কর পরিশোধে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের ই-পেমেন্টব্যবস্থা চালু

অনলাইনে কর পরিশোধে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে (এনবিআর) ই-পেমেন্টব্যবস্থা চালু হয়েছে।
‘যেকোনো সময় যেকোনো স্থান থেকে’ স্লোগানকে সামনে রেখে চালু হয়েছে ই-পেমেন্ট ব্যবস্থা। এ ব্যবস্থা চালু হওয়ার কারনে করদাতারা ঘরে বসেই কর পরিশোধ করতে পারবেন। প্রাথমিক অবস্থায় ২৬টি ব্যাংকের মাধ্যমে সপ্তাহের সাত দিনই যেকোনো সময় এ পদ্ধতিতে কর পরিশোধ করা যাবে।

এতে সমন্বয়কের ভূমিকায় থাকবে এনবিআর, বাংলাদেশ ব্যাংক, সোনালী ব্যাংক ও মহাহিসাব নিরীক্ষকের অফিস (সিএজি)।

অনলাইনে কর পরিশোধ পদ্ধতিতে ‘প্রসেসরের’ ভূমিকায় থাকবে কিউ-ক্যাশ। এনবিআর নির্ধারিত যেকোনো ব্যাংকে ক্রেডিট, ডেবিট বা ভিসা কার্ডের মাধ্যমে অর্থ পরিশোধ করলে তা এনবিআরে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির নামে জমা হবে। এ পদ্ধতি বাস্তবায়নে অর্থায়ন করছে বিশ্বব্যাংকের সহযোগী সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স করপোরেশন (আইএফসি)।

ই-পেমেন্টের সমন্বয়ক ও এনবিআরের কর পরিদর্শন পরিদফতরের মহাপরিচালক কানন কুমার রায় বলেন, রাজস্ব বোর্ড সচেতনতা বাড়ানোর পাশাপাশি করভীতি দূর করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় ই-পেমেন্ট চালু হয়েছে। এটি পুরোপুরি বাস্তবায়িত হলে করদাতারা হয়রানি মুক্তভাবে কর দিতে পারবেন। কর পরিশোধের পর রিটার্ন জমা দেয়ার সময় করদাতাদের ই-পেমেন্টে কর পরিশোধের চালানের নম্বর এনবিআরে জমা দিতে হবে। প্রবাসীরাও বিশ্বের যেকোনো স্থান থেকে এ ব্যবস্থায় কর দিতে পারবেন।

ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় এটি আর একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। পর্যায়ক্রমে দেশের সর্বস্তরে চালু হোক এই ই-পেমেন্ট ব্যবস্থা। নানা বর্ণের দূর্নীতি রোধেও এই ব্যবস্থা ভূমিকা রাখবে। তথ্য প্রযুক্তিতে সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান প্রাণন লি: প্রযুক্তির এই সর্বোচ্চ ব্যবহারকে কাজে লাগিয়ে একটি সুন্দর বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন দেখে। প্রযুক্তিগত ভাবে বাংলাদেশ আরো সমৃদ্ধ এবং পাশাপাশি প্রযুক্তিভিত্তিক বিপুল কর্মসংস্থান তৈরির কাজ করে যাচ্ছে প্রাণন।

About sultanratan

একটি উত্তর দিন