ই-কমার্সেও শীর্ষে ওয়ালটন

ই-কমার্সেও শীর্ষে ওয়ালটন

waltonবিশ্বের বিভিন্ন দেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশেও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে অনলাইন কেনাবেচা ই-কমার্স। শুরতেই ইলেকট্রনিক্স পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে শীর্ষে রয়েছে ওয়ালটন। সাফল্যের ধারাবাহিকতায় ই-কমার্স সেবা আরো গতিশীল করতে খুব শিগগিরই ই-প্লাজা চালু করতে যাচ্ছে ওয়ালটন।
জানা গেছে, ২০১৫ সালের নভেম্বরে ই-কমার্স কার্যক্রম শুরু করে ওয়ালটন। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজে ই-কমার্স সাইটের উদ্বোধন করেন। প্রথম দুই মাস পরীক্ষামূলকভাবে চালু ছিলো। বর্তমানে ক্রেতাদের কাছ থেকে ভালো সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। প্রতিমাসেই বিক্রির পরিমাণ বাড়ছে।
ই-ক্যাব (ই কমার্স এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ) এর সভাপতি রাজীব আহমেদ এ প্রসঙ্গে বলেন, বাংলাদেশে ই-কমার্স ব্যবসা সম্প্রতি ব্যাপক প্রসার লাভ করছে। গবেষণা না থাকায় সঠিক সংখ্যা বলা না গেলেও, প্রায় এক হাজারের মত ই-কমার্সর ওয়েব সাইট রয়েছে বাংলাদেশে। অল্প দিনের মধ্যে খুব ভালো করেছে ওয়ালটন। এছাড়া একক ব্র্যান্ড হিসেবে আড়ং, ফুড পান্ডা, প্রাণ, নিটোল তারাও ভালো করছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ই কমার্সে ইলেকট্রনিক্স পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে শীর্ষে রয়েছে ওয়ালটন। ধারণা করা হচ্ছে টাকার অংকে অন্যান্য সকল পণ্যের ক্ষেত্রেও একক ব্র্যান্ড হিসেবে শীর্ষে রয়েছে ওয়ালটন। তবে এ বিষয়ে স্পষ্ট কোনো পরিসংখ্যান না থাকায় বিষয়টি ধারণার মধ্যেই সীমাবদ্ধ।
ওয়ালটন আইটি বিভাগের ফার্স্ট সিনিয়র এডিশনাল ডিরেক্টর লিয়াকত আলী বলেন, গ্রাহকদের হাতের নাগালে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির উচ্চ মানসম্পন্ন পণ্য সহজে পৌঁছে দিতে ওয়ালটন প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। গ্রাহকরা দেশের যে কোনো জায়গা থেকে ই-কমার্সের মাধ্যমে ওয়ালটন পণ্য কিনতে পারছেন। প্রবাসী বাংলাদেশিরাও পণ্যের অর্ডার দিয়ে দেশের যে কোনো স্থান থেকে ডেলিভারি নিচ্ছেন। এরইমধ্যে অনেক প্রবাসী ওয়ালটনের ই-কমার্স সাইট থেকে পণ্য কিনেছেন।
ওয়ালটন সূত্র মতে, তাদের ই-কমার্স পদ্ধতি খুবই সহজ। জেলা, উপজেলা এমনকি গ্রাম পর্যায়ে দ্রুত পণ্য পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। অনলাইনে অর্ডার দিলে ডিসকাউন্ট এবং ফ্রি হোম ডেলিভারি সুবিধা দিচ্ছে ওয়ালটন। ক্রেতারা মোবাইল ব্যাংকিং অথবা যে কোন ব্যাংকিং কার্ড এর মাধ্যমে অর্থ পরিশোধ করতে পারছেন।
ওয়ালটনের অপারেটিভ ডিরেক্টর উদয় হাকিম জানান, ই-কমার্স সেবাকে আরো গতিশীল করতে এবং ক্রেতাদের হাতের নাগালে সহজে সেবা পৌঁছে দিতে ই-প্ল­াজা নামে নতুন একটি পদ্ধতি চালু করতে যাচ্ছে ওয়ালটন। ফলে প্রত্যন্ত অঞ্চলে ওয়ালটনের পণ্য পৌঁছানো আরো সহজতর হবে।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন