গ্যালাক্সি এস৪ জীবনের হালচিত্র বদলাবে

জীবনের হালচিত্র বদলাবে গ্যালাক্সি এস৪

প্রযুক্তির উৎকর্ষে পৃথিবী চলে আসছে হাতের মুঠোয়। ইন্টারনেটের যুগে এটা বলাটা সহজ। কারন হাতের মুঠোয় এখন স্মার্টফোন। স্মার্টফোনে কি নেই সেটা বের করাটাই একটি কঠিন কাজ। সবার হাতে হাতে যখন স্মার্টফোন তখন পুরো পৃথিবী ছোট পর্দায় নিয়ন্ত্রন যোগ্য।

স্মার্টফোন বাজারে নতুন আলোড়ন সৃষ্টিকারকের নাম স্যামসাং গ্যালাক্সী এস৪। নতুন এস সেটটি আনার বেশ কিছু দিন আগ থেকেই স্যামসাং বিশাল মার্কেটিং করেছে। অনেকের মধ্যেই এটি তখন থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছিল জল্পনা কল্পনা।

অবশেষে সকলের প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়ে গত ১৪ মার্চ যুক্তরাষ্ট্রে জমকালো রঙিন পর্দায় ভেসে ওঠে গ্যালাক্সি এস৪। স্মার্টফোন বাজারে যুক্ত হয় নতুন সেট। প্রতিদ্বন্দী হিসাবে আরও একধাপ এগিয়ে যায় স্যামসাং।

গ্যালাক্সী এস৪ সেটটিতে রয়েছে অ্যানড্রইড সংস্করণের সবশেষ জেলি বিন অপারেটিং সিস্টেম। এপ্রিলের শেষ থেকে বিশ্বব্যাপী এটির বিপণন শুরু হবে। দামের হিসাবে ভারতীয় রুপিতে ৪০ হাজার, ডলারে ২৩৫ ডলারের কাছাকাছি।

গ্যালাক্সী এস৪ প্রসঙ্গে স্যামসাং ইলেকট্রনিক্সের প্রধান জে কে শিন বলেন, শুরু থেকেই জীবনধর্মী পণ্য তৈরিতেই স্যামসাং কাজ করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে। শুধু একটি স্মার্টফোনই প্রতিদিনের জীবনের হালচিত্র বদলে দিতে পারে তার নমুনা গ্যালাক্সি এস৪ মডেলেই পাওয়া যাবে।

তিনি আর বলেন, সেটটিকে ‘লাইফ কম্পানিওন’ হিসেবে ভোক্তাদের সামনে তুলে ধরা হচ্ছে। সিঙ্গাপুর এবং ভারতের বাজার দিয়েই এশিয়ায় প্রবেশ করবে প্রথম তালিকার গ্যালাক্সি এস৪।

অ্যানড্রইড ৪.২ সংস্করণ মোবাইল অপারেটিং এবং সবচেয়ে নতুনত্ব এসেছে টাচউইজ ইউজার ইন্টারফেসে। এ বিশেষ ফিচারের মাধ্যমে কোনো স্পর্শ ছাড়াই শুধু হাত আর চোখের ইশারা দিয়েই প্রয়োজনীয় সব কাজই করা সম্ভব। চলমান ভিডিও কিংবা ওয়েব পেজের পৃষ্ঠা পরিবর্তনে শুধু চোখ দিয়েই ছবি স্থির এবং পাতা উল্টানো যাবে সহজেই।

গ্যালাক্সি এস৪ মডেলের কারিগরি বৈশিষ্ট্যের মধ্যে আছে এক্সিনোস ৫৪১০ প্রসেসর। এটি ৮টি চ্যানেলে এ ফোনকে পরিচালিত করে থাকে। গতি ১.৮ গিগাহার্টজ। ২ জিবি ডিডিআরথ্রি র‌্যাম। মূল পর্দা ৪.৯৯ ইঞ্চি। সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে। ফুল এইচডি (১৯২০ বাই ১০৮০ পিক্সেল) রেজ্যুলেশন। রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

About বিদ্যুৎ বিশ্বাস

একটি উত্তর দিন