ইন্টারনেটের খরচ কমাতে

ইন্টারনেটের খরচ কমাতে

শনিবার, ১২ মে ২০১২, ২৯ বৈশাখ ১৪১৯

আমাদের দেশেও ইন্টারনেটের ব্যবহার দিন দিন বেড়েই চলেছে। যারা সীমিত ব্যান্ডউইথের ইন্টারনেট চালাতে চান, অনেক সময় তাদের মাসের নির্ধারিত কোটা শেষ হয়ে যায় আগেই। তবে নির্দিষ্ট কিছু কাজ করলে ব্যান্ডউইথের খরচ অনেকখানি কমিয়ে নিয়ে আসা যায়। ইন্টারনেটের খরচ কমিয়ে নিয়ে আনার জন্য এই লেখায় কিছু টিপস জানানো হলো।

++ভিডিও চ্যাটিং বন্ধ রাখুন। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ভিডিও চ্যাটিং প্রচুর পরিমাণে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথড খরচ করে। স্কাইপি বা অন্যান্য ভিডিও চ্যাটিং সফটওয়্যার ব্যবহার করলে অবশ্যই তা আপনার ব্যান্ডউইথকে খরচ করবে বেশি। আধাঘন্টার ভিডিও চ্যাটিংয়ে ১০০ থেকে ৩০০ মেগাবাইট খরচ হয়ে যেতে পারে। তাই যদি আপনার ইন্টরনেটের ব্যবহার সীমিত হয়ে থাকে, ভিডিও চ্যাটিংয়ের ক্ষেত্রে সাবধান হোন।

++ক্ষতিকর সফটওয়্যার থেকে সাবধান থাকুন। বিভিন্ন ম্যালিশিয়াস সফটওয়্যার বা ম্যালওয়্যার আপনার অজান্তেই প্রচুর পরিমাণে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ খরচ করে দিতে পারে, যার হিসাব আপনি মেলাতে পারবেন না। তাই অনলাইনে কোনো সন্দেহজনক সাইটে ঢুকবেন না এবং বিশ্বস্ত সাইট ছাড়া কোনো সফটওয়্যার বা অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড ও ইন্সটল করবেন না। যদি ইন্টারনেটের খরচ ধারণার চাইতে অনেক বেশি হয়, তাহলে দ্রুত পিসি চেক করুন।

++অনলাইন গেমিং থেকে দূরে থাকুন। যাদের সীমিত ব্যান্ডউইথের ইন্টারনেট ব্যবহার করতে হয়, তাদের জন্য অনলাইন গেমিং বিলাসিতার নামান্তর। এক ঘন্টার অনলাইন গেমিংয়ে ১০০ মেগাবাইট খরচ হয়ে যেতে পারে। কাজেই প্রয়োজনের কাজগুলো করতে গেলে এই বিলাসিতা ত্যাগ করতে হবে।

++ভিডিও স্ট্রিমিং কম করুন। এক ঘন্টা ভিডিও স্ট্রিমিং করলে ২০০ মেগাবাইট পর্যন্ত খরচ হবে। ইউটিউব বা ভিমিও’র মত সাইটগুলো লোড করলেও ভিডিও স্বয়ংক্রিয়ভাবে লোড হতে থাকে। সেক্ষেত্রে অবশ্যই এসব সাইটের অটো ভিডিও লোড অপশন বন্ধ করে রাখতে হবে। অন্যান্য সাইটের ভিডিও লিংকগুলোও অটো লোড বন্ধ করে দিন। কেবল দরকারের ভিডিওটিই দেখুন। বাকিগুলো অটো লোড না হলে দেখবেন ইন্টারনেটের ব্যবহার অনেকখানি সাশ্রয় হবে।

About MOHSIN BHUIYAN

One comment

একটি উত্তর দিন