যান্ড অপারচুনিটিস” স্লোগানের এ সম্মেলনে বক্তৃতা, প্রদর্শনী, বিটুবি সভা ও বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রমের আয়োজন করা হয়েছিল। বিশ্বের ৮২টি দেশ থেকে প্রায় আড়াই হাজার এতে অংশগ্রহণ করেন। বিশ্ব স্বীকৃত ৬০ জনের অধিক আইটি বিশেষজ্ঞ,  ব্যবসায়ী, সরকারি কর্মকর্তা, উদ্যোক্তা, শিক্ষার্থীরা আধুনিক বিশ্ব এবং উন্নত ব্যবসা সম্পর্কে নিজেদের মতামত প্রদান করেন।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন