জমে উঠেছে চট্রগ্রাম ই-বাণিজ্য মেলা

জমে উঠেছে চট্রগ্রাম ই-বাণিজ্য মেলা

দর্শক সমাগম আর বিকি-কিনির মধ্য দিয়ে জমে উঠেছে চট্রগ্রামে অনুষ্ঠিত ঈদ ই-বাণিজ্য মেলা। শুক্রবার মেলার দ্বিতীয় দিনে দর্শনার্থীদের উপস্থিতি ছিল ব্যাপক। ছুটির দিন হওয়ায় স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি ছিল বেশি। অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের বিভিন্ন পণ্য ও সেবা প্রদর্শণের পাশাপাশি বিভিন্ন অফার অব্যহত রেখেছেন।

কমপিউটার জগৎ এর উদ্যোগে ঢাকা ও সিলেটে ই-বাণিজ্য মেলা সফলভাবে সম্পন্ন করার পর গতকাল (বৃহষ্পতিবার) থেকে দেশের বাণিজ্যিক রাজধানী চট্রগ্রামে শুরু হয় ঈদ ই-বাণিজ্য মেলা ও ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা। ‘ঘরে বসে কেনাকাটার উৎসব’ শ্লোগান নিয়ে আয়োজিত এ মেলা চট্রগ্রামের এম এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনেশিয়ামে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ও চট্রগ্রাম জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ডিজিটাল বাংলাদেশ বির্নিমানে সহায়ক ‘চট্রগ্রাম ঈদ ই-বাণিজ্য মেলা ২০১৩ ও ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা’ এর আয়োজনে সহযোগিতা করছে মাসিক ‘কমপিউটার জগৎ’। তিনদিনব্যাপি এ মেলার পর্দা নামবে আগামীকাল শনিবার।

E-commerce Fair 2nd day 1

শুক্রবার বিকেলে চট্রগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘রোবোমেকাক্ট্রনিক্স অ্যাসোসিয়েশন’ এর উদ্ভাবিত বায়োপ্যাডল রোবট, ইমার্জেন্সি মেডিকহেল্প অ্যাপ্লিকেশন, সাইন ল্যাঙ্গুয়েজ কনভার্ট অ্যাপসসহ বেশ কয়েকটি প্রকল্প প্রদর্শিত হয়। দর্শনার্থীদের মূল আকর্ষন ছিলো ই-বাণিজ্য সাইটগুলো থেকে কিভাবে সহজে কেনাকাটা করা যায় সেটি দেখা।

মেলায় প্রথমদিনের মতোই পণ্য ও সেবাপ্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোতে কেনাকাটায় বিভিন্ন ছাড় ও উপহার অব্যহত রয়েছে। ই-বাণিজ্য সাইট আপনজোন ডটকমের চলছে কুইজ প্রতিযোগিতা। দর্শনার্থীরা ই-বাণিজ্য সম্পর্কিত প্রশ্নের উত্তর দিয়ে জিতে নিতে পারছেন আকর্ষনীয় পুরস্কার। মাত্র ৫ হাজার ৯৯৯ টাকায় থ্রিজি সমর্থিত অ্যান্ড্রয়েড জেলিবিন অপারেটিং সিস্টেমের ৭ ইঞ্চি ট্যাবলেট পাওয়া যাচ্ছে। ই-বাণিজ্য মেলা উপলক্ষ্যে বেচাবিক্রি ডটকম সাইটে যেকোনো পণ্য ক্রয়ে থাকছে ২০ শতাংশ ছাড়। এছাড়া ই-বাণিজ্য প্রতিষ্ঠানগুলো পোশাক, ইলেক্ট্রনিক্স পণ্যসহ অনলাইনে বিক্রি করা যায় এমনসব পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রি করছে। মেলায় অংশ নেওয়া সরকারি ও বাণিজ্যিক ১৯টি ব্যাংক তাদের বিভিন্ন সেবা প্রদর্শন করছেন। এসব সেবার মধ্যে রয়েছে মোবাইল ব্যাংকিং, অনলাইন পেমেন্ট, এসএমএস ব্যাংকিং ইত্যাদি। মেলাতেই আগ্রহীরা এসব ব্যাংকের হিসাব চালু করতে পারছেন। মেলার অংশ হিসেবে প্রতিদিন সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজিত হচ্ছে।
মেলায় পণ্য প্রদর্শণ ও কেনাবেচা কেমন হচ্ছে এ বিষয়ে আপনজোন ডটকমের প্রধান নির্ভাহী আসিফ আনাফ বলেন, মেলায় দর্শনার্থীদের উপস্থিতি ভালোই। আমাদের বেশ কয়েকটি পণ্যও বিক্রি হয়েছে। তবে প্রচারণা আরো ভালো হলে কেনাবেচা আরো ভালো হতো।

মেলায় আসা ব্যবসায়ী সৈকত আহমেদ বলেন, মেলায় এসে ভালোই লাগছে। এখানে এসে বুঝতে পারছি ই-বাণিজ্যে বাংলাদেশ অনেকাংশে এগিয়ে গেছে। আগে ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে অনলাইনে পণ্য বা সেবা কিনতে হতো, এখন ডেবিট কার্ডের মাধ্যমেই সেই কাজটি সম্ভব হচ্ছে। এ ধরণের মেলা দেশের বিভিন্ন স্থানে নিয়মিত আয়োজনের প্রয়োজন রয়েছে। তাহলে দেশের ই-বাণিজ্য প্রসারিত হবে। চট্রগ্রামে এ ধরণের আয়োজন করায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়, জেলা প্রশাসন ও কমপিউটার জগৎকে অনেক অভিনন্দন জানান তিনি।

তিনদিনব্যাপি এই মেলার পর্দা নামবে আগামীকাল। বিকেলে সমাপনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক অনু।

তিনদিনব্যাপি এই মেলায় ই-কমার্সের সঙ্গে জড়িত দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য ও সেবা সাধারণ মানুষের সামনে তুলে ধরছে। মেলায় মোট ৫২টি স্টলে ৫১টি প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য ও সেবা প্রদর্শন করছে। মেলা উপলক্ষে পণ্য ও সেবা ক্রেতাদের জন্য বিশেষ সুযোগ যেমন থাকছে, তেমনি এ বিষয়ে সচেতনতা গড়ে তুলতে বিভিন্ন ধরণের আয়োজন রয়েছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তাদের পন্য ক্রয়ে ছাড় ও উপহারের ঘোষনা দিয়েছে।

আয়োজকরা জানান, ঈদ ই-বাণিজ্য মেলার স্পন্সর হিসেবে রয়েছে এস আলম গ্রুপ। মিডিয়া পার্টনার হিসেবে রয়েছে রেডিও টুডে, সময় টেলিভিশন, সিসিএল ও দৈনিক আজাদী। এছাড়া নেটওয়ার্কিং পার্টনার হিসেবে চট্রগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নলেজ পার্টনার হিসেবে সার্দান ইউনিভার্সিটি, কমিউনিকেশন পার্টনার আপনজন ডটকম, ব্লগ পার্টনার হিসেবে সামহোয়্যার ইন ব্লগ এবং ইন্টারনেট পার্টনার হিসেবে রয়েছে এফএনএফ।

আয়োজকেরা জানান, এবারের মেলাকে সহজে তরুণ প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য সামাজিক যোগাযোগের সাইট ফেসবুকের মাধ্যমে মেলার বিভিন্ন আপডেট প্রকাশ করা হচ্ছে। আপডেট পেতে www.facebook.com/ECommerceFair ঠিকানার পেজ লাইক করতে হবে। এ ছাড়া মেলার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.e-commercefair.com থেকেও জানা যাবে প্রয়োজনীয় তথ্য। তিন দিনব্যাপী এ মেলার অনুষ্ঠানাদি www.comjagat.com ওয়েবসাইটে সরাসরি সম্প্রচার করা হচ্ছে।

মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টায় শুরু হয়ে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে। মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। হ্রাসকৃত মূল্যে বিভিন্ন পণ্য কেনা যাবে।

About বদরুদ্দোজা মাহমুদ তুহিন

একটি উত্তর দিন