গ্রামীণফোনের ১৮তম এজিএম অনুষ্ঠিত

গ্রামীণফোনের ১৮তম এজিএম অনুষ্ঠিত

GP_agmগ্রামীণফোনের ১৮তম বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (২১ এপ্রিল’২০১৫) বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। গ্রামীণফোন বোর্ডের চেয়ারম্যান সিগভে ব্রেক্কে এবং সিইও রাজিব শেঠি, অন্যান্য বোর্ড সদস্য এবং কোম্পানির উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। এজিএম পরিচালনা করেন কোম্পানি সেক্রেটারি হোসেন সাদাত। গ্রামীণফোন শেয়ারবাজারে তালিকাভূক্ত হবার পর এটি ছিল ৬ষ্ঠ এজিএম।
চেয়ারম্যান তার ভাষণে কোম্পানির উপর আস্থা রাখার জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ধন্যবাদ জানান এবং বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ শিল্পের সম্ভাবনা, নিয়ন্ত্রণগত অনিশ্চয়তা, সবার কাছে ইন্টারনেট পৌঁছে দিতে গ্রামীণফোনের লক্ষ্য ইত্যাদি বিষয়ে বক্তব্য রাখেন। এছাড়াও সিইও কোম্পানির পরিচালনাগত ও আর্থিক সাফল্যের কথা এবং সফলভাবে থ্রিজি চালু করার কথা উল্লেখ করেন।
একইদিন গ্রামীণফোনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
সভায় প্রস্তাবিত স্পেকট্রাম নিলাম সম্পর্কে চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমরা এখনো আশা করছি যে ১৮০০ মেগাহার্জ স্পেকট্রাম নিলাম প্রযুক্তি নিরপেক্ষ হবে এবং নিলাম নীতিমালার যে শর্তটি গ্রামীণফোনের অংশগ্রহণে বাধা সৃষ্টি করছে তা বাতিল করে গ্রামীণফোনকে নিলামে অংশ নেওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে। তবে আমাদের বিনিয়োগকারীগণ সিম রিপ্লেসমেন্ট করের দাবি, প্রযুক্তি নিরপেক্ষতা, জাতীয় টেলিযোগাযোগ নীতি নবায়নসহ দীর্ঘমেয়াদী সমস্যার সমাধান না হলে নিলামে অংশ না নেওয়ার বিষয়ে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা বহাল থাকবে।
গ্রামীণফোন ২০১৪ সালে ৯৫ শতাংশ নগদ অন্তবর্তী লভ্যাংশ প্রদান করে। গ্রামীণফোনের বোর্ড আরো ৬৫ শতাংশ নগদ চূড়ান্ত লভ্যাংশ সুপারিশ করে। ফলে মোট লভ্যাংশের পরিমাণ দাঁড়ায় পরিশোধিত মূলধনের ১৬০ শতাংশ(শেয়ার প্রতি ১৬ টাকা)। শেয়ারহোল্ডারগণ ২০১৪ সালের জন্য সুপাশিরকৃত লভ্যাংশ অনুমোদন করেন। পূর্ববর্তী বছরগুলোর মতো এবছরও গ্রামীণফোন দ্রুততার সঙ্গে অনলাইনে শেয়ারহোল্ডারদের মধ্যে লভ্যাংশ বিতরণ করবে।
এজিএম এর অন্যান্য কর্মকাণ্ডের মধ্যে ছিল ডিরেক্টরস রিপোর্ট ও ২০১৪ এর নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন গ্রহণ, ডিরেক্টর নির্বাচন/পুন:নির্বাচন এবং অডিটর নিয়োগ।
টেলিনর গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠা গ্রামীণফোন ৫১ মিলিয়নের বেশি গ্রাহক নিয়ে বাংলাদেশের অগ্রণী টেলিযোগাযোগ প্রতিষ্ঠান। ১৯৯৭ সালে যাত্রা শুরু করার পর দেশব্যাপী সর্ববৃহৎ নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা গড়ে তুলেছে গ্রামীণফোন যার মাধ্যমে দেশের ৯৯ শতাংশ মানুষ সেবা গ্রহন করতে পারে। ব্র্যান্ড প্রতিজ্ঞা “চলো বহুদূর” এর আওতায় গ্রামীণফোন, গ্রাহকদের জন্য সর্বোত্তম মোবাইল ডাটা, ভয়েস সেবা এবং সবার জন্য ইন্টারনেট দিতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন