ঢাকায় তিন দিনব্যাপি স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলার উদ্বোধন

ঢাকায় তিন দিনব্যাপি স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলার উদ্বোধন

st expoদেশের ব্যবহারকারীদের আধুনিক স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট কম্পিউটার দেখার ও কেনার সুযোগ করে দিতে আজ (বৃহস্পতিবার) সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়েছে ‘টেকশহর ডটকম স্মার্টফোন ও ট্যাব এক্সপো ২০১৭’। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে তিনদিনব্যাপি এই মেলা চলবে শনিবার পর্যন্ত। প্রতিদিন মেলা চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত।
বিকেল ৪টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে মেলার উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। বিশেষ অতিথি ছিলেন থাইল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সৈয়দা মুনা তাসনীম।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হুয়াওয়ের বিপণন ব্যবস্থাপক লি ডং, স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক স্যাংওয়ান ইউন, এডিসন গ্রুপের (সিম্ফনি মোবাইল) বিপণন পরিচালক আশরাফুল হক, উই স্মার্ট সল্যুউশনের ব্র্যান্ডিং ও কমিউনিকেশন বিভাগের উপ-মহাব্যবস্থাপক মুনতাসির আহমেদ, এডাটার পরিবেশক গ্লোবাল ব্র্যান্ডের মহাব্যবস্থাপক সমীর কুমার দাস, অপ্পো বাংলাদেশ কমিউনিকেশন ইকুইপমেন্ট কো. লিমিটেডের মার্কেটিং ও ব্র্যান্ডিং বিভাগের প্রধান ব্রুস লি, শাওমি বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা দেওয়ান কানন, র‌্যাংগস ইলেক্ট্রনিক্স লিমিটেডের মার্কেটিং বিভাগের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক জানে আলম এবং এক্সপো মেকারের কৌশলগত পরিকল্পনাকারী মুহম্মদ খান।
সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবান্ধব নীতির কারনে দেশি বিদেশী প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতাদের নতুন গন্তব্যস্থল হিসেবে পরিচয় পেয়েছে বাংলাদেশ, মনে করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। তিনি বলেন, দেশের প্রযুক্তি পণ্য উৎপাদনের ৯৪ টি যন্ত্রাংশের উপর এক শতাংশ আমদানি শুল্ক ঘোষনা করার পরে দেশি প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বিদেশী প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো বাংলাদেশে পণ্য উৎপাদনে বিনিয়োগ বাড়াচ্ছে।
দৈনন্দিন জীবনে অত্যাধুনিক মুঠোফোনের ব্যবহার উল্লেখ করে পলক বলেন, দেশে বর্তমানে ১০ কোটি মুঠোফোন ব্যবহারকারীর মধ্যে পাঁচ কোটি স্মার্টফোন ব্যবহারকারী আছেন। প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠা থেকে শুরু করে ঘুমাতে যাওয়া পর্যন্ত প্রতিটি ক্ষেত্রে মোবাইল ফোনের ব্যবহার বৃদ্ধি পাওয়ায় এটি আমাদের শরীরের বিকল্প অঙ্গ হিসেবে অবদান রাখছে।
স্মার্টফোনের বাজার বিকাশে এক্সপো মেকারের আয়োজনের কথা উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সকল প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানকে এক যায়গায় নিয়ে এসে স্মার্টফোন এক্সপো আমাদের পণ্য যাচাইয়ের সুযোগ করে দিচ্ছে। ক্রেতারা প্রতিযোগিতামূলক দামে পছন্দের মুঠোফোনটি নিতে পারছেন।
বিশেষ অতিথি থাইল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সৈয়দা মুনা তাসনীম বলেন, বাংলাদেশের আইসিটি খাতে অগ্রগতি বহির্বিশ্বে প্রশংসা অর্জন করেছে। থাইল্যান্ডের সাথে পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়নে গুরুত্ব পাচ্ছে আইসিটি খাত। থাইল্যান্ড, কম্বোডিয়ার সাথে বাংলাদেশের আইসিটি ডিভিশন একটি উদ্যোগ নিচ্ছে। আশাকরি দেশের আইসিটির অগ্রগতিতে আমরাও অংশীদার হতে পারবো।
এক্সপো মেকারের আয়োজনে স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট কম্পিউটার নিয়ে দেশে এটা অষ্টম প্রদর্শনী। এবারের মেলায় বিশ্বখ্যাত সব ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট পাওয়া যাচ্ছে। অংশ নিয়েছে স্যামসাং, হুয়াওয়ে, সিম্ফনি, উই, অপ্পো, শাওমি, সনি র‌্যাংগস, আসুস জেনফোন, নকিয়া, লাভা, লিনেক্স, মাইক্রোম্যাক্স, লেনোভো, ডিসিএল, উইনম্যাক্স, গ্যাজেট অ্যান্ড গ্যাজেট, ডিটেল, এডাটা, আজকের ডিলসহ বিভিন্ন ব্র্যান্ড ও প্রতিষ্ঠান।
এক্সপো মেকারের কৌশলগত পরিকল্পনাকারী মুহম্মদ খান জানান, এবারের প্রদর্শনীতে বেশ কিছু নতুন পণ্য উন্মোচন করা হচ্ছে। প্রদর্শনী উপলক্ষে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো বিশেষ ছাড় ও উপহার দিচ্ছে। দর্শকরা প্রযুক্তির আধুনিক সব স্মার্ট ডিভাইস যাচাই বাছাই করে দেখতে ও কিনতে পারছেন। রয়েছে অন্যান্য আয়োজনও।
এবারের মেলার টাইটেল স্পন্সর দেশের আইসিটি ও টেলিকম বিষয়ক শীর্ষস্থানীয় নিউজ পোর্টাল টেকশহরডটকম। প্ল্যাটিনাম স্পন্সর হিসেবে রয়েছে স্যামসাং ও হুয়াওয়ে। গোল্ড স্পন্সর হিসেবে রয়েছে সিম্ফনি ও উই। সিলভার স্পন্সর হিসেবে রয়েছে এডাটা, অপ্পো, শাওমি ও সনি র‌্যাংগস। পার্টনার হিসেবে রয়েছে পিপলস রেডিও।
প্রতিবারের মতো এবারও মেলা উপলক্ষে স্মার্টফোন ও ট্যাব এক্সপোর অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজে (https://www.facebook.com/STExpo) ‘স্মার্ট চ্যাম্প কুইজ কনটেস্ট’-এর আয়োজন করা হয়েছে। এতে বিজয়ীরা হুয়াওয়ে, মাইক্রোম্যাক্স, লাভা ও লেনোভোর পক্ষ থেকে আকর্ষণীয় পুরস্কার জিততে পারবেন। এছাড়াও মেলার তিনদিন ‘সেলফি বাজ কুইজ কনটেস্ট’-এ পুরস্কার জেতার সুযোগ রয়েছে। যার স্পন্সর হিসেবে রয়েছে সিম্ফনি মোবাইল।
প্রদর্শনীর সব আপডেট ফেইসবুক পেইজ https://www.facebook.com/STExpo এবং দেশের আইসিটি ও টেলিকম বিষয়ক শীর্ষস্থানীয় নিউজ পোর্টাল টেকশহরডটকম (techshohor.com) -এ পাওয়া যাচ্ছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এই মেলা চলবে।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন