ইমাজিন কাপ নিয়ে দিনব্যাপী আয়োজন

ইমাজিন কাপ নিয়ে দিনব্যাপী আয়োজন

গত ২৮ ফেব্রুয়ারী রাজধানী গুলশানে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ইমাজিন ক্যাম্পস শীর্ষক দিনব্যাপী একটি কর্মশালা। মাইক্রোসফটের উদ্যাগে আসন্ন ইমাজিন কাপ বাংলাদেশ ২০১৪ কে সামনে রেখে এই ক্যাম্পে উইন্ডোজ ও উইন্ডোজ ফোন চ্যালেঞ্জ নিয়ে বড় পরিসরে আলোকপাত করা হয়। উইন্ডোজ ও উইন্ডোজ ফোন চ্যালেঞ্জ স্থানীয় অংশীদারভিত্তিক একটি অ্যাপ তৈরীর চ্যালেঞ্জ যা imaginecup.com ওয়েবসাইটে অংশগ্রহন করা যাবে। একই প্রকল্প স্থানীয়ভাবে আয়োজিত মাইক্রোসফট ইমাজিন কাপ বাংলাদেশ ২০১৪ এর ৩টি বিভাগ ইনোভেশন, গেইমস ও ওয়ার্ল্ড সিটিজেনশিপেও জমা দেয়া যাবে। প্রতিযোগীতাটি সম্পর্কে জানতে এবং নিবন্ধনের জন্য http://aka.ms/icbd ওয়েবসাইট দেখতে বলা হচ্ছে। ইমাজিন কাপের নিবন্ধনের শেষ তারিখ ১৫ মার্চ। ইমাজিন কাপ নিয়ে এই ধরণের আয়োজন দেশে এই প্রথম যেখানে অ্যাপ তৈরির লক্ষ্যে ৫টি অগ্রসর অগ্রসরপর্যায়ের অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। রাজধানী ঢাকা ছাড়াও সারাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আগত দুইশতাধিক অংশগ্রহনকারী সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা নাগাদ উপস্থিত থেকে সতস্ফুর্তভাবে প্রতিটি অধিবেশনে অংশগ্রহন করেন। উক্ত অনুষ্ঠানটি সকলের জন্য উন্মুক্ত ছিল।

Photo2

এতে আলোকপাত করা হয় কি করে যৌথভাবে উইন্ডোজ ও উইন্ডোজ ফোন উভয় ধরনের অপারেটিং সিস্টেমের জন্য প্রতিযোগীরা অ্যাপ প্রস্তুত করতে পারে। তাছাড়া, উইন্ডোজ অ্যাপস্টোরে অ্যাপ বিক্রি করে একমাসে লাখোপতি হওয়া হাসান তানভির মনসুরও তার অভিজ্ঞতা সবার মাঝে ছড়িয়ে দেন। এছাড়াও একই দিনে বিকেল ৫টা থেকে অনুষ্ঠানটির দ্বিতীয় পর্ব গেইম ক্যাম্প শীর্ষক আরো একটি কারীগরী অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয় মাইক্রোসফট বাংলাদেশের অফিসে যেটি চলে রাত সাড়ে নয়টা পর্যন্ত। এতে সাধারন দ্বি-মাত্রিক গেইম তৈরীর ধারনা থেকে দেখানো হয় কি করে অত্যন্ত জনপ্রিয় ফ্ল্যাপিবার্ড গেইম অতি অল্প সময়ে তৈরী করা যায়। প্রতিটি অংশগ্রহনকারী তাদের নিজস্ব সংস্করনের ফ্ল্যাপিবার্ড গেইম তৈরী করেন। এ ব্যাপারে মাইক্রোসফটের টেক. ইভাঞ্জেলিস্ট তানজিম সাকীব বলেন, “আমরা বাংলাদেশে গেইম তৈরীর একটি গোষ্ঠী তৈরী করতে চাচ্ছি, যা নিয়ে কেউ কখনও এদেশে কাজ করেনি। এটি একসময় সকলের সহযোগিতায় স্থানীয় শিল্পে পরিণত হওয়ার সম্ভাবনা আছে। বহনযোগ্যযন্ত্রাবলীর জন্য গেইম তৈরী করা অপেক্ষাকৃত কম সময়সাপেক্ষ্য এবং মজার, তাই এটা শুধু ইমাজিন কাপের গেইম বিভাগে অংশগ্রহনের জন্যই নয়, পরবর্তীতে গেইম স্টার্টআপ তৈরী করে স্বনির্ভরতা অর্জনেরও একটি কার্যকর পদক্ষেপ হবে বলে আমি আশাবাদী।“ অতিসত্ত্বর বেশ কয়েকটি গেইম ক্যাম্পের আয়োজন করা হবে। সে সংক্রান্ত তথ্যাবলী জানতে এই পেজে চোখ রাখতে অনুরোধ করা হচ্ছেঃ http://aka.ms/bddev

About অঞ্জন দেব

একটি উত্তর দিন