গ্রামীণফোনের ডিজিটাল ওয়ালেট ‘জিপে’ সেবা চালু

গ্রামীণফোনের ডিজিটাল ওয়ালেট ‘জিপে’ সেবা চালু

gpayনতুন ব্র্যান্ড নেমে ফের ওয়ালেট সেবা চালু করেছে গ্রামীণফোন। সব ধরনের পেমেন্ট সেবা ডিজিটাল ও স্মার্ট পদ্ধতিতে পাওয়া যাবে ‘জিপে’র মাধ্যমে।
বিদ্যুৎ, গ্যাস ও পানিসহ গৃহস্থালির অন্যান্য বিল পরিশোধ (ইউটিলিটি বিল), ট্রেনের টিকিট কেনা, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট অথবা মোবিক্যাশ অাউটলেট থেকে মোবাইলে টাকা ঢোকানো যাবে ‘জিপে’ সুবিধা ব্যবহার করে।
সোমবার (২৪ অক্টোবর) বিকেলে রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে ‘জিপে’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গ্রামীণফোনের হেড অব মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস’র এর ওয়ান গিলেবার্ট, হেড অব কমিউনিকেশন নেহাল আহমেদ এবং চিফ করপোরেট অফিসার মাহমুদ হোসেন।
এসব সেবা পেতে গ্রাহক যেকোনো মোবিক্যাশ আউটলেট অথবা নির্বাচিত সহযোগী ব্যাংক, ডিবিবিএল রকেট মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট, এবি ব্যাংক কোর ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট এবং ইসলামী ব্যাংক এমক্যাশ অ্যাকাউন্ট অথবা ইন্টারনেট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে জিপে ওয়ালেটে টাকা ঢোকাতে পারবেন।
এর ওয়ান গিলেবার্ট বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে নগদ অর্থবিহীন লেনদেন ব্যবস্থা গড়ে ওঠা প্রয়োজন। বিশেষত, প্রত্যন্ত অঞ্চলের অধিবাসীদের জন্য ডিজিটাল নাগরিক কেন্দ্রিক সেবাদানে বাংলাদেশকে একধাপ এগিয়ে নিতে গ্রামীণফোনের জিপে ওয়ালেট অ্যাপটি ভূমিকা রাখবে।
তিনি বলেন, জিপে সেবার কারণে ইউটিলিটি বিল বা ট্রেনের টিকিটের জন্য গ্রাহককে আর লম্বা লাইনে দাঁড়াতে হবে না। দিন রাত ২৪ ঘণ্টা তারা যেকোনো জায়গা থেকে শুধুমাত্র আঙুলের স্পর্শেই এটা করতে পারবেন।
জিপে চালু করতে *৭৭৭# ইউএসডি ডায়াল করে অথবা গুগল প্লেস্টোর থেকে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করে অথবা মেসেজ অপশনে গিয়ে ‘Reg’ লিখে পাঠাতে হবে ১২০০ নম্বরে। অথবা মোবিক্যাশ আউটলেটের মাধ্যমে গ্রাহকরা সহজেই জিপে ওয়ালেট খুলতে পারবেন।
জিপে অ্যাপ ব্যবহার করতে ইন্টারনেট সংযোগের প্রয়োজন হবে। তবে গ্রামীণফোন গ্রাহকরা এ অ্যাপ্লিকেশনটি কোনো ডাটা খরচ ছাড়াই ব্যবহার করতে পারবেন। ট্রাস্ট অ্যাকাউন্ট, ট্রেজারি ম্যানেজমেন্ট ও রেগুলেটরি রিপোর্টিংয়ের ক্ষেত্রে জিটি স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের সঙ্গে কাজ করছে।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন