ইন্টারনেটের ভ্যাট-ট্যাক্স কমাতে আইএসপিএবি’র প্রস্তাব

ইন্টারনেটের ভ্যাট-ট্যাক্স কমাতে আইএসপিএবি’র প্রস্তাব

২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজাটে ইন্টারনেট ও ইন্টারনেট সম্পর্কিত সবধরনের পণ্য থেকে ভ্যাট ও আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করতে প্রস্তাব করেছে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি)।
শুধু ভ্যাট-শুল্ক প্রত্যাহার নয়, পাশাপাশি আইএসপিএবি তাদের কার্যক্রমকে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে অন্তর্ভুক্তির প্রস্তাব করেছে।
আইএসপিএবির করা ১১টি প্রস্তাবের প্রথমেই ইন্টারনেট ডাটা থেকে ১৫ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহার করার দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।
শুধু ইন্টারনেট ডাটা নয়, ইন্টারনেট মডেম, ইথারনেট ইন্টারফেস কার্ড, কম্পিউটার নেটওয়ার্ক সুইচ, হাব, রাউটার, সার্ভার ব্যাটারিসহ সকল ইন্টারনেট সরঞ্জামের উপর থেকে বর্তমানে আরোপিত ২২ দশমিক ১৬ শতাংশ ভ্যাট ও শুল্ক প্রত্যাহার করতে হবে।
এছাড়াও অপটিক্যাল ফাইবার ও এ সম্পর্কিত পণ্যে শুল্ক প্রত্যাহার, উইন্ডিং ওয়্যার অব কপার ক্যাবল, কো অ্যাক্সিয়াল ক্যাবল এবং অন্যান্য কো অ্যাক্সিয়াল ইলেক্ট্রিক কন্ডাক্টর পণ্যের উপর থেকে সবধরনের ভ্যাট ও শুল্ক প্রত্যাহার করার প্রস্তাব করা হয়েছে।
আইএসপিএবি তাদের প্রস্তাবে কর্পোরেট ট্যাক্স কমানো, আইটিইএসকে মূসক অব্যাহতি, ইন্টারনেট সেবা প্রদানে ব্যবহৃত বাড়ি বা স্থানের উপর আরোপিত মূসক অব্যাহতি দেয়া, ইন্টারনেট শিল্পকে ট্যাক্স হলিডের আওতাভুক্ত করা এবং ন্যাশনওয়াইড টেলিকমিউনিকেশন ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্ক (এনটিটিএন) সংযোগের উপর থেকে সব ধরনের ভ্যাট ও শুল্ক প্রত্যাহার করার।
আইএসপিএবি ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট থেকেই এসব পণ্য ও সেবার উপর থেকে ভ্যাট ও শুল্ক প্রত্যাহার করতে জোর দাবি জানিয়েছে।

About Sohel Rana

একটি উত্তর দিন