‘টাচস্ক্রিন ক্রোমবুক পিক্সেল’ গুগলের প্রথম নিজস্ব ক্রোম অপারেটিং সিস্টেমে চলবে

সার্চ জায়ান্ট প্রথমবারের মতো প্রকাশ করল স্পর্শকপর্দা সক্ষমতার ‘ক্রোমবুক পিক্সেল’ । প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব ক্রোম অপারেটিং সিস্টেমে চলবে এটি। নির্মাতা সুত্র জানিয়েছে, প্রচুর সংখ্যক উৎপাদন করা হয়েছে ‘ক্রোমবুক পিক্সেল’ আর পণ্যটির অভ্যন্তরীণ উপাদান তৈরি হয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন তথ্যপ্রযুক্তির প্রতিষ্ঠান থেকে।

ল্যাপটপটিতে দেওয়া হয়েছে ইন্টেলের স্যান্ডি ব্রিজ প্রসেসর, গতিশীল ফোরজি এলটিই সংযোগ এবং সর্বাধিক রেজ্যুলেশনের পর্দা। অ্যাপলের রেটিনা ডিসপ্লেকে টেক্কা দিতে এমন বৈশিষ্ট্য অন্তর্ভূক্ত হয়েছে এমন ধারণা করছে অনেকেই।

এদিকে বিশেষজ্ঞরা বলছে, বাজার শেয়ার তৈরিতে গুগল উদ্যমী অবস্থান থেকে অ্যাপল এবং মাইক্রোসফট অপারেটিং সিস্টেম চালিত পণ্যগুলোর বিপক্ষে নামাচ্ছে পণ্যটি।

এর কার্যবৈশিষ্ট্য পিসির কার্য সদৃশ্ নয় কারণ পিসিতে মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের মতো ইন্সটলকরা সফটওয়্যার ব্যবহার হয়। কিন্তু ক্রোম চালিত পণ্যগুলোর অ্যাপলিকেশন প্রতিষ্ঠানের ওয়েব ব্রাউজারের মাধ্যমে ব্যবহৃত হয় এবং ক্লাউড স্টোরে তথ্যাদি জমা করে।

নির্মাতা সুত্র মতে, আজকার সময়ে বাজারের কিছু পণ্য ডিসপ্লের মত পর্যাপ্ত পিক্সেল নিবিড়ভাবে দেওয়া হয়েছে এতে। যাতে ব্যবহারকারীরা অভ্যাসগত দুরুত্ব থেকে পর্দায় দৃষ্টিপাতকালে প্রয়োগকৃত পিক্সেল বা ক্ষুদ্র বিন্দু দৃষ্টিতে না পড়ে। সেই লক্ষ্যে ৪.৩ মিলিয়ন পিক্সেল একত্রিত হয়েছে ক্রোমবুক ডিসপ্লেতে।এছাড়া প্রশস্ত-কোণ থেকে দেখার সুবিধা, নিঁখুত স্বচ্ছ লেখা, অত্যুজ্জল অসংখ্য রঙে প্রদর্শিত হবে অবজেক্ট।

প্রসঙ্গত, ক্রোমবুকে সার্বজনীন গ্রাহক আগ্রহ তৈরির লক্ষ্যে এ যাবৎ গুগল প্রচুর শ্রম দিয়েছে। গুগল আরও বলেন, স্পর্শে মানসম্মত কিছু পাওয়ার প্রত্যাশীদের আরো আবিষ্ট এবং ভাল অভিজ্ঞতা দেওয়ার লক্ষ্যে উন্নত ও মনোরম পর্দায় স্পর্শক প্রযুক্তি যুক্ত করা হয়েছে।

About বিদ্যুৎ বিশ্বাস

একটি উত্তর দিন