“আমেরিকা তৈরি করছে নতুন ভ্যানিশিং প্রযুক্তি!”

“আমেরিকা তৈরি করছে নতুন ভ্যানিশিং প্রযুক্তি!”

আমেরিকার সেনাবাহিনী নতুন প্রযুক্তিতর কাজ শুরু করতে যাচ্ছে, যেটা দিয়ে এমন কিছু অস্ত্র বানানো যাবে যেগুলো কাজ শেষ হওয়ার পর নিজেরাই নিজেদের ভ্যানিশ করে দিবে। মিশন ইমপসিবল মুভিতে যেমন সিক্রেট ডাটা মুছে যায়।

"আমেরিকা তৈরি করছে নতুন ভ্যানিশিং প্রযুক্তি!"আমেরিকার সেনাবাহিনী নতুন প্রযুক্তিতর কাজ শুরু করতে যাচ্ছে, যেটা দিয়ে এমন কিছু অস্ত্র বানানো যাবে যেগুলো কাজ শেষ হওয়ার পর নিজেরাই নিজেদের ভ্যানিশ করে দিবে। মিশন ইমপসিবল মুভিতে যেমন সিক্রেট ডাটা মুছে যায়। দার্পা (ইউএস অ্যাডভান্সড রিসার্স প্রজেক্টস এজেন্সি) প্রতিষ্ঠানটি আইবিএমের সাথে ৪মিলিয়ন মার্কিনী ডলারের চুক্তিতে এই কাজ টি করছে। এই প্রোগ্রামেবল রিসোর্সেসে প্রকল্পে কিছু ইলেকট্রনিক যন্ত্র তৈরি করা হবে যা রিমোট কন্ট্রোলের মাধ্যমে ভ্যানিষ করে দেয়া যাবে। এই অস্ত্রগুলো যুদ্ধে ব্যবহার করা হবে। ডিভাইসগুলোকে প্রাথমিকভাবে রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি দিয়ে কনট্রোল করা হবে। সিগন্যাল দেয়া মাত্রই অস্ত্রগুলো পাউডারের মতো গুড়িয়ে যাবে। এই অস্ত্র গুলো আসলে যুদ্ধে বিভিন্ন ডাটা সংগ্রেহের কাজে ব্যবহার করা হবে। এই যন্ত্রগুলো অনেক ক্ষমতা সম্পন্ন নেটওয়ার্কে যুক্ত থাকবে এবং এর ভিতরে প্রচুর সেন্সর রাখা হবে। ডাটা দেয়ানেয়া হয়ে গেলে বিরোধ পক্ষের হাতে যাওয়ার আগেই নিজেকে ধংস করে ফেলবে। দার্পা মনে করে এই সিস্টেমটি সেই মুহুর্তে চিকিৎসার ব্যাপারেও কাজে লাগতে পারে। মানুষের দেহের ভিতরে সাময়িকভাবে জরুরি ভিত্তিতে ইমপ্লান্ট বা ছোট সাইজের মেশিন বসিয়ে কাজ হয়ে যাওয়ার পর দেহের দ্বারাই শোষণ করিয়ে নেয়া গেলে চিকিৎসার আরো উন্নতি হবে।
দার্পা (ইউএস অ্যাডভান্সড রিসার্স প্রজেক্টস এজেন্সি) প্রতিষ্ঠানটি আইবিএমের সাথে ৪মিলিয়ন মার্কিনী ডলারের চুক্তিতে এই কাজ টি করছে। এই প্রোগ্রামেবল রিসোর্সেসে প্রকল্পে  কিছু ইলেকট্রনিক যন্ত্র তৈরি করা হবে যা রিমোট কন্ট্রোলের মাধ্যমে ভ্যানিষ করে দেয়া যাবে। এই অস্ত্রগুলো যুদ্ধে ব্যবহার করা হবে। ডিভাইসগুলোকে প্রাথমিকভাবে রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি দিয়ে কনট্রোল করা হবে। সিগন্যাল দেয়া মাত্রই অস্ত্রগুলো পাউডারের মতো গুড়িয়ে যাবে। এই অস্ত্র গুলো আসলে যুদ্ধে বিভিন্ন ডাটা সংগ্রেহের কাজে ব্যবহার করা হবে। এই যন্ত্রগুলো অনেক ক্ষমতা সম্পন্ন নেটওয়ার্কে যুক্ত থাকবে এবং এর ভিতরে প্রচুর সেন্সর রাখা হবে। ডাটা দেয়ানেয়া হয়ে গেলে বিরোধ পক্ষের হাতে যাওয়ার আগেই নিজেকে ধংস করে ফেলবে। দার্পা মনে করে এই সিস্টেমটি সেই মুহুর্তে চিকিৎসার ব্যাপারেও কাজে লাগতে পারে। মানুষের দেহের ভিতরে সাময়িকভাবে জরুরি ভিত্তিতে ইমপ্লান্ট বা ছোট সাইজের মেশিন বসিয়ে কাজ হয়ে যাওয়ার পর দেহের দ্বারাই শোষণ করিয়ে নেয়া গেলে চিকিৎসার আরো উন্নতি হবে।

About Mahdi Hasan

Mahdi Hasan