একনেকে আইডিয়া প্রকল্প অনুমোদন

একনেকে আইডিয়া প্রকল্প অনুমোদন

ecnecতথ্যপ্রযুক্তি-ভিত্তিক উদ্ভাবন, সম্ভাবনাময় উদ্যোক্তাদের সিড ফান্ড প্রদান ও ভেঞ্চার ক্যাপিটাল প্রাপ্তিতে সহায়তা করা এবং গবেষণা ও উন্নয়নের মাধ্যমে নতুন নতুন পণ্য ও সেবা সৃষ্টি করতে ইনোভেশন ডিজাইন এন্ট্রাপ্রেরিনিউরশিপ একাডেমি নামে একটি নতুন প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে একনেক।
মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপার্সন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্য আরো ছয়টি প্রকল্পের সঙ্গে ২২৯ দশমিক ৭৪ কোটি টাকার এই প্রকল্পটি অনুমোদন দেয় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)।
ছাত্র, স্টার্ট-আপ, প্রতিষ্ঠিত উদ্যোক্তা, গবেষক, সরকারি কর্মকর্তা, ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দ, পরামর্শক এবং অন্যান্যদেরকে একটি ছাতার নিচে আনার লক্ষ্য নিয়ে আইডিয়া প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে। প্রকল্পকে রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টার, কো-ওয়ার্কিং স্পেস, সাপোর্ট টু ইনোভেশন এবং এক্সপেরিয়েন্স জোন নামে মোট চার ভাগে ভাগ করা হয়েছে।
ইন্টারনেট অব থিংস, বিগ ডেটা এনালাইটিকস, মেশিন লার্নিং, ভার্চুয়াল/ অগমেন্টেড রিয়েলিটি, মোবাইল কম্পিউটিং, স্মার্ট টিভি, সিকিউরিটি সলিউশন, ইমেজ প্রসেসিং, ওয়্যারলেস কমিউনিকেশন, রোবটিকস, থ্রিডি-প্রিন্টিং ইত্যাদি ক্ষেত্রগুলোতে গবেষণা ও উন্নয়নে কাজ করতে কোয়ালিটি এসিউরেন্স ল্যাব, মোবাইল ল্যাব, ডেটা ও ইন্টারনেট অব থিংস ল্যাব,  এনিমেশন ল্যাব, অডিও প্রসেসিং ল্যাব স্থাপন এবং প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদানের জন্য একটি যোগ্য ও দক্ষ টিম গঠন করা হবে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে সম্ভাবনাময় উদ্ভাবনসমূহকে দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে পরামর্শ প্রদান, নতুন পণ্যকে  বাণিজ্যিকীকরণ ও ব্রান্ডিং-এ  সহায়তা এবং উদ্ভাবকদের ইন্টেলেকচুয়াল প্রপার্টি রাইটস সংরক্ষণে সহযোগিতা করা হবে। এক্সপেরিয়েন্স জোনে  তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে অত্যাধুনিক তথ্যপ্রযুক্তি উদ্ভাবন প্রদর্শন করার মাধ্যমে তরুণ উদ্ভাবকদের প্রত্যক্ষ করার সুযোগ দেয়া এবং দেশে উদ্ভাবিত পণ্যগুলোকে এই একাডেমিতে প্রদর্শন করা হবে।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন