টেকনোক্র্যাট কোটায় মন্ত্রী হচ্ছেন মোস্তাফা জব্বার

টেকনোক্র্যাট কোটায় মন্ত্রী হচ্ছেন মোস্তাফা জব্বার

jabbarসরকারের শেষ বছরে মন্ত্রিসভায় পরিবর্তন আসছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ মন্ত্রী হচ্ছেন। রাজবাড়ী-১ আসনের কাজী কেরামত আলী ও লক্ষীপুর- ৩ আসনের সংসদ সদস্য বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা শাহাজাহান কামালও মন্ত্রিত্ব পাচ্ছেন বলে মন্ত্রিপরিষদ সূত্র জানিয়েছে। এছাড়া টেকনোক্র্যাট কোটায় মন্ত্রী হিসেবে মোস্তাফা জব্বারও বঙ্গভবনে ডাক পেয়েছেন বলে জানা গেছে।
কে কোন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাচ্ছেন তা জানাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন এসব ব্যক্তিরা। সরকারের পক্ষ থেকেও এ বিষয়ে কিছু বলা হয়নি। তবে আগামীকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় তাদের শপথ নেয়ার জন্য বঙ্গভবনে উপস্থিত থাকতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। এছাড়া আরও দু’একটি মন্ত্রণালয়ে রদবদল হতে পারে বলে জানা গেছে।
দেশের বিখ্যাত তথ্যপ্রযুক্তিবিদ মোস্তাফা জব্বার ১৯৪৯ সালের ১২ আগস্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আশুগঞ্জ থানার চর চারতলা গ্রামে নানার বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) সভাপতি। তিনি বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির (বিসিএস) সাবেক সভাপতি। তার প্রতিষ্ঠানের বিজয় বাংলা কিবোর্ড ১৯৮৮ সালে প্রকশিত হয় যা প্রথম বাংলা কিবোর্ড এবং ইউনিকোড আসার পূর্বপর্যন্ত বহুল ব্যবহৃত হয়েছে। তাকে কম্পিউটারে বাংলা ভাষা যুক্ত করার পথপ্রদর্শক মনে করা হয়।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র থাকাকালে মোস্তাফা জব্বার একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন। তিনি মুজিব বাহিনীর খালিয়াজুরি থানার সহ অধিনায়ক ছিলেন। তিনি ছাত্রলীগ নেতা ছিলেন। কয়েকজনের শপথ ছাড়াও মন্ত্রিসভায় আরও কিছু রদবদল আসতে পারে বলে বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে। তবে এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম কোনো কিছু জানাতে চাননি।
প্রসঙ্গত, বর্তমানে মন্ত্রিসভায় প্রধানমন্ত্রী ছাড়া ৩০ জন মন্ত্রী, ১৭ জন প্রতিমন্ত্রী ও ২ জন উপমন্ত্রী রয়েছেন। মন্ত্রী পদমর্যাদায় প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা রয়েছেন ৫ জন, মন্ত্রীর পদমর্যাদাসম্পন্ন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত রয়েছেন একজন। বিএনপির অংশগ্রহণবিহীন ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর ১২ জানুয়ারি শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী করে নতুন মন্ত্রিসভা গঠন করা হয়।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন