কিভাবে শিখবেন ফরেক্স ও ফরেক্স অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম

কিভাবে শিখবেন ফরেক্স ও ফরেক্স অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম

ফরেক্স ট্রেডিং  নিয়ে সবকিছু আমি আমার লেখায় তুলে ধরার চেষ্টা করেছি , এ জন্য লেখাটি একটি ব্লগপোস্টের হিসাব অনুযায়ী বেশি বড় হয়ে যাওয়ায় লেখাটিকে কয়েকটি ভাগে ভাগ করে আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম , আপনাদের সুবিধার জন্য ।ফরেক্স ট্রেডিং নিয়ে আপনি যেটা জানতে চান সেটাই পড়ুন –

**************************************************************************************************

ফরেক্স মার্কেট এর সাথে পরিচিত হয়ে নিন

জেনে নিন ফরেক্সে ক্যারিয়ার ও কাজের কৌশল

কিভাবে শিখবেন ফরেক্স ও ফরেক্স অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম

ফরেক্স মার্কেটের প্রধান মুদ্রাগুলোর সাথে পরিচিত হয়ে নিন

ফরেক্স সম্পর্কিত কিছু terms এর সাথে পরিচিত হয়ে নিন

জেনে নিন কখন ফরেক্স করবেন এবং ট্রেডিংয়ের উপযুক্ত ও খারাপ সময়

ফরেক্স কাদের জন্য ও কাদের জন্য নয়

ফরেক্সে কিভাবে আয় করা যায় ও এর লাভক্ষতির হিসাব

ফরেক্স ট্রেডিংয়ের সুবিধা ও অসুবিধা

**************************************************************************************************

ফরেক্স শিখবেন কিভাবে? 

আমাদের দেশে ফরেক্স শেখার ভালো কোনো কোচিং বা প্রতিষ্ঠান এখন পর্যন্ত গড়ে ওঠেনি। ইন্টারনেটে ফোরাম, বিভিন্ন ওয়েবসাইট ও ব্লগগুলোতে নজর রাখলেই আপনার জ্ঞানের ভান্ডার সমৃদ্ধ হবে। আলাদা কোচিং করে টাকা ও সময় নষ্ট করার কোনো অর্থ হয় না। পত্রপত্রিকায় যেসব ফরেক্স শেখানোর বিজ্ঞাপন দেয়া হয়, সেগুলোর শিক্ষার মান কেমন, তা সঠিক করে বলা সম্ভব নয়। কারণ, ফরেক্স শেখার জন্য নিজেই নিজের শিক্ষক হতে হবে প্রথমে, মনেপ্রাণে পণ করতে হবে আপনি এ ব্যবসায় সফল হয়েই ছাড়বেন। এরপর লাগবে সঠিক দিকনির্দেশনা, এরপর ফরেক্স নিয়ে স্টাডি ও অ্যানালাইসিস, আরো লাগবে দক্ষ ট্রেডারদের সাথে সমস্যা নিয়ে আলোচনা করা এবং তাদের পরামর্শ অনুযায়ী কাজ করা। সব শেষে থাকতে হবে কঠোর পরিশ্রম করার ও ধৈর্য ধরে রাখতে পারার মনোভাব। ফরেক্স শেখানোর জন্য বেশ কিছু বাংলা ওয়েবসাইট ও ব্লগ খুঁজলেই পাবেন। এর মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য কয়েকটি হচ্ছে : www.bdpips.com ও www.outsourcingbd.com। বিডিপিপস বাংলাদেশের প্রথম ফরেক্স ফোরাম ও ফরেক্স স্কুল, যেখানে পর্যায়ক্রমে ফরেক্সের ব্যাপারে আলোচনা করা হয়েছে। ইংরেজি ওয়েবসাইটের মধ্যে ফরেক্স শেখার বেশ ভালো একটি সাইট হচ্ছে : www.babypips.com।

ফরেক্স অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম

এটি অনেকটা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলার মতো ব্যাপার। ব্রোকার বাছাই করে তাদের কোম্পানিতে অ্যাকাউন্ট খোলার সময় যে ফর্ম পাবেন তাতে আপনার নাম, ঠিকানা, বয়স, ই-মেইল অ্যাড্রেস, ফোন নাম্বারসহ আরো কিছু তথ্য দিতে হবে। কিছু ব্যতিক্রম ব্যাপারের মধ্যে রয়েছে :

০১. সোয়াপ (Swap) : 
এটি হচ্ছে সুদ। বিভিন্ন দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সুদের হারের ওপরে ভিত্তি করে আপনার ট্রেডে আপনাকে সুদ দেয়া হবে বা আপনার কাছ থেকে নেয়া হবে। মুসলমানদের জন্য সুদ নেয়া বা দেয়া হারাম। তাই যারা সুদের কারবার করতে না চান তারা এ অপশন সিলেক্ট করবেন না।

০২. লেভারেজ : 
আগেই বলা হয়েছে এ ব্যাপারে। কত অনুপাতে লোন নিতে চান, তা এখানে নির্ধারণ করে দিতে হয়। আপনার পুঁজি বেশি হলে লেভারেজ না নেয়াই ভালো। পুঁজি কম হলে লেভারেজ নিতে পারেন। তবে বেশি নেবেন না। ১:৫০-১:২০০-এর চেয়ে বেশি লেভারেজ নেয়াটা বুদ্ধিমানের কাজ নয়।

০৩. অ্যাকাউন্ট কারেন্সি :
কোন কারেন্সিতে আপনি অ্যাকাউন্ট পরিচালনা করবেন তা সিলেক্ট করতে হবে। এখানে মার্কিন ডলার বা ইউএস ডলার সিলেক্ট করাটাই ভালো এবং

০৪. অ্যাকাউন্ট টাইপ : 
আপনার পুঁজির ওপরে নির্ভর করবে আপনার অ্যাকাউন্টের আকার কিরকম হবে। এটি মাইক্রো, মিনি ও স্ট্যান্ডার্ড এ ধরনের ভাগে বিভক্ত থাকতে পারে।

কিছু অ্যাকাউন্ট শুধু মেইল ভেরিফিকেশনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকে না। এরা ভেরিফাই করার জন্য আরো কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করে থাকে। তাই আপনাকে আপনার পাসপোর্ট নাম্বার, ড্রাইভিং লাইসেন্স, ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ফটোকপি এবং ঠিকানা ভেরিফিকেশন করার জন্য বিদ্যুৎ/গ্যাস/পানি বা মোবাইল/ ইন্টারনেটের বিল অথবা ব্যাংক স্টেটমেন্টের স্ক্যান করা কপিও দেয়ার প্রয়োজন পড়তে পারে। অ্যাকাউন্ট ভেরিফিকেশন না করে ডিপোজিট করা উচিত নয়।

কাজ শুরু করবেন কিভাবে? 

ফরেক্সের জগতে প্রবেশের জন্য আপনাকে প্রথমে ভালো দেখে একটি ব্রোকার কোম্পানিতে অ্যাকাউন্ট খুলে নিতে হবে। তারপর তাতে কিছু অর্থ ডিপোজিট বা জমা করতে হবে। অনলাইনে অ্যাকাউন্ট খুব সহজেই খুলে ফেলতে পারবেন ব্রোকারের দেয়া ফর্ম পূরণের মাধ্যমে। ব্যাংক অ্যাকাউন্টসহ আপনি আপনার অনলাইন অ্যাকাউন্ট যেমন : PayPal, Alert Pay, Liberty Reserve, Money Bookers, Neteller, WebMoney, Western Union, MoneyGram বা ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড থেকেও ডিপোজিট করতে পারেন। আপনার পুঁজি কিভাবে ডিপোজিট করবেন তা নির্ভর করে ব্রোকারের ওপরে, তারা কী ধরনের মানি ট্রান্সফার পদ্ধতি সাপোর্ট করে সে অনুযায়ী আপনাকে ডিপোজিট করতে হবে। ডিপোজিটের ব্যাপারে কী করতে হবে, তা ব্রোকারের সাইটে বিস্তারিত লেখা থাকে, তাই চিন্তার কোনো কারণ নেই। অ্যাকাউন্টে আপনার পুঁজি জমা হলেই আপনি সে অর্থ দিয়ে ট্রেড শুরু করতে পারবেন। ফরেক্সে ট্রেড করার জন্য ট্রেডিং সফটওয়্যার ব্যবহার করতে হয়। ব্রোকারের সাইটেই এ ধরনের সফটওয়্যার দেয়া থাকে, যা আপনি বিনামূল্যে ডাউনলোড করে নিয়ে কাজ করতে পারেন। সেক্ষেত্রে সফটওয়্যার ইনস্টল করার পর ব্রোকারের কাছ থেকে পাওয়া ইউজার নেম ও পাসওয়ার্ড দিয়ে তাতে লগইন করতে হবে। বেশিরভাগ ব্রোকার মেটাট্রেডার নামের একটি সফটওয়্যার ব্যবহার করে থাকেন।

ডেমো ট্রেডিং 

নতুনদের জন্য ডেমো ট্রেডিং অত্যাবশ্যক। ব্রোকারের সাইটে অ্যাকাউন্ট খোলার পর রিয়েল ট্রেডিং না করে আপনি ডেমো ট্রেডিং করার অপশন পাবেন। সেখানে তারা কিছু ভার্চুয়াল মানি দেবে আপনাকে ট্রেড করার জন্য। কিন্তু মার্কেটের ডাটা বা কারেন্সি এক্সচেঞ্জ রেট আসল হবে। আসল মার্কেটে নকল অর্থ ব্যবহার করে ট্রেড করতে হবে। ট্রেড করে আপনি কতটা লাভ বা লোকসান করেন তা পর্যালোচনা করলেই বুঝতে পারবেন ফরেক্সে আপনার দক্ষতা কতটুকু। ডেমো ট্রেডিংকে ফরেক্সে আপনার প্রাথমিক অভিজ্ঞতা বলতে পারেন। ফরেক্সে ভালো করতে চাইলে ২-৩ মাস ডেমো ট্রেডিং করুন এবং নিজের অবস্থান ভালো থাকলে তবেই রিয়েল ফরেক্স ট্রেডিংয়ে নামুন।

ডিপোজিট না করেই ট্রেড করার উপায়

যারা নতুন তারা ডেমো ট্রেডিং শেষে ডিপোজিট করতে অনেকেই সমস্যায় পড়েন। কারণ, তাদের ডিপোজিট ট্রান্সফার করার উপায় জানা থাকে না বা করতে পারেন না। এমন ট্রেডারদের জন্য কিছু ব্রোকার কোম্পানি বোনাস ডিপোজিটের ব্যবস্থা রেখেছে, যারা বিভিন্ন ধরনের বোনাস দিয়ে থাকে। বোনাস দেয়া ডিপোজিট উঠানো যাবে না, কিন্তু লাভ করা অর্থ উঠানো যাবে। নিচে এমন কিছু ব্রোকারের নাম ও বোনাসের পরিমাণ দেয়া হলো :

লাইটফরেক্স (liteforeX.com)….. :…….. ২০০ ডলার
পাক্সফরক্সে (paXforeX.com)…. :……১০০ ডলার
ট্রেডিং পয়েন্ট (trading-point.com):……২৫ ডলার
রোবোফরেক্স (roboforeX.com)..:………১৫ ডলার
নর্ডএফএক্স (nordfX.com) …… :………৮ ডলার
মার্কেটিভা (marketiva.com)…. :………৫ ডলার
ফরেক্সসেন্ট (foreXcent.com)… :………৫ ডলার

About blogger - ব্লগার