আগামীকাল দেশে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আইটিইই পরীক্ষা

আগামীকাল দেশে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আইটিইই পরীক্ষা

আগামীকাল (২৭ অক্টোবর) দেশে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আইটিইই পরীক্ষা

দেশের আইটি গ্রাজুয়েট ও পেশাজীবিদের আর্ন্তজাতিক দক্ষতা পরিমাপের জন্য দেশে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ইনফরমেশন টেকনোলজী ইঞ্জিনিয়ার্স এক্সামিনেশন- আইটিইই  পরীক্ষা। আগামীকাল (২৭ অক্টোবর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হলে সকাল ৯.৩০ মিনিটে জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সীর (জাইকা) সহযোগিতায় বাংলাদেশী প্রায় তিনশ আইটি পেশাদার সম্পূর্ন বিনা খরচে আইটিইই  পরীক্ষায় অংশ নিবেন। পরীক্ষা পদ্ধতি সরেজমিনে পরিদর্শন ও পর্যবেক্ষন কররেন  তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব  মো. নজরুল ইসলাম খান। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত থাকবেন ইনফরমেশন টেকনোলজী প্রমোশন এজেন্সীর (আইপিএ) প্রধান উপদেষ্টা সাকাগুচি, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক এস এম আশফাক  হুসেন, প্রকল্প পরিচালক  ড.  শেখ আমজাদ হোসেন, প্রকল্পের প্রধান উপদেষ্টা হিদিও হোয়া, প্রকল্প ব্যবস্থাপক মো: রাবিউল ইসলাম এবং প্রকল্পের সমন্বয়ক  আকিহিরো সুজি। উল্লেখ্য, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল এর অধীন “বাংলাদেশ আইটি ইঞ্জিনিয়ারস এক্সামিনেশন সেন্টার (বিডি-আইটেক)” এর মাধ্যমে দেশে প্রথম বারের মতো জাপান সরকারের সহায়তায় তথ্য প্রযুক্তি পেশাজীবিদের দক্ষতা পরিমাপক আইটিইই পরীক্ষা পদ্ধতি চালু হলো। জাপানে এটি আইটি  প্রোফেশনালদের মান নিয়ন্ত্রক হিসেবে জাতীয় পরীক্ষা পদ্ধতি হিসেবে পরিচিত এবং বছরে পাঁচ থেকে ছয় লক্ষ পরীক্ষার্থী এই পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে থাকে। এশিয়ার ১২টি দেশে মিউচুয়ালি এই পদ্ধতি চালু আছে। বাংলাদেশে এই পরীক্ষা পদ্ধতি চালুর ফলে দেশের আইটি পেশাজীবিগণ তাদের দক্ষতার পরিমাপ করতে পারবেন এবং এই সার্টিফিকেট অর্জনের ফলে দেশে ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তাদের গ্রহনযোগ্যতা বৃদ্ধি পাবে। আশা করা যায় এই সার্টিফিকেশনের মাধ্যমে আইটি ক্ষেত্রে বিদেশে কর্মসংস্থান বৃদ্ধি পাবে।

প্রকল্প পরিচালক ড.শেখ আমজাদ হোসেন  জানান, বিডি-আইটেক আগামী  এপ্রিল’১৪ মাসে পরবর্তী আইটিইই ট্রায়াল পরীক্ষা আয়োজন করবে। পরীক্ষা দুটির সফল আয়োজনের পর বাংলাদেশ নিয়মিত ভাবে আইটিইই পরীক্ষা পদ্ধতি চালুর লক্ষ্যে জুন’১৪ তে আইটিপেক এর সদস্য পদের জন্য আবেদন করবে।

লেখাটি প্রথম প্রকাশিত: প্রযুক্তিকথন

About বদরুদ্দোজা মাহমুদ তুহিন

একটি উত্তর দিন